রোগীদের সাহায্য করতে হাসপাতালে রোবট | অন্বেষণ | DW | 01.03.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

অন্বেষণ

রোগীদের সাহায্য করতে হাসপাতালে রোবট

হাসপাতালে রোগীদের সেবার ক্ষেত্রে রোবট কাজে লাগালে কেমন হয়? গবেষকরা নার্সদের কাজের চাপ কমাতে এমন সব রোবট পরীক্ষা করছেন৷ তাঁদের দাবি, এর ফলে রোগী ও নার্স  দুই পক্ষেরই সুবিধা হবে৷

‘পেপার' নামের জাপানি রোবট সরাসরি রোগীর কাছে জানতে চায়, ‘‘আপনার এমআরটি পরীক্ষা হয়েছে কি?'' প্রশ্নপত্র পূরণ করার প্রয়োজন নেই, সে যা জানার তা জেনে নেবে৷ হাসপাতালের রোগীরা কতটা খোলা মনে আধুনিক প্রযুক্তি গ্রহণ করতে পারেন, এমআরটি পরীক্ষার আগে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷

জেরিয়াট্রিক্স বা বার্ধক্যবিদ্যা বিভাগে পারো নামের সিল মাছের মতো দেখতে রোবট কাজ করছে৷ ডিমেনশিয়া বা স্মৃতিভ্রংশের রোগীরা তার গায়ে হাত বুলিয়ে শান্ত হতে পারেন৷ ফলে নার্সদের কাজ কিছুটা কমে৷ তাঁদেরই একজন বেনইয়ামিন ফ্রিডেল৷ তিনি বলেন, ‘‘মানুষের সঙ্গে অথবা সামাজিক স্তরে যোগাযোগ আমাদের পেশায় অত্যন্ত জরুরি৷ তা কিন্তু আগের মতোই থাকছে৷ পারো-র কাজ হচ্ছে রোগীদের শান্ত করে আমাদের সেই কাজে সাহায্য করা৷''

রোগীদের দেখাশোনা সংক্রান্ত গবেষণা দলের প্রধান পাট্রিক ইয়ান হাসপাতালে আরও রোবট কাজে লাগাতে চান৷ তাঁর মতে, এর ফলে নার্সদের প্রয়োজন মোটেই ফুরিয়ে যাবে না, বরং তাঁদের সুবিধা হবে৷ হালে বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের পাট্রিক ইয়ান বলেন, ‘‘কাজের চাপ কমার ফলে মানুষ আরও বেশি সময় ধরে পেশায় থাকতে পারে৷ রোবট সেই সম্ভাবনা উজ্জ্বল করে তুলছে৷ তাছাড়া তরুণ প্রজন্মও এই পেশার প্রতি আকৃষ্ট হতে পারে৷''

জার্মান এয়ারোস্পেস সেন্টার ডিএলআর-ও ভবিষ্যতে রোগীদের দেখাশোনার বিষয়ে গবেষণা করছে৷ যেমন ‘এডান' নামের রোবটিক হাতসহ এক হুইলচেয়ার, যা দূর থেকে নিয়ন্ত্রণ করা যায়৷ হাঁটাচলা করতে পারেন না, এমন মানুষকে কার্যত স্বাধীন করে তুলবে সেই রোবট৷ ইলেকট্রোডের কল্যাণে সামান্য পেশি সঞ্চালনের মাধ্যমেও সেটি চালানো যাবে৷ এখনো গবেষণার পর্যায়ে থাকলেও জার্মানির প্রায় ৬০ শতাংশ মানুষ রোবটের সাহায্য নিতে প্রস্তুত৷ ডিএলআর-এর বিজ্ঞানী আনেটে হাগেনগ্রুবার বলেন, ‘‘আমরা নার্সকে সরিয়ে তার জায়গায় রোবট আনতে চাই না, বরং নার্সকে তাঁর নিয়মিত কাজে সাহায্য করতে চাই৷ যেমন রোবট রোগীদের নিয়ে আসা বা ফিরিয়ে আনার কাজ করলে নার্স সেবার কাজে বেশি সময় দিতে পারবেন৷''

জার্মানির হালে শহরে ভবিষ্যতের এই স্বপ্ন এখনই হাতেনাতে পরীক্ষা করা হচ্ছে৷ অপেক্ষাকৃত সহজ রোবট কাজেলাগিয়েও নার্সদের অতিরিক্ত কাজের চাপ কিছুটা কমানো সম্ভব হচ্ছে৷

মাল্টে রোভেয়ার-কালমান/এসবি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

বিজ্ঞাপন