‘রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রীর বেতন বাড়ে, শিল্পীর সম্মানী বাড়েনা’ | আলাপ | DW | 06.12.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

সাক্ষাৎকার

‘রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রীর বেতন বাড়ে, শিল্পীর সম্মানী বাড়েনা’

খুরশীদ আলম৷ বাংলাদেশের বরেণ্য সংগীত শিল্পী৷ ডয়চে ভেলের সঙ্গে কথা বলেছেন বাংলাদেশের শিল্পীদের, বিশেষ করে সংগীত শিল্পীদের আর্থিক দুরবস্থা ও তার কারণ নিয়ে৷

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

ডয়চে ভেলে: শিল্পীদের এই দুরবস্থার কারণ কী? তারা কেন আর্থিক সংকটে থাকেন?
খুরশীদ আলম: আমরা মনে হয় এই লাইনটা অভিশপ্ত৷ এটা আমার ব্যক্তিগত মত৷

যারা গান করেন, তাদের সবার অবস্থা একই রকম না৷ আবার শিল্পীদের কেউ কেউ আছেন, যেমন নায়করাজ রাজ্জাক, তার উত্তরা ভবন ছিল, ব্যবসা ছিল, অনেক কিছু ছিল৷ কিন্তু যারা গান করেন, যেমন হাদী (সৈয়দ আব্দুল হাদী) সাহেব, তারও অনেক অসুখ-বিসুখ ছিল, তার ওয়াইফ মারা গেছেন, উনি কারুর কাছ থেকে কোনো টাকা-পায়সা নেননি৷ এটা ম্যান টু ম্যান ভ্যারি করে৷

অডিও শুনুন 04:38

‘‘ক্যানসার এমন এক রোগ এটা কোনোভাবেই মাপতে পারবেন না’’


মোহাম্মদ আলি সিদ্দিকী মারা গেছেন, বসির আহমেদ মারা গেছেন, কারুর কাছ থেকে কোনো পয়সা নেননি৷
এখন এন্ড্রু কিশোরের ক্যানসার হয়েছে৷ সাবিনার ক্যানসার হয়েছিল৷ ক্যানসার এমন এক রোগ এটা কোনোভাবেই মাপতে পারবেন না৷ ১০ লাখ বা ৫০ লাখ টাকায় চিকিৎসা শেষ হবে, এটা বলা সম্ভব নয়৷ 

কিন্তু তারপরও আপনাদের যা আয় হওয়ার কথা, তা হয়?

আজ সিএনজি ওয়ালাদের সংগঠন আছে বলেই সিএনজি যখন ইচ্ছা তখন বন্ধ করে দিচ্ছে৷ বাস মালিকদের সংগঠন আছে, তারা যখন ইচ্ছা বাস বন্ধ করে দিচ্ছে৷ আমাদের সংগঠন নাই৷ আমরা পারছি না৷

আপনাদের গানের সম্মানী দেয়া হয় না?
বেতারে আমাদের একটি গানের জন্য যে সম্মানি দেয়া হয়, সেটা যদি আপনি জানতেন তাহলে এই প্রশ্ন করতেন না৷ আমার বাবা ইন্ডিয়াতে ছিলেন৷ উনি জানতেন যে, হেমন্ত বাবু রয়্যালিটি পান৷ (তাই ভাবতেন) আমার ছেলেও পায়৷ অনেকের ধারণা, খুরশীদ আলমের কোটি কোটি টাকা, এন্ড্রু কিশোরের কোটি কোটি টাকা৷ কিন্তু আসলে তো আমাদের টাকা নেই৷ 

আমাদের টেলিভিশন, রেডিও একটা গানের জন্য কত দেয় জানতে হলে সামনাসামনি আসেন বলবো৷ মোবাইল ফোনে নয়৷
আপনাদের গানতো বার বার বাজে৷ এর জন্য রয়্যালটি দেয় না?

আপনার মনে হয় এজন্য পয়সা পাই? এটা বাংলাদেশ, মনে রাখবেন না!

ইউটিব চ্যানেল, মোবাইল ফোনের রিংটোন থেকে?
আরে ভাই, অনেক ব্যাপার আছে এরমধ্যে৷ অন্য কোনো বিষয় থাকলে বলেন৷

তাহলে এর সমাধান কী?
সমাধান হবে না৷ আমাদের এভাবে চলতে হবে৷ থাকলে থাকেন, নইলে গান-বাজনা ছেড়ে দেন৷ শেষ!

যে দেশে প্রেসিডেন্টের বেতন বাড়ে, প্রধানমন্ত্রীর বেতন বাড়ে, সচিবের বাড়ে, মন্ত্রীর বাড়ে, এমপির বাড়ে, প্রধান বিচারপতির বাড়ে, কিন্তু শিল্পীদের পেমেন্ট বাড়ানো হয় না৷ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু একটা রেট দিয়ে গেছেন, সেটাই এখনো চলছে৷
কপিরাইট অনুযায়ী সবখান থেকে আপনারা সম্মানী পাবেন না? আদায় করে নেবেন না?
আমাদের দেশে কপিরাইটের কেউ তোয়াক্কা করে না৷ আপনাকে আবারো বলি, আমাদের কোনো অ্যাসোসিয়েশন নেই৷ আমরা বুঝে গেছি, আমাদের কিছু হবে না৷

আপনাদের কি কিছুই করার নেই?
আপনি কি আমাদের জন্য করে দেবেন? আপনি কি নিশ্চয়তা দিতে পারেন যে এক বছরের মধ্যে আমার যা পাওনা তা আদায় করে দেবেন? যদি না পারেন তাহলে এসব আপনাকে বলে কী হবে!

প্রিয় পাঠক, আপনার কি কিছু বলার আছে? লিখুন নীচের মন্তব্যের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন