শূকর ঠেকাতে জার্মান সীমান্তে বেড়া দেবে ডেনমার্ক | বিশ্ব | DW | 23.03.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ইউরোপ

শূকর ঠেকাতে জার্মান সীমান্তে বেড়া দেবে ডেনমার্ক

শূকর রপ্তানির উপর যেন প্রভাব না পড়ে তা নিশ্চিত করতে বৃহস্পতিবার এই পরিকল্পনার কথা জানিয়েছে ডেনমার্ক৷ পোল্যান্ডও এমন বেড়া দেয়ার চিন্তাভাবনা করছে৷

Grenze Deutschland Dänemark (picture-alliance/Ritzau Scanpix/C. Fisker)

জার্মানি-ডেনমার্ক সীমান্ত

সম্প্রতি পূর্ব ইউরোপের কয়েকটি দেশে আফ্রিকান সোয়াইন ফিভার ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে৷ ডেনমার্কের আশংকা, এই ভাইরাসবাহী কোনো বুনো শূকর হয়ত জার্মান সীমান্ত দিয়ে ডেনমার্কে ঢুকে পড়তে পারে৷ তেমনটি হলে ডেনমার্কের খামারগুলোতে থাকা শূকরের শরীরেরও সেই ভাইরাস প্রবেশ করতে পারে৷ ফলে ইউরোপের বাইরে যেসব দেশে ডেনমার্ক শূকর রপ্তানি করে, তা বন্ধ হয়ে যেতে পারে বলে আশংকা করছে দেশটি৷ ঐ দেশগুলোতে প্রতিবছর গড়ে ১ দশমিক ৮ বিলিয়ন ডলারের সমপরিমাণ শূকরের মাংস রপ্তানি করে ডেনমার্ক৷

বেড়া দেয়ার পরিকল্পনা সম্পর্কে ডেনমার্কের পরিবেশ ও খাদ্য বিষয়ক মন্ত্রী এসবেন লুন্ডে লারসেন বলেন, ‘‘আমি কোনো ঝুঁকি নিতে চাই না৷ আমরা বার্ষিক ১১ বিলিয়ন ক্রোনারের (১ দশমিক ৮ বিলিয়ন ডলার) রপ্তানি খাত নিয়ে ঝুঁকি নিতে পারি না৷’’

ইউরোপের বাইরের দেশ ছাড়াও ইউরোপের বিভিন্ন দেশেও শূকর রপ্তানি করে ডেনমার্ক৷ সবমিলিয়ে গড়ে প্রতিবছর প্রায় সাড়ে পাঁচ বিলিয়ন ডলার আয় করে দেশটি৷

আফ্রিকান সোয়াইন ফিভার মানুষ ও অন্য প্রাণীর জন্য ক্ষতিকর না হলেও শূকরদের জন্য সেটি প্রাণঘাতী হতে পারে৷ এছাড়া এই রোগের কোনো টিকা এখনও নেই৷

পরিকল্পনা অনুযায়ী, ডেনমার্ক-জার্মান সীমান্তে ৭০ কিলোমিটার দীর্ঘ বেড়া নির্মাণ করা হবে৷ উচ্চতা হবে দেড় মিটার৷ আর মাটির নীচে থাকবে আধা মিটার৷

এছাড়া বুনো শূকর শিকারের নিয়মকানুন আরও সহজ করেছে ডেনমার্ক৷ ফলে এখন থেকে শিকারিরা রাতেও শূকর শিকার করতে পারবেন৷ বুনো শূকরের কাছ থেকে খামারে পালিত শূকরদের বাঁচাতে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে৷

এর আগে জার্মানিও শূকর শিকারের নিয়ম সহজ করেছে৷ ফলে শিকারিরা এখন সারা বছরই বুনো শূকর মারতে পারবেন৷ এর আগে শুধু মধ্য জুন থেকে জানুয়ারির শেষ পর্যন্ত শিকার করার অনুমতি ছিল৷

উল্লেখ্য, এখন পর্যন্ত চেক প্রজাতন্ত্র, রোমানিয়া, এস্তোনিয়া, লাটভিয়া ও লিথুয়ানিয়ায় আফ্রিকান সোয়াইন ফিভার ভাইরাসের আক্রমণের খবর পাওয়া গেছে৷

পোল্যান্ডও তাদের পূর্বাঞ্চলের সীমান্তে বেড়া দেয়ার চিন্তাভাবনা করছে৷

জেডএইচ/এসিবি (রয়টার্স, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়