শান্ত, মুমিনুলের আলোকিত দিন | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 22.04.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

শান্ত, মুমিনুলের আলোকিত দিন

শান্ত ও মুমিনুলের অসাধারণ জুটিতে দল টানা দ্বিতীয় দিন দাপটে কাটানোর পর দিন শেষে আলোকস্বল্পতায় থমকে গেল বাংলাদেশের অগ্রগতি৷

শেষ সেশনে হালকা বৃষ্টির পর আকাশ  কালো মেঘে ঢেকে যায় ফলে পর্যাপ্ত আলো না থাকায় ২৫ ওভার আগেই শেষ হয় দিনের খেলা৷ স্টেডিয়ামে ফ্লাড লাইট থাকলেও তা ব্যবহার করা যাবে না! শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে পাল্লেকেলে টেস্টের দ্বিতীয় দিন শেষে প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের রান ৪ উইকেটে ৪৭৪৷

শান্ত আর মুমিনুলের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে প্রথম সেঞ্চুরির ইনিংসটি ১৬৩ রানে নিয়ে থামেন শান্ত৷দেশের বাইরে প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরিতে মুমিনুল করেন ১২৭ রান৷

ম্যাচের প্রথম দিনে শান্ত ও মুমিনুলের গড়া দেড়শ রানের জুটি দ্বিতীয় দিন রেকর্ড উচ্চতা স্পর্শ করে ৷ তৃতীয় উইকেটে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ ২৪২ রানের জুটি গড়েন এই দুজন ৷

সকালে ১২৬ রান নিয়ে দিন শুরু করেন শান্ত, ৬৪ রান নিয়ে মুমিনুল৷ তবে লঙ্কান পেসাররা দ্বিতীয় দিনে ছিলেন অনেকটা গোছানো৷ লাঞ্চের পরও দারুণ খেলে দুজনের জুটি ছাড়িয়ে যায় বাংলাদেশের আগের রেকর্ড ২৩৬ রানকে ছাড়িয়ে যায়৷

 ৮৫ ওভারের বেশি উইকেটে কাটানো এই জুটি শেষ পর্যন্ত থামে শান্তর বিদায়ে৷  লাহিরু কুমারার বলটি পিচ করে একটু থেমে আসে, শান্তর ড্রাইভে বল সরাসরি যায় বোলারের হাতে৷

৩৭৮ বলে ১৭ চার ও ১ ছক্কায় ১৬৩ রানে শেষ হয় শান্তর দারুণ অভিযান ৷ পরে মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে মুমিনুলের জুটিও জমে উঠলেও দীর্ঘ হয়নি ৷ অফ স্টাম্পের বাইরে ধনাঞ্জয়া ডি সিলভার ফ্লাইটেড বলে শরীরের একটু দূরে ড্রাইভ খেলেন মুমিনুল৷ একটু টার্ন করে ব্যাটের কানা ছুঁয়ে ক্যাচ যায় প্রথম স্লিপে ৷ 

৩০৪ বলে তার ১২৭ রানের ইনিংসে চার ১১টি ৷ টেস্ট ক্যারিয়ারে এই প্রথম ৩০০ বল তিনি খেলতে পারলেন ৷ মুশফিকুর রহিম ও লিটন দাসের জুটিতেও ৫০ রান হয় ৷

দিন শেষে মুশফিক অপরাজিত ১০৭ বলে ৪৩ রানে, লিটন ৩৯ বলে ২৫ রানে৷

সংক্ষিপ্তস্কোর:

বাংলাদেশ১মইনিংস: ১৫৫ ওভারে ৪৭৪/৪ (আগের দিন ৩০২/২) (শান্ত ১৬৩, মুমিনুল ১২৭, মুশফিক ৪৩*, লিটন ২৫*; লাকমল ৩১-১২-৭৪-০, বিশ্ব ২৮-৮-৭৫-২, কুমারা ২৮-৪-৮৮-১, ম্যাথিউস ৭-১-১৪-০, ধনাঞ্জয়া ২৭-১-১১২-১, হাসারাঙ্গা ৩৩-২-৯৪-০, করুনারত্নে ১-০-৫-০)।

এনএস/কেএম (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়