শুধু ঘনিষ্ঠদের সঙ্গে দেখা করবেন খালেদা জিয়া | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 26.03.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

শুধু ঘনিষ্ঠদের সঙ্গে দেখা করবেন খালেদা জিয়া

শর্তসাপেক্ষে ছয় ‍মাসের কারামুক্তি পাওয়া বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া গুলশানের বাসভবনে স্বেচ্ছা কোয়ারান্টিনে আছেন৷ এই সময়ে তিনি পরিবারের একান্ত ঘনিষ্ঠ দুই একজন ছাড়া কারো সঙ্গে দেখা করবেন না৷

খালেদা জিয়া আপাতত গুলশানের বাসভবনে কোয়ারান্টিনে থাকবেন৷ তিনি নিজেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন৷ টেলিফোনে ডয়চে ভেলেকে বৃহস্পতিবার একথা জানান বিএনপি চেয়ারপার্সনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান৷

তিনি বলেন, ‘‘গতকাল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাড়ি ফেরার পর ম্যাডামের পারিবারিক ডাক্তার এবং দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ কয়েকজন জ্যেষ্ঠ নেতা তার সঙ্গে দেখা করেছেন৷ তাদের কাছে ম্যাডাম ১৪ দিন স্বেচ্ছা কোয়ারান্টিনে থাকার কথা বলেছেন৷

‘‘আজ ম্যাডামের ছোট ভাইয়ের স্ত্রী কানিজ ফাতেমা ওনার সঙ্গে দেখা করেছেন৷ এছাড়া বাইরের আর কাউকে দেখা করতে দেওয়া হচ্ছে না৷ আর বর্তমান পরিস্থিতিতে বাইরের কারো পক্ষে আসাও সম্ভব নয়৷’’

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ১৭ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত খালেদা জিয়া ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে টানা প্রায় ২৫ মাস কারাগারে বন্দি ছিলেন৷

সরকার বয়স ও অসুস্থতা বিবেচনায় নিয়ে তাকে ছয় মাসের জন্য শর্তসাপেক্ষে মুক্তি দিলে বুধবার বিকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রিজন সেল থেকে বাড়ি ফেরেন সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী৷ মুক্তির শর্ত‍ানুযায়ী এই ছয় মাস তিনি বাড়িতে থেকে চিকিৎসা নিতে পারবেন৷ কিন্তু বিদেশে যেতে পারবেন না৷ 

খালেদা জিয়ার চিকিৎসার বিষয়ে শায়রুল বলেন, ‘‘জেলে থাকা অবস্থায় তাকে যে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে সেগুলোর কাগজপত্র সংগ্রহ করার কথা বলেছেন তার ব্যক্তিগত চিকিৎসকরা৷’’ বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খানের বরাত দিয়ে তিনি জানান, ‘‘দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের স্ত্রী ডা. জোবাইদা রহমান তার চিকিৎসার সমন্বয় করবেন এবং ম্যাডামের পরবর্তী চিকিৎসা কিভাবে হবে সে বিষয়েও সিদ্ধান্ত নেবেন৷’’ 

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন