1. কন্টেন্টে যান
  2. মূল মেন্যুতে যান
  3. আরো ডয়চে ভেলে সাইটে যান
Deutschland Bergbau Zeche Prosper-Haniel in Bottrop
ছবি: picture-alliance/dpa/J. Stratenschulte

ল্যান্ডমাইন খুঁজে দিচ্ছে ধেড়ে ইঁদুর

গোবেল্ট/ভিনৎসেন/এসবি
১০ আগস্ট ২০১৫

যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশে মানুষের ক্ষতি করে চলে সর্বনাশা ল্যান্ডমাইন৷ অনেকে পঙ্গু হয়ে যায়, অনেকে প্রাণ হারায়৷ মাইন শনাক্ত করে সেগুলি দূর করা তাই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ৷ মোজাম্বিকে এই কাজে সাহায্য করছে পরিচিত এক প্রাণী৷

https://p.dw.com/p/1GCXx

১৯৯২ সালে মোজাম্বিকের গৃহযুদ্ধ শেষ হয়৷ কিন্তু আজও মানুষ ইচ্ছামতো সব জায়গায় যেতে পারেন না৷ কারণ মাটির নীচে লুকোনো ল্যান্ডমাইন৷ হাজার-হাজার মানুষ মাইন বিস্ফোরণের শিকার হয়েছেন৷ যেমন আরেন্টিন কোনিয়া৷

এখন এক স্পেশাল টিম মোজাম্বিকের মানুষের সাহায্যে এগিয়ে এসেছে৷ আফ্রিকায় ৭০ জন প্রশিক্ষকদের দলে রয়েছেন নিকো৷ তাঁরা ধেড়ে ইঁদুরদের মাইন খুঁজতে শেখান৷ আজ প্রশিক্ষণের দিন৷ নিকো প্রতিভাবান ইঁদুর ‘মিস মার্পেল'-কে শোঁকার ক্লাসে নিয়ে যাচ্ছেন৷ সে গত দুই বছরের প্রশিক্ষণে টিএনটি বিস্ফোরকের গন্ধ শনাক্ত করতে শিখেছে৷ সে জানে, গন্ধ শুঁকে মাটির নীচে লুকানো মাইন চিহ্নিত করতে পারলে সুস্বাদু পারিশ্রমিক পাওয়া যায়৷

ট্রেনিং সেশন-এর পর এবার সরকারি অভিযান৷ নিকো ও তাঁর সহকর্মীরা ধেড়ে ইঁদুরদের নিয়ে লুকোনো মাইন খুঁজতে বেরোতে চান৷ সুরক্ষার সরঞ্জাম সঙ্গে রাখতে হয়৷ সিসা দিয়ে তৈরি বর্ম মাইনের উড়ন্ত টুকরো ও পাথর থেকে রক্ষা করবে৷ টানটান উত্তেজনার পরিবেশ৷ আগেই প্রত্যেকটি পদক্ষেপের পরিকল্পনা করা হয়েছে এবং ধীরে ধীরে কাজ চলছে৷ এমনকি মিস মার্পেল-ও দুশ্চিন্তা টের পাচ্ছে৷ সে চিহ্নিত অংশে টহল দিচ্ছে৷ নিকো তার প্রতি কড়া নজর রাখছেন৷

Deutschland Förderturm Steinkohlebergbau
যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশে মানুষের ক্ষতি করে চলে সর্বনাশা ল্যান্ডমাইনছবি: picture-alliance/dpa/R. Weihrauch

মনে হচ্ছে মিস মার্পেল কিছু শনাক্ত করেছে৷ সে তার প্রথম মাইন খুঁজে পেয়েছে৷ জায়গাটা প্রথমে চিহ্নিত করা হচ্ছে, পরে মাইন নিষ্ক্রিয় করা হবে৷ তারপর খোঁড়াখুঁড়ির কাজ শুরু হবে৷ মিস মার্পেল তার পারিশ্রমিক পেয়ে খুশি৷ মাইন চিহ্নিত করা হয়েছে৷ খেয়াল রাখতে হবে, ডিমাইনার যাতে মাইনের উপরের অংশ ছুঁতে না পারে৷ মাত্র ৬ কিলোগ্রাম ওজনই বিস্ফোরণ ঘটানোর ক্ষমতা রাখে৷ অর্থাৎ ধেড়ে ইঁদুরদের বিপদের কোনো কারণ নেই৷

একবার মাইনের উপরের মাটি সরানোর পর বিস্ফোরক বিশেষজ্ঞরা কাজে নেমে পড়েন৷ বালুর বস্তা বসিয়ে বিস্ফোরণের জোর কমানো হয়৷ ১০০ গ্রাম বিস্ফোরকই এই মাইন ধ্বংসের জন্য যথেষ্ট৷

অভিযান সফল হয়েছে৷ মিস মার্পেল-এর শনাক্ত করা মাইন দূর করা গেছে৷ আগামী ৪ মাস ধরে নিকো ও তাঁর সহকর্মীরা ধেড়ে ইঁদুরদের সাহায্যে চিরুনি তল্লাশি চালাবেন৷ তারপর মানুষ শান্তিতে বসবাস করতে পারবে৷ মোজাম্বিকের মানুষ এই সাহায্যের যথেষ্ট কদর করেন৷ অবশেষে স্থানীয় মানুষের জীবনযাত্রা কিছুটা স্বাভাবিক হতে পারবে৷

আর মিস মার্পেল? সে ভালই কাজ করেছে৷ গ্রামের মানুষ তাকে নিজেদের ছোট্ট হিরো হিসেবে আদর-যত্ন করছে৷

স্কিপ নেক্সট সেকশন এই বিষয়ে আরো তথ্য

এই বিষয়ে আরো তথ্য

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

বাংলাদেশ ব্যাংকের বিএফআইইউ বলছে গত অর্থ বছরে(২০২১-২২) শতকরা ২০ থেকে ২০০ ভাগ অতিরিক্ত আমদানি মূল্য দেখিয়ে অর্থ পাচারের ঘটনা তারা শনাক্ত করেছে

বাণিজ্যের আড়ালে অর্থপাচার ঠেকানো নিয়ে শঙ্কা

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

প্রথম পাতায় যান