1. কন্টেন্টে যান
  2. মূল মেন্যুতে যান
  3. আরো ডয়চে ভেলে সাইটে যান
আফগানিস্তানে নারীদের অবস্থার কথা ভাবলে নির্যাতন, অধিকারের অভাবের মতো সমস্যার কথা মনে আসতে পারে৷ অথচ আফগান মেয়েদের রোবোটিক্স টিম ল্যান্ডমাইন ও অবিস্ফোরিত বোমার বিপদ কমানোর উদ্যোগ নিচ্ছে৷
করোনা মহামারির শুরুর দিকে আফগান রোবোটিক্স টিমের মেয়েরা একটি ভেন্টিলেটর তৈরি করে৷ছবি: Getty Images/AFP/A. I Naderi

রোবটের সাহায্যে মাইন দূর করছে আফগান মেয়েরা

১৯ জুলাই ২০২১

আফগানিস্তানে নারীদের অবস্থার কথা ভাবলে নির্যাতন, অধিকারের অভাবের মতো সমস্যার কথা মনে আসতে পারে৷ অথচ আফগান মেয়েদের রোবোটিক্স টিম ল্যান্ডমাইন ও অবিস্ফোরিত বোমার বিপদ কমানোর উদ্যোগ নিচ্ছে৷

https://www.dw.com/bn/%E0%A6%B0%E0%A7%8B%E0%A6%AC%E0%A6%9F%E0%A7%87%E0%A6%B0-%E0%A6%B8%E0%A6%BE%E0%A6%B9%E0%A6%BE%E0%A6%AF%E0%A7%8D%E0%A6%AF%E0%A7%87-%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%87%E0%A6%A8-%E0%A6%A6%E0%A7%82%E0%A6%B0-%E0%A6%95%E0%A6%B0%E0%A6%9B%E0%A7%87-%E0%A6%86%E0%A6%AB%E0%A6%97%E0%A6%BE%E0%A6%A8-%E0%A6%AE%E0%A7%87%E0%A7%9F%E0%A7%87%E0%A6%B0%E0%A6%BE/a-58314547

আফগান রোবোটিক্স টিমের মেয়েরা নতুন এক প্রকল্প নিয়ে কাজ করছে৷ মানুষের জীবন বাঁচানোই সেই পরিকল্পনার লক্ষ্য৷

যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটিতে ল্যান্ডমাইন ও অবিস্ফোরিত বোমার সন্ধান করতে এই মেয়েরা রোবট তৈরি করে৷ রিমোট কনট্রোলের মাধ্যমে মোবাইল রোবট সেই বিপদ দূর করতে পারে৷ তবে এই উদ্যোগ সফল করতে যথেষ্ট ব্যবস্থাপনা ও অর্থ নেই৷ আফগানিস্তান রোবোটিক্স টিমের ক্যাপ্টেন সোমাইয়ে ফারুকি বলেন, ‘‘ডিমাইনিং ও ভেন্টিলেটর রোবটের মতো আমরা যন্ত্রমানব তৈরি করে সমাজের সমস্যা সমাধান করতে চাই৷ সে কারণে আমরা সরকার ও আন্তর্জাতিক সমাজের সাহায্য চাইছি৷ বড় আকারে উৎপাদন করে আমাদের সমাজের কিছু সমস্যা সমাধান করতে চাইছি৷

করোনা মহামারির শুরুর দিকে আফগান রোবোটিক্স টিমের মেয়েরা একটি ভেন্টিলেটর তৈরি করে৷ এই মূহূর্তে তাদের মাইন-নাশক রোবট পরীক্ষার পর্যায়ে পৌঁছে গেছে৷ কিন্তু সেই রোবট কীভাবে কাজ করে এবং সেটির দায়িত্বই বা কী? আফগানিস্তান রোবোটিক্স টিমের সদস্য

আইদা হাইদারপুর বলেন, ‘‘একই সময়ে দুটি ডিভাইস কাজ করে৷ একটি হলো ড্রোন, অন্যটি মাইন ডিটেক্টর বা মাইনসুইপার ডিভাইস৷ ড্রোন সবার আগে আকাশে উড়ে সম্ভাব্য মাইন কবলিত এলাকা চিহ্নিত করে ও তথ্য সংগ্রহ করে৷ তারপর ডিমাইনিং ডিভাইস মাইন চিহ্নিত করে মানুষকে সেগুলি নিষ্ক্রিয় করতে সাহায্য করে৷''

এই উদ্যোগ সফল হলে রোবট যুদ্ধে ব্যবহৃত ল্যান্ডমাইন ও অবিস্ফোরিত বোমা ভরা দেশটিতে বিপদ এড়াতে ব্যস্ত হয়ে পড়বে৷ অন্য কোনো দেশে ল্যান্ডমাইনের কারণে হতাহতের সংখ্যা এত বেশি নয়৷

ল্যান্ডমাইন অনুসন্ধানে আফগান মেয়েদের রোবট

বেশ কয়েকটি দেশি-বিদেশি এনজিও দেশটিকে মাইন-মুক্ত করার চেষ্টা চালাচ্ছে৷ কিন্তু সীমিত সুযোগের কারণে সাফল্য আসছে না৷ আফগান মেয়েদের তৈরি রোবট মাইন-মুক্ত করার কাজে বড় সহায়তা করতে পারে৷ ডিমাইনার হিসেবে আলি আক বলেন, ‘‘এটা ভালো খবর৷ এই সব রোবটের প্রোগ্রাম ডিমাইনিং সংগঠনগুলির প্রয়োজন অনুযায়ী হওয়া দরকার, কারণ মূল সাইটে হাতেনাতে রোবটের পরীক্ষা হওয়া উচিত৷ ফল ভালো হলে সেটা হবে বড় সাহায্য৷ আমরা উচ্চ মূল্যে বিদেশ থেকে ডিটেক্টর কিনি৷ দেশের মধ্যে উৎপাদন করতে পারলে খুব ভালো হবে৷''

ডিমাইনিং অত্যন্ত বিপজ্জনক কাজ৷ বিশেষ করে যে দেশে যুদ্ধ এখনো চলছে এবং চারিদিকে অবিস্ফোরিত বোমা ছড়িয়ে রয়েছে, সেখানে ঝুঁকি অত্যন্ত বেশি৷

গত বছর নভেম্বর মাসে প্রকাশিত জাতিসংঘের এক রিপোর্ট অনুযায়ী শুধু ২০১৯ সালেই ১,৫৬৮ জনেরও বেশি আফগান ল্যান্ডমাইন বিস্ফোরণে নিহত হয়েছেন৷ আহতের সংখ্যা আরও বেশি৷ আহমাদ মুখতার করিমি নিজে মাইন বিস্ফোরণের শিকার হয়েছিলেন৷ স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘‘দুর্ভাগ্যবশত আমাদের ফুটবল খেলার জায়গায় একটি মাইন পোঁতা ছিল৷ সেটি বিস্ফোরণের ফলে আমার ডান পা কেটে বাদ দিতে হয়েছে৷ রোবোটিক্স টিমের বোনেদের প্রতি আমার পরামর্শ হলো, ডিমাইনিং রোবট কর্মসূচির কাজ যত দ্রুত সম্ভব শেষ করে ডিমাইনিং প্রতিষ্ঠানগুলির হাতে সেগুলি তুলে দেওয়া হোক৷''

বিশ্বের শীর্ষ নয়টি দেশের তালিকায় আফগানিস্তানে ল্যান্ডমাইন ও বিস্ফোরকের বিপদ সবচেয়ে বেশি৷ অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে অবিস্ফোরিত বোমা ও মাইন শনাক্ত করতে হয় এবং সাবধানতা অবলম্বন করে সেগুলি সরিয়ে ফেলতে অথবা ধ্বংস করতে হয়৷ ইন অ্যাকশন সমন্বয়কারী আব্দুল জলিল সাদগেহ বলেন, ‘‘দুর্ভাগ্যবশত অত্যন্ত বিপজ্জনক কাজ হওয়ায় কিছু ভুল হয়৷ ভুলের কারণে আমাদের সহকর্মীরা মাইনের শিকার হয়েছেন৷ দেশের পশ্চিমে চারটি প্রদেশে সাম্প্রতিক বছরগুলিতে ১২১ জন ডিমাইনিং কর্মী মাইনের শিকার হয়েছেন৷ ৩০ জন নিহত ও ৯১ জন আহত হয়েছেন৷

এই মেয়েরা তাদের রোবট কাজে লাগানোর চেষ্টা করছে৷ যতটা সম্ভব এলাকা থেকে আফগানদের অদৃশ্য শত্রু দূর করা এবং ডিমাইনিং কর্মসূচির আওতায় মানুষের মৃত্যুর হার কমানোর চেষ্টা তো চলছেই৷

মহম্মদ রেজা শিরমোহাম্মাদি/এসবি

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

Bangladesch |  Chaos am Flughafen Dhaka

বিমানবন্দরে চুরির ঘটনা থামছে না কেন?

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

প্রথম পাতায় যান