শ্রীলংকায় সংসদ অধিবেশন শুরু | বিশ্ব | DW | 22.04.2010
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

শ্রীলংকায় সংসদ অধিবেশন শুরু

বিরোধী নেতা ফনসেকা মার্ক্সবাদী দলের প্রার্থী হিসেবে সংসদে জয়ী হয়েছেন৷ সংসদ অধিবেশনে যোগ দেয়ার অনুমতি থাকলেও, তাঁর সঙ্গে কথা বলার অনুমতি সাংবাদিকদের ছিল না৷

default

শ্রীলংকার প্রেসিডেন্ট মাহিন্দা রাজাপাকসা

শ্রীলংকায় বৃহস্পতিবারে সংসদের উদ্বোধনী অধিবেশনে সর্বসম্মতিক্রমে দেশটির প্রেসিডেন্টের ভাইকে স্পিকার নির্বাচন করা হয়৷ সংসদের উদ্বোধনী অধিবেশনেই সরকারকে আক্রমণ করে বক্তব্য রেখেছেন সামরিক আদালতে বিচারাধীন জেনারেল শরৎ ফনসেকা৷

শ্রীলংকার নবনির্বাচিত সংসদের উদ্বোধনী অধিবেশনের দিকে আগে থেকেই সবার দৃষ্টি ছিল৷ সবাই দেখতে চাচ্ছিল কি ঘটে৷ পর্যবেক্ষকরা যেরকম ভাবছিলেন, ঘটলোও অনেকটা সেইরকম৷ কারাবন্দি জেনারেল শরৎ ফনসেকা তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী, প্রেসিডেন্ট মাহিন্দা রাজাপাকসাকে সংসদের উদ্বোধনী অধিবেশনেই একহাত দেখে নেয়ার চেষ্টা করেছেন৷ দাবি জানিয়েছেন দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার৷ ফনসেকার কোর্ট মার্শাল চলছে৷ তবে তিনি সংসদের অধিবেশনগুলোতে যোগ দেয়ার সুযোগ পাচ্ছেন৷

Flash-Galerie Sri Lanka

জেনারেল শরৎ ফনসেকা

দুর্নীতির অভিযোগে ৮ ফেব্রুয়ারি ফনসেকাকে আটক করার পর, এই প্রথম তিনি জনসমক্ষে কোন মন্তব্য করলেন৷ গত বছরের মে মাসে শ্রীলংকার সরকার তামিল টাইগার বিদ্রোহীদের পরাজিত করার পর, প্রেসিডেন্টের সঙ্গে ফনসেকার সম্পর্কের অবনতি ঘটে৷ চলতি বছর জানুয়ারিতে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ফনসেকা রাজাপাকসার কাছে পরাজিত হন৷ ২২৫ আসন বিশিষ্ট সংসদের উদ্বোধনী অধিবেশনে ফনসেকা সাংসদদের বলেন, ''দেশে গণতন্ত্র, আইনের শাসন, ব্যক্তিগত স্বাধীনতা এবং গণমাধ্যমের স্বাধীনতা জরুরি৷'' সংসদের অন্যান্য দলের প্রধানদের সঙ্গে ফনসেকাও, নবনির্বাচিত স্পিকার, প্রেসিডেন্ট মাহিন্দা রাজাপাকসার ভাই, কমল রাজাপাকসাকে অভিনন্দন জানান৷ ফনসেকা বলেন, গণতন্ত্র প্রতিরক্ষার কাজ অবশ্যই সংসদ থেকেই শুরু করতে হবে৷ বিরোধী নেতা ফনসেকা মার্ক্সবাদী দলের প্রার্থী হিসেবে সংসদে জয়ী হয়েছেন৷ প্রতিটি সংসদ অধিবেশনে তাঁর উপস্থিত হবার অনুমতি থাকলেও, অধিবেশন শেষ হবার পর তাঁকে আবার কারগারে ফিরে যেতে হবে৷ জেনারেল ফনসেকার ইস্যুটি শ্রীলংকার সরকারের কাছে একটি স্পর্শকাতর ইস্যু হিসেবেই পরিচিত৷ ফনসেকার সংসদ অধিবেশনে যোগ দেয়ার অনুমতি থাকলেও, তাঁর সঙ্গে কথা বলার অনুমতি সাংবাদিকদের ছিল না৷ এবং রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে প্রচারিত সংসদ অধিবেশনের প্রতিবেদনে ফনসেকাকে সম্পুর্ণভাবে উপেক্ষা করা হয়েছে৷

সংসদ অধিবেশনে মূলত প্রভাব বিস্তার করে আছে প্রেসিডেন্টের নেতৃত্বাধীন ইউনাইটেড পিপলস ফ্রিডম অ্যালায়েন্স৷ রাজাপাকসার নতুন সরকারের অনেকটাই তাঁর পরিবারের সদস্যদের নিয়ে গঠিত৷ প্রসিডেন্টের বড় ছেলে নমল সংসদে যাচ্ছেন৷ তাঁর ভাই বাসিল এবং কমল সংসদের আসনে জয়ী হয়েছেন৷ কমল নবনির্বাচিত সরকারের স্পিকারও হয়েছেন৷ এছাড়া প্রেসিডেন্ট রাজাপাকসার তৃতীয় ভাই দেশের শীর্ষ নিরাপত্তা কর্মকর্তা৷

সংসদের ২২৫টি আসনের মধ্যে নির্বাচনে ১৪৪টি আসন পেয়েছে, রাজাপাকসার ক্ষমতাসীন জোট৷

প্রতিবেদক: ফাহমিদা সুলতানা

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারুক

সংশ্লিষ্ট বিষয়