শরণার্থী ইস্যুতে এসপিডি-ম্যার্কেলের মতৈক্য | বিশ্ব | DW | 30.01.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি

শরণার্থী ইস্যুতে এসপিডি-ম্যার্কেলের মতৈক্য

মাসে নির্দিষ্ট সংখ্যক শরণার্থীদের পারিবারিক পুনর্মিলনের সুযোগ দেয়ার বিষয়ে অবশেষে একমত হয়েছে সিডিইউ ও এসপিডি৷ এতে করে মহাজোট গঠনে দর কষাকষির জায়গায় একটি বড় বাধা পার হলো খ্রিষ্টীয় গণতন্ত্রী ইউনিয়ন বা সিডিইউ৷

একই সঙ্গে মঙ্গলবার চতুর্থবার চ্যান্সেলর হবার পথ আরেকটু পরিষ্কার করে আনলেন দলটির নেতা আঙ্গেলা ম্যার্কেল৷ খ্রিষ্টীয় গণতন্ত্রী ও সামাজিক গণতন্ত্রী, অর্থাৎ সিডিইউ-এসপিডি মহাজোটের বর্তমান সরকার শরণার্থীদের খুবই ‘সীমিত শর্তে' পরিবারের সদস্যদের জার্মানিতে আনার সুযোগ দেয়৷ সে অবস্থান থেকে প্রাথমিক আলোচনায় সিদ্ধান্ত হয়েছিল যে, মাসে ১,০০০ জনকে পরিবারের সঙ্গে যুক্ত হবার সুযোগ দেয়া হবে৷ সেই সিদ্ধান্তই টিকে গেছে চূড়ান্ত পর্বের দর কষাকষিতে৷

তবে নতুন যে দিকটি এ আলোচনায় যুক্ত হয়েছে তা হলো, ‘বিশেষ ক্ষেত্রে' এই সিদ্ধান্তকে শিথিল করা হতে পারে৷ এর অর্থ, বিশেষ বিবেচনায় এর বাইরেও আবেদন নেয়া হবে৷

সিদ্ধান্তটিকে অবশ্য নিজেদের বিজয় বলেই তুলে ধরেছে সামাজিক গণতন্ত্রী দল এসপিডি৷ দলটির নেতা মার্টিন শুলৎস বলেন, প্রাথমিক আলোচনায় যে সিদ্ধান্ত হয়েছিল তার সঙ্গে বিশেষ ক্ষেত্র যুক্ত হওয়ায় আরো এক ধাপ এগিয়ে গেল তাঁর দল৷

এসপিডির সংসদীয় উপনেতা ইফা হ্যোগেল সাংবাদিকদের বলেন, মানবতার দিকটি বিবেচনা করে আবারো পারিবারিক পুনর্মিলনের সুযোগ দেয়া হচ্ছে, যা খুবই ইতিবাচক৷

তবে ইউনিয়ন শিবিরের রক্ষণশীল অংশটি বিশেষ বিবেচনার এই দাবিকে অস্বীকার করছে৷ তাই এ নিয়ে কিছুটা দ্বিধাও তৈরি হচ্ছে৷

জেডএ/ডিজি

জার্মানিতে কি তবে মহাজোট সরকারই গঠন হতে চলেছে? লিখুন নীচের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন