রোমে আবারও কারফিউ | বিশ্ব | DW | 22.10.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

করোনা মহামারি

রোমে আবারও কারফিউ

ইটালির রাজধানী রোমে কারফিউ জারি করা হয়েছে৷ স্পেনে সংক্রমণের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১০ লাখ৷ ইউরোপসহ অন্যান্য দেশেও দ্রুত বাড়ছে সংক্রমণের হার, আরো কড়াকড়ি হচ্ছে বিধিনিয়ম৷

রোমসহ পুরো লাজিও অঞ্চলে শুক্রবার থেকে কারফিউ জারি করা হয়েছে৷ রাতে পাঁচ ঘণ্টা কারফিউ থাকবে এবং এই বিধিনিয়ম ৩০দিন অব্যাহত থাকবে৷ চাকরি বা অন্যান্য জরুরি কাজে লাজিওর বাসিন্দাদের মধ্য রাত থেকে ভোর পাঁচটা পর্যন্ত সকলের জন্য বাড়ির বাইরে যাওয়া নিষিদ্ধ৷ গভর্নর নিকোলা জিঙ্গারেটি যিনি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন, বুধবার এই অর্ডিন্যান্স স্বাক্ষর করেন৷ ইতালির প্রধানমন্ত্রী জুসেপে কন্টে নাগরিকদের চলাফেরা সীমাবদ্ধ রাখার এবং অপ্রয়োজনীয় আনুষ্ঠানিকতা থেকে বিরত থাকার অনুরোধ করেছেন৷

ইউরোপ এবং অন্যান্য দেশের করোনার সর্বশেষ কিছু আপডেট:

জার্মানি: জার্মানির রোগ নিয়ন্ত্রণ সংস্থা রবার্ট কখ ইনস্টিটিউটের হিসেব অনুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় ১১ হাজার দুশোরও বেশি নতুন শনাক্তের সংখ্যা রেকর্ড করা হয়েছে৷ মহামারি শুরুর পরে এটাই প্রথম দৈনিক সর্বোচ্চ সংখ্যা৷

স্পেন: পশ্চিম ইউরোপের মধ্যে স্পেন প্রথম দেশ যেখানে সংক্রমণের সংখ্যা এক মিলিয়ন ছাড়িয়ে গেছে৷ স্পেনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত ২৪ ঘন্টায় নতুন সংক্রমণের সংখ্যা ১৬ হাজার ৭৯৩জন৷ স্পেনে ৩১ জানুয়ারির পর মোট এক লাখ পাঁচ হাজার ২৯৫ করোনা রোগী শনাক্ত করা হয়েছে৷

ফ্রান্স: জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান অনুযায়ী শুক্রবার ভোর পর্যন্ত দেশটির করোনা শনাক্তের সংখ্যা ১০ লাখ ছিলো ৷ সে হিসেব পর্যন্ত যে সাতটি দেশ করোনায় মাইলফলক হিসেবে রয়েছে তাদের মধ্যে প্রথম চারটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, ব্রাজিল এবং ভারত৷

ইংল্যান্ডে নতুন শনাক্তের সংখ্যা দাড়িয়েছে ২৭ হাজার৷ এবং ক্ষতিগ্রস্থ এলাকাগুলোতে আবার নতুন করে বিধিনিষেধ আরো কড়কড়ির ঘোষণা করা হয়েছে বুধবার৷

পোল্যান্ড: রাজধানী ওয়ারশর এখন রেড জোন হিসেবে পরিচিত৷ দেশটিতে বড় সমাবেশ, পারিবারিক মোলামেশা সীমিত রাখা এবং জিম, সুইমিংপুল, দোকানপাট খোলায় আরো কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে৷

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র: হাসপাতালে কোভিড -১৯ এ আক্রান্ত রোগীদের সংখ্যা শতকরা ৩৬ ভাগ বেড়েছে৷ অক্টোবর মাসে ১৬টি রাজ্যের হিসেব অনুযায়ী মহামারির সময়ে হাসপাতালে ভর্তির দৈনিক সংখ্যা সর্বোচ্চ মাত্রায় পৌঁছেছে৷

ভারত: স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের হিসেব মতে সংক্রমণের সংখ্যা ৫৫ হাজার ৮৩৯ বেড়ে দাঁড়িয়েছে সাত দশমিত ৭১ মিলিয়ন-এ৷ আর গত ২৪ ঘন্টায় করোনা ভাইরাসে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়েছে ৭০২ জন৷ ফলে বর্তমান সংখ্যা দাঁড়িয়েছে এক লাখ ১৬ হাজার ৬১৬ তে৷ করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পরে ভারত দ্বিতীয় বৃহত্তম৷ এ পর্যন্ত ভারতে মোট শনাক্তের সংখ্যা ৮৩ লাখ৷

এনএস/কেএম (এএফপি,এপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন