রাশিয়ার ফেসবুক পোস্ট দেখেছেন ১২৬ মিলিয়ন মার্কিনি | বিশ্ব | DW | 31.10.2017
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

রাশিয়ার ফেসবুক পোস্ট দেখেছেন ১২৬ মিলিয়ন মার্কিনি

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ২০১৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রে নির্বাচনের সময় ৮০ হাজার রাজনৈতিক পোস্ট দিয়েছে রাশিয়া এবং তা দেখেছেন অন্তত ১২৬ মিলিয়ন মার্কিনি৷ মার্কিন সেনেটের এক শুনানিকে সামনে রেখে এমন তথ্য প্রকাশ করেছে ফেসবুক৷

মঙ্গলবার সেনেট জুডিসিয়ারি কমিটির সামনে ফেসবুক, টুইটার ও গুগলে করা পোস্টের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে রাশিয়ার প্রভাব নিয়ে এক শুনানি অনুষ্ঠিত হবার কথা রয়েছে৷ ফেসবুক জানায়, রাশিয়ার করা বেশিরভাগ পোস্টের উদ্দেশ্য ছিল যুক্তরাষ্ট্রে জাতিগত ও শ্রেণি বিদ্বেষ ছড়ানো, বিশেষ করে মুসলিম অভিবাসী বা ভিন্ন ধর্মাবলম্বী বিষয়ক পোস্টের মাধ্যমে৷ রাশিয়ার সরকারপন্থি সংস্থা ‘ইন্টারনেট রিসার্চ এজেন্সি' ২০১৫ সালের জুন থেকে ২০১৭ সালের আগস্ট পর্যন্ত এসব পোস্ট প্রকাশ করেছে বলে নিশ্চিত করেছেন ফেসবুকের আইনজীবি কলিন স্ট্রেচ৷ প্রায় ২৯ মিলিয়ন ফেসবুকার সরাসরি তাঁদের ফেসবুক পাতায় এসব খবর প্রকাশ করেছেন৷ তবে কলিনের মতে, অ্যামেরিকার বেশিরভাগ ভোটার হয়তো এগুলো পড়েননি৷ তিনি বলেন, ‘‘ফেসবুকের মাধ্যমে আমরা পারস্পরিক সম্প্রীতি তৈরির জন্য যে কাজ করি, এ ধরনের কর্মকাণ্ড তার বিপরীত৷ এবং এগুলো প্রতিহত করতে যা যা করা প্রয়োজন, তার সবই আমরা করবো৷'' মার্কিন নির্বাচনের আগে ফেসবুকে প্রচারিত হওয়া রাশিয়া সংশ্লিষ্ট কয়েক হাজার বিজ্ঞাপন তদন্তের জন্য কংগ্রেসের হাতে তুলে দেবেন তাঁরা৷

গুগল, টুইটার

এ বছরের শুরুর দিকে নির্বাচনে রাশিয়ার প্রভাবের বিষয়টি নিয়ে আলোচনা শুরু হলে গুগল, টুইটার, ফেসবুকের মতো জনপ্রিয় প্লাটফর্ম মার্কিন কংগ্রেসের চাপের মুখে পড়ে৷ গুগল জানায়, সরকারপন্থি একটি গ্রুপ তাদের প্লাটফর্ম উদ্দেশ্যমূলকভাবে ব্যবহার করেছে, এমন প্রমাণ পাওয়া গেছে৷ এ গ্রুপেরই অন্তত ২ টি অ্যাকাউন্ট ২০১৬ সালের যুক্তরাষ্ট্র নির্বাচনের সময় চার হাজার সাতশ' ইউরোরও বেশি খরচ করেছে বিজ্ঞাপনে৷ রাশিয়ার করা ১ হাজারের বেশি ভিডিও ইউটিউবের ১৮ টি পৃথক চ্যানেলে প্রকাশ করা হয়েছে৷ এসব অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেয়া হয়েছে জানিয়ে গুগল বলছে, ‘‘যদিও এসব বিষয় নিয়ে আমাদের করণীয় খুব বেশি নেই, তারপরও আমরা এসব বন্ধের চেষ্টা চালাবো, কারণ, কিছু প্রভাবিত করতে কোনো কর্মকাণ্ডই গ্রহণযোগ্য নয়৷'' 

অন্যদিকে, টুইটার এ সংক্রান্ত ২ হাজার ৭০০টি অ্যাকাউন্ট শনাক্ত করে সাময়িকভাবে বন্ধ করে দিয়েছে৷ এসব অ্যাকাউন্টের বিস্তারিত তথ্য সেনেটে শুনানির সময় দেয়া হবে বলে জানানো হয়৷

আরএন/এসিবি ( রয়টার্স, এপি, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়