লিবিয়ার মরুভূমিতে তৃষ্ণায় মৃত ২০ | বিশ্ব | DW | 30.06.2022

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

লিবিয়া

লিবিয়ার মরুভূমিতে তৃষ্ণায় মৃত ২০

খাওয়ার জল না পেয়ে লিবিয়ার মরুভূমিতে মৃত্যু হয়েছে ২০ জন অভিবাসীপ্রত্যাশীর। অন্যদিকে, ভূমধ্যসাগরে নৌকাডুবে নিখোঁজ ৩০ জন।

মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে লিবিয়ার মরুভূমিতে। চাদ সীমান্তের কাছে লিবিয়া প্রশাসনের উদ্ধারকারী দল মৃতদেহগুলি খুঁজে পেয়েছে। খুফরা শহর থেকে প্রায় ৩২০ কিলোমিটার দূরে মরুভূমির মাঝখানে একটি কালো পিক আপ ট্রাকের পাশে মৃতদেহগুলি ছড়িয়ে ছিল বলে প্রশাসন সূত্রে জানানো হয়েছে। ওই ট্রাকটি করেই অভিবাসনপ্রত্যাশীরা রওনা হয়েছিলেন বলে প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে।

চাদ থেকে ওই ট্রাকটি আসছিল বলে সন্দেহ। মরুভূমির মাঝখানে ট্রাকটি বিকল হয়ে যাওয়ায় অভিবাসনপ্রত্যাশীরা আটকে পড়েন বলে পুলিশের ধারণা। সামান্য খাবার জলটুকুও তাদের শেষ হয়ে গেছিল। জল না পেয়েই তাদের মৃত্যু হয় বলে জানানো হয়েছে।

প্রায় ১৪ দিন আগে ওই ব্যক্তিদের মৃত্যু হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। কারণ, তাদের মোবাইল থেকে শেষ কল করা হয়েছিল গত ১৩ জুন। সংবাদ সংস্থা রয়টার্সকে লিবিয়ার প্রশাসন জানিয়েছে, এক ট্রাক চালক রাস্তা হারিয়ে ওই পথে চলে গেছিলেন। তিনিই প্রথম দেহগুলি দেখতে পেয়ে পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করেন।

ভূমধ্যসাগরে নিখোঁজ ৩০

এদিকে আরেকটি রবারের নৌকা ভূমধ্যসাগরে নিখোঁজ হয়েছে বলে জানা গেছে। তাতে অন্তত ৩০ জন অভিবাসীপ্রত্যাশী ছিলেন বলে মনে করা হচ্ছে। এই ঘটনাটিও লিবিয়ার জলসীমান্তে ঘটেছে। প্রশাসন জানিয়েছে, নিখোঁজ ব্যক্তিদের খোঁজে কোস্ট গার্ডের জাহাজ পাঠানো হয়েছে। কয়েকজনকে উদ্ধার করা গেলেও এখনো অনেকে নিখোঁজ। এর মধ্যে পাঁচজন নারী এবং আটটি শিশু আছে।

এসজি/জিএইচ (রয়টার্স)

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও