শ্রীদেবীর মৃত্যুর কারণ ‘দুর্ঘটনাজনিত′ | বিশ্ব | DW | 27.02.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ভারত

শ্রীদেবীর মৃত্যুর কারণ ‘দুর্ঘটনাজনিত'

বলিউড অভিনেত্রী শ্রীদেবীর মৃত্যুর কারণ অনুসন্ধানে পরিচালিত তদন্ত মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিকভাবে শেষ করেছে দুবাই পুলিশ৷ তাঁর মরদেহ ইতোমধ্যে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে তাঁর নিজের দেশ ভারতে৷

একটি পারিবারিক বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে দুবাই গিয়েছিলেন ৫৪ বছর বয়সি জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্রীদেবী৷ কিন্তু শনিবার সেখানে হঠাৎই তাঁর মৃত্যু হয়৷ দুবাই পুলিশের তদন্ত অনুযায়ী, অচেতন অবস্থায় বাথটাবের পানিতে ডুবে মারা গেছেন একসময়ের আলোচিত এই তারকা৷ তাই এই মৃত্যুকে ‘দুর্ঘটনাজনিত' আখ্যা দিয়েই তদন্তের আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি টেনেছে তারা৷

দুবাই সরকারের গণমাধ্যম দপ্তর মঙ্গলবার টুইটারে জানিয়েছে, ‘‘ভারতীয় অভিনেত্রী শ্রীদেবীর মৃত্যুর পূর্ণাঙ্গ তদন্ত শেষে তাঁর মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তরের নির্দেশ দিয়েছেন দুবাইয়ের সরকারি কৌঁশুলি৷''

প্রসঙ্গত, শ্রীদেবীর মৃত্যুর পর প্রাথমিকভাবে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছিল দুবাই কর্তৃপক্ষ৷ পরবর্তীতে বাথটাবে ডুবে তাঁর মৃত্যু ঘটেছে বলে নিশ্চিত করে পুলিশ৷ তাদের পূর্ণাঙ্গ তদন্ত প্রতিবেদন জনসমক্ষে এখনো প্রকাশ করা না হলেও তাতে হৃদরোগের সঙ্গে পানিতে ডুবে মৃত্যুর মধ্যকার কোনো সম্পর্ক রয়েছে কিনা তা ব্যাখ্যা করা হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে৷

এদিকে, ভারতের স্থানীয় গণমাধ্যম শ্রীদেবীর মৃত্যুর কারণ নিয়ে নানা গুজবের কথা প্রকাশ করে এবং বাথটাবের ছবি দেখিয়ে সমালোচনার মুখে পড়েছে৷ এভাবে আলোচিত এই নায়িকার চরিত্রহননের চেষ্টা করা হয়েছে বলেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মন্তব্য করেছেন কেউ কেউ৷

শ্রীদেবীর শেষকৃত্য কবে আয়োজন করা হবে, তা এখনো জানা যায়নি৷ তবে তাঁর মরদেহ ভারতে যাওয়ার খবর প্রকাশের পর মুম্বাইয়ে তাঁর বাড়ির সামনে ভিড় আরো বেড়েছে৷ অনেকেই জনপ্রিয় এই অভিনেত্রীকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে সেখানে ভিড় করেছেন৷

এআই/এসিবি (ডিপিএ, এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন