লতিফ সিদ্দিকীর পতন | বিশ্ব | DW | 02.10.2014
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

লতিফ সিদ্দিকীর পতন

হজ নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করায় মন্ত্রিত্ব হারানোর সঙ্গে সঙ্গে দল থেকেও বাদ পড়ছেন আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী৷ লন্ডন থেকে দেশে ফিরে সিলেটের এম এ জি ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এ কথা জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা৷

Abdul Latif Siddiqui

লতিফ সিদ্দিকী (ফাইল ফটো)

বৃহস্পতিবার বিমানবন্দরের ভিআইপি লাউঞ্জে উপস্থিত আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ প্রধানমন্ত্রীকে উদ্ধৃত করে জানান,‘‘নেত্রী এক ঘন্টার যাত্রা বিরতির সময় শুরুতেই লতিফ সিদ্দিকীর প্রসঙ্গ তোলেন৷ তিনি বলেন, আমি, আমার পরিবারের অনেকেই একাধিকবার হজে গিয়েছি৷ আমি অন্যের হয়েও একাধিকবার হজ পালন করেছি৷ আমি আমার বাবা-মা, দাদা-দাদি, নানা-নানির হয়েও হজ পালন করেছি৷ তাঁর (লতিফ) কথায় আমি খুবই মর্মাহত৷ আপনারা তো ইতিমধ্যেই জেনেছেন, তাঁকে মন্ত্রিসভা থেকে অব্যাহতির নির্দেশ দিয়েছি৷ দলেও রাখব না৷''

এর আগে বুধবারই আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব-উল আলম হানিফ ডয়চে ভেলেকে জানিয়েছিলেন, লতিফ সিদ্দিকীকে মন্ত্রিসভা থেকে অব্যাহতি দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে৷ তাঁকে দল থেকেও বাদ দেয়া হবে৷

ডাক টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী লতিফ সিদ্দিকী প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হিসেবে ১০ দিন আগে যুক্তরাষ্ট্রে যান৷ রবিবার নিউ ইয়র্কের এক অনুষ্ঠানে হজ ও তাবলিগ জামাত নিয়ে তিনি বক্তব্য দেন৷ তাঁর বক্তব্যের ভিডিও ছড়িয়ে পড়লে দেশে- বিদেশে মুসলামানদের মধ্যে তীব্র প্রতিক্রdয়ার সৃষ্টি হয়৷

Sheikh Hasina

‘তাঁকে (লতিফ) মন্ত্রিসভা থেকে অব্যাহতির নির্দেশ দিয়েছি৷ দলেও রাখব না৷'

নিউইয়র্কের সেই সভায় লতিফ সিদ্দিকী বলেন,‘‘হজে যে কত ম্যানপাওয়ার নষ্ট হয়৷ এই হজের জন্য ২০ লাখ লোক আজ সৌদি আরবে গেছেন৷ এদের কোনো কাজ নাই৷ কোনো প্রডাকশন নাই, শুধু ডিডাকশন দিচ্ছে৷ শুধু খাচ্ছে আর দেশের টাকা বিদেশে দিয়ে আসছে৷''

অনুষ্ঠানে তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে ও তথ্য-প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়কে নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে বলেন,‘‘কথায় কথায় আপনারা জয়কে টানেন কেন? জয় ভাই কে?জয় বাংলাদেশ সরকারের কেউ নয়৷ তিনি কোনো সিদ্ধান্ত নেয়ারও কেউ নন৷''

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৬৯তম অধিবেশনে যোগ দিতে গত ২১শে সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্র যান প্রধানমন্ত্রী৷ অধিবেশন শেষে সোমবার নিউইয়র্ক থেকে লন্ডনে যান৷ দুই দিন সেখানে ছিলেন৷

লতিফ সিদ্দিকীও প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রে যান৷ বর্তমানে তিনি মেক্সিকোতে৷ সেখানকার গুয়াদালাহারা শহরে তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক বিশ্ব সম্মেলনে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে ‘গ্লোবাল আইসিটি এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড' গ্রহণ করার কথা ছিল তাঁর৷

Abdul Latif Siddiqui

লতিফ সিদ্দিকী আপাতত দেশে ফিরছেন না

কিন্তু অনুষ্ঠান শুরুর কয়েক ঘন্টা আগেই তাঁকে অব্যাহতির কথা জানিয়ে সেখানে না যেতে বলা হয়৷ বুধবার প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ ওই পুরস্কার গ্রহণ করেন৷ মেক্সিকো থেকে তার ক্যানাডা যাওয়ার কথা৷ জানা গেছে, লতিফ সিদ্দিকী আপাতত দেশে ফিরছেন না৷ তাঁর ঘনিষ্ঠরা তাঁকে দেশে না ফেরার পরামর্শ দিয়েছেন৷ কারণ, দেশে ফিরলে তাঁকে জেলে যেতে হতে পারে৷ হজ নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করায় বুধবার বাংলাদেশের কয়েকটি আদালতে লতিফ সিদ্দিকীর বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে৷ পাঁচটি মামলায় তাঁকে তলব করে সমনও জারি করেছে আদালত৷

হেফাজতে ইসলামসহ ইসলামী দলগুলো তাঁকে বরখাসস্ত করে গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছে৷ জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এবং প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত এইচ এম এরশাদও মন্ত্রী লতিফ সিদ্দিকীর গ্রেপ্তার দাবি করেছেন৷

প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন

শুক্রবার বিকেল চারটায় গণভবনে সংবাদ সম্মেলন ডেকেছেন প্রধানমন্ত্রীশেখ হাসিনা৷ জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৬৯তম অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর যোগদান নিয়ে এই সংবাদ সম্মেলন ডাকা হয়েছে৷ এই সংবাদ সম্মেলনে অব্যাহতিপ্রাপ্ত মন্ত্রী লতিফ সিদ্দিকীকে নিয়ে তিনি কথা বলবেন বলে জানা গেছে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন