শিশুধর্ষণের শাস্তি ফাঁসিই হওয়া উচিত | পাঠক ভাবনা | DW | 25.04.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

পাঠক ভাবনা

শিশুধর্ষণের শাস্তি ফাঁসিই হওয়া উচিত

১২ বছরের কম বয়সি শিশুদের ধর্ষণ করা হলে অপরাধীর ফাঁসি হবে – এমন এক অর্ডিন্যান্স জারি করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার৷ অপরাধীর ফাঁসির পক্ষে-বিপক্ষে মতামত তুলে ধরেছেন ডয়চে ভেলের ফেসবুক পাতায় কয়েকজন পাঠক৷

কোরআনের বিধানই এর একমাত্র সমাধান৷ অর্থাৎ অপরাধী  অবিবাহিত হলে জনসম্মুখে ১০০ বেত্রাঘাত ও দেশান্তর করা হবে৷ আর বিবাহিত হলে তাকে জনসম্মুখে হত্যা করা হবে৷' শিশু ধর্ষণ অপরাধীর শান্তি সম্পর্কে এই মন্তব্য পাঠক আবদুর রহমান আবু তালেবের৷

ফজলুর রহমান লিখেছেন, ‘‘এটা এমন অপরাধ যার সাথে মানুষের বিবেক জড়িত৷ আর কেউ র কথা ভেবে অপরাধ করে বলে আমার মনে হয় না৷ সবচাইতে কার্যকর বিষয় হল মানসিকতা পরিবর্তনের ব্যাপারটা৷তবে অবশ্যই এরকম অপরাধের শাস্তি কঠোর হওয়া উচিত৷''

শিশু ধর্ষণ অপরাধীর শান্তি হিসেবে জনসম্মুখে ধর্ষকের শিরোশ্ছেদ করতে হবে বলে মনে করেন ডয়চে ভেলের পাঠক জাহিদ জামান৷ তবে পাঠক সবুর খান মনে করে এটা নাকি সম্ভব হবেনা৷

অন্যদিকে ডয়চে ভেলের ফেসবুক বন্ধু সাজ্জাদ হোসেন, মেহেদি হাসান, শাকিলা আহমেদ, লিটন দেবনাথ, শরীফুল ইসলাম, রায়হান শাহরিয়ার সকলেই অপরাধীর ফাঁসির পক্ষে মত দিয়েছেন৷

সংকলন: নুরুননাহার সাত্তার

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন