লোকসভায় অ্যাংলো ইন্ডিয়ান মনোনীত সাংসদ আর নয় | বিশ্ব | DW | 11.12.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ভারত

লোকসভায় অ্যাংলো ইন্ডিয়ান মনোনীত সাংসদ আর নয়

অ্যাংলো ইন্ডিয়ানদের মধ্য থেকে দুজনকে লোকসভায় মনোনীত সদস্য করা হবে৷ ভারতের সংবিধান তাদের এই সুবিধা দিয়েছিল৷ ক্ষমতায় এসে পুরনো অনেক আইন বাতিল করার মতো এই সুবিধাও বন্ধ করতে চাইছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷

অতীতের আরেকটা সিদ্ধান্ত বদলাতে চাইছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷ এতদিন ধরে ভারতের লোকসভায় এবং ১৩টি রাজ্যের বিধানসভায় অ্যাংলো ইন্ডিয়ান সম্প্রদায় থেকে এক বা একাধিক সাংসদ ও বিধায়ককে মনোনীত করা হত৷ এ বার সংবিধান সংশোধন করে তা বন্ধ করতে চাওয়া হয়েছে৷ এক্ষেত্রে একটা কৌশল নিয়েছে মোদী সরকার৷ মনোনীত সদস্য হিসেবে অ্যাংলো ইন্ডিয়ানদের লোকসভায় প্রবেশ বন্ধ করার ক্ষেত্রে বিরোধীরা যাতে আপত্তি করতে না পারে, তার জন্য সংবিধান সংশোধন বিলে দুটি বিষয় জুড়ে দেওয়া হয়েছে। এক, তফসিলি জাতি ও উপজাতি বা দলিত ও আদিবাসীদের সংরক্ষণের পরিমাণ আরও দশ বছর বাড়ানো হবে। এবং দুই, লোকসভায় অ্যাংলো ইন্ডিয়ানদের মনোনয়ন বাতিল হবে। যেহেতু সব দল চাইবে দলিত ও আদিবাসীদের সংরক্ষণের মেয়াদ বাড়ুক, তাই তাঁরা বিল পাস করাতে বাধা দেবে না৷ বাস্তবে ঘটেছেও তাই। লোকসভায় বিরোধীরা অ্যাংলো ইন্ডিয়ানদের এই সুবিধা শেষ করে দেওয়ার বিরোধিতা করলেও বিল পাসে আপত্তি জানায়নি৷

অ্যাংলো ইন্ডিয়ান সংগঠনগুলি অবশ্য সরকারের এই প্রয়াসের বিরোধিতা শুরু করেছে৷ অল ইন্ডিয়া অ্যাংলো ইন্ডিয়ান অ্যাসোসিয়েশন নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি লিখে জানিয়েছে,আম্বেডকরের নেতৃত্বে সংবিধানকাররা তাঁদের সম্প্রদায়ের দাবি মেনে নিয়েছিলেন৷ স্বাধীনতার পর বিভিন্ন ক্ষেত্রে এই সম্প্রদায়ের বিপুল অবদান রয়েছে। তাই তাদের প্রতি এই অন্যায় যেন না করা হয়৷ এই দাবি অবশ্য সবাই মেনে নিচ্ছেন না৷ রাজনৈতিক বিশ্লেষক সুগত হাজরা ডয়চে ভেলেকে জানিয়েছেন, ''স্বাধীনতার পর ওরা আলাদা সম্প্রদায় হিসাবে ছিল। না ব্রিটিশ, না ভারতীয়৷  তাই সে সময় তাঁদের এই সুবিধা দেওয়া হয়েছিল। এখন তা আর থাকার কোনও মানে হয় না৷ বিশেষ করে অ্যংলো ইন্ডিয়ানরা যখন অন্যদের সঙ্গে মিশে গিয়েছে, তখন বিশেষ ব্যবস্থা কেন? ঠিক সময়ে ঠিক ব্যবস্থা নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী''

সংবিধান সংশোধন বিল এ বার রাজ্যসভায় যাবে৷ সেখানে পাস হয়ে গেলে অ্যাংলো ইন্ডিয়ানরা তাঁদের সুবিধা হারাবেন৷ লোকসভা ও ১৩টি রাজ্য বিধানসভায় আর মনোনীত সদস্য হতে পারবেন না তাঁরা৷

বিজ্ঞাপন