রোনাল্ডোর হ্যাটট্রিক, স্পেনের কাছে হারেনি পর্তুগাল | বিশ্ব | DW | 15.06.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্বকাপ ফুটবল

রোনাল্ডোর হ্যাটট্রিক, স্পেনের কাছে হারেনি পর্তুগাল

চলতি বিশ্বকাপের প্রথম উত্তেজনায় ঠাসা ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হলো শুক্রবার৷ একদিকে টপ ফর্মে থাকা রোনাল্ডোর পর্তুগাল, অন্যদিকে ২০১০ বিশ্বকাপ জয়ী স্পেন৷ রোনাল্ডোর হ্যাটট্রিক সত্ত্বেও স্পেনের বিরুদ্ধে ড্র করেছে তাঁর দল৷

স্পেনের বিপক্ষে শুরুতেই এগিয়ে গিয়েছিল পর্তুগাল৷ ডিবক্সের মধ্যে ফাউলের শিকার হন ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডো, ফলে পেনাল্টি শটের সুযোগ পেয়ে যায় তাঁর দল৷ খেলার চতুর্থ মিনিটে রোনাল্ডো নিজেই সেই শট নেন৷ বলাই বাহুল্য, নিজের চতুর্থ বিশ্বকাপে প্রথম গোলটি করতে একটুও ভুল করেননি তিনি৷ এই গোলের মাধ্যমে চারটি বিশ্বকাপে গোল করা চতুর্থ খেলোয়াড় হলেন তিনি৷ 

প্রথমে গোল খেলেও দমে যাবার পাত্র নয় স্প্যানিশরা৷ ২০১০ সালে ‘টিকিটাকা' খেলা দিয়ে বিশ্বকাপ জয়ী দলটির দিয়াগো কস্তা খেলার ২৪ মিনিটে সমতা ফেরান৷ ব্রাজিলে জন্ম নেয়া এই স্প্যানিশ প্রতিপক্ষের রক্ষণভাগকে কাটিয়ে নিখুঁত নৈপুণ্যে বল জালে জড়ান৷ 

WM 2018 | Russland | Portugal – Spanien

স্পেনের পক্ষে দু’গোল করেন দিয়াগো কস্তা

এরপর অবশ্য গোলের আরো সম্ভাবনা তৈরি হয়েছিল, তবে সেগুলো চূড়ান্ত সাফল্য পায়নি৷ খেলার ৪৪ মিনিটে রোনাল্ডোর এক সাদামাটা শট স্পেনের জালে জড়ায়৷ মূলত দলটির গোলরক্ষক দাভিদ দে হেয়ার শটটি ফেরাতে গিয়ে ভুল করেন৷ ফলে তাঁর হাত ফসকে জালে জড়ায় পাঁচবার ফিফার বর্ষসেরা ফুটবলার রোনাল্ডোর শটটি

খেলার দ্বিতীয়ার্ধের শুরুটা কিছুটা মন্থর হলেও উত্তেজনা ফিরতে খুব বেশি সময় লাগেনি৷ খেলার ৫৫ মিনিটে নিজের দ্বিতীয় গোলটি করে সমতা ফেরান দিয়াগো কস্তা৷ কস্তার পরপরই আবারো আঘাত হানে স্পেন৷ এবার নাচো ডি-বক্সের বাইরে থেকে কোনাকুনি শটে বল জালে জড়ান৷

তবে কাহিনি এখানেই শেষ নয়৷ তাঁকে কেন বিশ্বসেরা ফুটবলার বলা হয় সেটা আবারো প্রমাণ করলেন রোনাল্ডো৷ ডি-বক্সের একটু বাইরে থেকে ফ্রি-কিকের সুযোগ পায় তাঁর দল৷ আর অসাধারণ এক শটে সেই সুযোগ কাজে লাগান রোনাল্ডো, খেলার ৮৮ মিনিটে৷ ফলে ম্যাচ শেষ হয় ৩-৩ গোলে৷

উল্লেখ্য, এখন অবধি বিশ্বকাপে পর্তুগালের সবচেয়ে বড় অর্জন তৃতীয় স্থান অর্জন, তাও সেই ১৯৬৬ সালে৷ এরপর ২০০৬ সালে চতুর্থ স্থান অর্জন করেছিল দলটি৷ তবে কাপ জয় কোনদিন সম্ভব হয়নি৷ যদিও সর্বশেষ চারটি বিশ্বকাপ আসরেই জায়গা পেয়েছিল দলটি৷ সর্বশেষ ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশীপ জয়ী দলটি রোনাল্ডোর উপর ভরসা করে এবার কাপ ঘরে তুলতে বদ্ধপরিকর৷ অন্যদিকে, ফুটবল বিশ্বের এক অন্যতম শক্তিশালী দল স্পেন৷ যদিও বিশ্বকাপ জয় হয়েছে মাত্র একবার, তবে দলটি বিশ্বকাপের বিশ আসরের চৌদ্দটিতেই অংশ নিয়েছে৷

আত্মঘাতী গোলে জয় ইরানের, শেষ বেলায় হারলো মিশর

এদিকে, দিনের অপর দুই খেলায় জয় পেয়েছে ইরান এবং মিশর৷ মরোক্কোর বিরুদ্ধে ইরান অবশ্য নিজের চেষ্টায় নয়, খেলার ইনজুরি টাইমের শেষ মুহূর্তে আত্মঘাতী গোল করেন মরোক্কোর আজিজ বুহাদ্দুজ৷ ফলে বিশ্বকাপের ইতিহাসে দ্বিতীয়বারের মতো একটি ম্যাচ জয় করতে সক্ষম হয় ইরান৷

অন্যদিকে, মিশরেরও কপাল পুড়েছে একেবারে শেষ বেলায়৷ খেলার নব্বই মিনিটের সময় কার্লোস সানচেজের ক্রস থেকে পাওয়া বল গোলে জড়ান হোসে হিমেনেজ৷ মোহাম্মদ সালাহবিহীন মিশরকে অবশ্য আরো সহজেই হারাতো পারতো উরুগুয়ে৷ কিন্তু সেদলের তারকা খেলোয়াড় লুইজ সুয়ারেজ অন্তত তিনটি সহজ গোলের সুযোগ নষ্ট করায় শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়েছে দলটিকে৷

আরাফাতুল ইসলাম (এএফপি, এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন