‘শুধু কওমি, আলিয়া নয়, আসলে দরকার সুশিক্ষা′ | পাঠক ভাবনা | DW | 25.01.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

পাঠক ভাবনা

‘শুধু কওমি, আলিয়া নয়, আসলে দরকার সুশিক্ষা'

‘দেশকে এগিয়ে নিতে কওমি আলিয়াসহ বিষয়ভিত্তিকভাবে সকল শিক্ষা ব্যবস্থার সমান মূল্যায়ণ এবং সুশিক্ষা দরকার৷' এক পাঠকের এই মন্তব্যের সাথে কেউ কেউ একমত হলেও ভিন্নমতও রয়েছে৷

‘আলিয়ার সাথে কওমিকে গুলিয়ে ফেলা ভুল'- ডয়চে ভেলের এই শিরোনামের সাক্ষাৎকারটি পড়ে কওমি শিক্ষার পক্ষে মত জানিয়ে পাঠক নজরুল হায়দার ফেসবুক পাতায় লিখেছেন, ‘‘তারপরেও আমি চ্যালেঞ্জ করে বলতে পারি,কওমি মাদ্রাসায় এমনও কিছু শিক্ষক আছেন যাদের একজনের সাথে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক'রা পাঁচ মিনিটও বিতর্কে টিকবে না৷'' তিনি মনে করেন কওমি মাদ্রাসায় একজন শিক্ষার্থীকে সর্বোচ্চ উত্তম চরিত্র শিক্ষা দেওয়া হয়, যা অন্য কোথাও নেই৷

উল্টোমত পোষণ করেন পাঠক ওমর ফারুক৷ তিনি লিখেছেন,  ‘‘কওমি শিক্ষাব্যবস্থা পুরোপুরি দুনিয়াবী উদ্দেশ্যে নয়৷ ইসলামের ওপর পাণ্ডিত্য অর্জন ও পরকালীন চিরস্থায়ী জিন্দেগীর চিন্তা থেকে এ শিক্ষা গ্রহণ করা হয়৷ কারণ, মুমিন ক্ষণস্থায়ী দুনিয়াকে নয়, আখিরাতকে প্রাধান্য দেয়৷''মাদ্রাসা শিক্ষা ব্যবস্থা অব্যশই সংস্কার করা উচিত,  মুসলিম দেশগুলোতে মাদ্রাসা শিক্ষা ব্যবস্থা সংস্কার করা হচ্ছে৷আর শাহরিয়ার জাফরির মতে, দেশের সব শিক্ষাব্যবস্থারই সংস্কার জরুরি৷ মাহবুব হাসান রিমন দুঃখ করে লিখেছেন, ‘‘আমাদের মাদ্রাসা থেকে প্রতি বছর কম-বেশি প্রায় ১০০ জন ঢাবিতে চান্স পায়৷ কিন্তু ভর্তি পরীক্ষায় ভালো করার পরও তাদের ভালো সাবজেক্ট দেওয়া হয়না৷''

শরিফুল ইসলাম লিখেছেন, সব শ্রেণির শিক্ষাকে আধুনিকায়ন ও মূল্যায়ণ করা দরকার৷দেশকে এগিয়ে নিতে হলে সুশিক্ষা দরকার৷ কওমি আলিয়াসহ সকল শিক্ষা ব্যবস্থার বিষয়ভিত্তিকভাবে সমান মূল্যায়ন দরকার৷ শরিফুল ইসলামের সাথে একমত পাঠক মো.খানও৷ তিনি মতে কওমিকে ঢেলে সাজিয়ে বিজ্ঞান ইংরেজি জিওগ্রাফি সংযোজন করে আধুনিকায়ন করা হোক৷

এদিকে পাঠক রাকিব হওলাদার বলছেন, ‘‘মাদ্রাসা শিক্ষা ব্যবস্থা সম্পর্কে আমার তেমন কোন ধারনাই ছিল না, মনে করতাম মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের শুধু কোরআন ও হাদিস পড়ায় আরবিতে৷ ইংরেজি বা বিজ্ঞান নিয়ে কিছুই জানে না৷ ডয়চে ভেলের এই রিপোর্টের মাধ্যমে আমার ভুল ধারণা ভেঙে গেলো, পরিশেষে বুঝতে পারলাম তারা আমাদের থেকে অধিক এগিয়ে৷''

ডয়চে ভেলের পাঠক মামুন আহমেদ তার মতামত জানিয়েছেন এভাবে, ‘‘আলিয়ার সাথে কওমি মাদ্রাসাকে গোলানো ঠিক হবে না, কারণ, আলিয়া মাদ্রাসা সরকার কর্তৃক পরিচালিত, কওমি মাদ্রাসা তাদের নিজস্ব বোর্ডের আওতায় পরিচালিত৷ তবে মাদ্রাসা হলো দ্বীন ইসলাম শিক্ষার প্রাণকেন্দ্র, সেখানে যেসব শিক্ষার্থী জ্ঞান অর্জনের জন্য যায়, তাদের কাছে দুনিয়াবী শিক্ষার ততটা মূল্য থাকে না৷ মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা মূলত কোরআন হাদিসের উপর শিক্ষা গ্রহণ করে থাকে আর আমরা জানি কোরআন হলো বিজ্ঞানময়৷ যারা কুরআনের জ্ঞান অর্জন করে তাদের মাঝে বিজ্ঞান সম্পর্কে অবশ্যই জ্ঞান রয়েছে কম বেশি৷ ''

আর পাঠক হুমায়ূন কবির সুমন লিখেছেন, আলিয়ার সাথে কওমিকে গুলিয়ে ফেলা ভুল মানলাম কিন্তু স্কুল, কলেজের সাথে বৈষম্যের শিকার কেন আলিয়া?

সংকলন: নুরুননাহার সাত্তার

সম্পাদনা: আশীষ চক্রবর্ত্তী