রোহিঙ্গাদের অবস্থা দেখতে মিয়ানমারে কোফি আনান | বিশ্ব | DW | 30.11.2016
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

রোহিঙ্গা সংকট

রোহিঙ্গাদের অবস্থা দেখতে মিয়ানমারে কোফি আনান

মিয়ানমারের রোহিঙ্গারা মানবতাবিরোধী অপরাধের শিকার হচ্ছে বলে দাবি করেছে জাতিসংঘের মানবাধিকার সংস্থা৷ মিয়ানমারে পৌঁছেছেন সাবেক জাতিসংঘ মহাসচিব কোফি আনান৷ রাখাইন রাজ্য সফর করার কথা রয়েছে তাঁর৷

কোফি আনান এক সপ্তাহ ধরে মিয়ানমারে অবস্থান করে সেখানকার পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করবেন৷ রাখাইনে সংখ্যালঘু মুসলিম রোহিঙ্গাদের উপর মিয়ানমারের সেনাবাহিনী অকথ্য নির্যাতন চালিয়েছে বলে বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে জানা গেছে৷ নভেম্বরে শত শত রোহিঙ্গা পাড়ি জমিয়েছেন বাংলাদেশে৷

প্রতিবেশী অন্যান্য দেশেও আশ্রয় নেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে তারা৷ সেনাবাহিনী হত্যা, নির্যাতন, গণধর্ষণ চালাচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে৷ হিউম্যান রাইটস ওয়াচ জানিয়েছে, অন্তত ৩০ হাজার রোহিঙ্গা এলাকা ছেড়ে অন্যত্র চলে গেছে প্রাণ ভয়ে৷ 

তবে এখনো মিয়ানমার তাদের বিরুদ্ধে আনা এসব অভিযোগ অস্বীকার করছে৷ মিয়ামনার সরকার দাবি করেছে, রোহিঙ্গাদের নয়, গতমাসে পুলিশ চেকপোস্টে হামলাকারী ‘সন্ত্রাসীদের' ধরতে অভিযান চালাচ্ছে সেনাবাহিনী৷ তবে জাতিসংঘ মনে করে, মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের সঙ্গে যা হচ্ছে তা একটি জাতিকে নির্মূল করার প্রয়াসের সঙ্গে তুলনীয়৷

এদিকে, রোহিঙ্গাদের উপর নির্যাতনের বিভিন্ন ও প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম৷ রাখাইনে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম কর্মী ও অধিকার কর্মীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে৷ মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে ইউএন ওএইচসিএইচআর বলেছে, মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের উপর যে নির্যাতন চালাচ্ছে তা মানবতাবিরোধী অপরাধের শামিল৷ ২০১২ সালে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার পর থেকে এ পর্যন্ত মিয়ানমার থেকে ১ লাখ ২০ হাজার রোহিঙ্গা মিয়ানমার ছেড়েছে৷

সহিংসতা থেকে বাঁচতে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের সীমান্ত থেকে আবার সেদেশে ফেরত পাঠিয়ে দিচ্ছে বাংলাদেশ৷ রোহিঙ্গাদের বহনকারী কয়েকটি নৌকাকে বাংলাদেশের সীমান্তে প্রবেশ করতে দেয়নি সীমান্তরক্ষীরা৷

এপিবি/এসিবি (এপি, এএফপি, রয়টার্স)

প্রিয় পাঠক, আপনি কিছু বলতে চাইলে নীচে মন্তব্যের ঘরে লিখুন৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন