রাশিয়াতে হিটলারের আত্মজীবনী ‘মাইন কাম্ফ’ নিষিদ্ধ | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 27.03.2010
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

সমাজ সংস্কৃতি

রাশিয়াতে হিটলারের আত্মজীবনী ‘মাইন কাম্ফ’ নিষিদ্ধ

রাশিয়া হিটলারের লেখা আত্মজীবনী ‘মাইন কাম্ফ’ বা ‘আমার সংগ্রাম’ বইটি নিষিদ্ধ করেছে৷ বইটিতে উগ্রবাদী লেখার কারণে শুক্রবার দেশটির সরকার এই সিদ্ধান্ত নেয়৷

হিটলারের লেখা মাইন কাম্ফ

হিটলারের লেখা মাইন কাম্ফ

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের হোতা হিটলার তার আত্মজীবনী লিখেছিলেন বিশ্বযুদ্ধ শুরু হওয়ারও অনেক আগে৷ ১৯৪৫ সালে বিশ্বযুদ্ধে হিটলারের পরাজয় এবং তার আত্মহত্যার পর বিশ্বের অনেক দেশেই তার আত্মজীবনী নিষিদ্ধ করা হয়৷ দীর্ঘ ৬৫ বছর সেই তালিকায় রাশিয়া নাম লেখালো৷ দেশটির প্রধান সরকারি আইনজীবী এই সিদ্ধান্তের সমর্থনে জানিয়েছেন, বইটিতে হত্যা এবং বর্ণবৈষম্য ছড়ানোর মত উগ্রবাদী বিষয় রয়েছে৷ তাই বইটি নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে৷ তবে রুশ মিডিয়া প্রশ্ন তুলেছে, হিটলার এই বইটি লেখার আট দশকেরও বেশি সময় পর কেন এই সিদ্ধান্ত এখন নেওয়া হল?

উল্লেখ্য, হিটলারের এই আত্মজীবনীতে কেবল জার্মানদের জন্য একটি আলাদা ভূখণ্ডের কথা বলা হয়, যাতে তৎকালীন সোভিয়েত ইউনিয়নের অংশও পড়ে৷ এতে স্লাভিক জনগণকে নিচু জাতি হিসেবে উল্লেখ করেন স্বৈরশাসক হিটলার৷ রাশিয়ার মানবাধিকার সংগঠন মেমোরিয়াল-এর ঐতিহাসিক ইয়ান রাচিনস্কি হিটলারের এই বইটিকে রুশ বিপ্লবী নেতা লেনিন এবং স্বৈরশাসক স্ট্যালিনের লেখা বইগুলোর সঙ্গে তুলনা করেছেন৷ এসব বইতে সাবেক ওই দুই রুশ নেতা ব্যাপক সন্ত্রাসবাদী কর্মকাণ্ডের আহ্বান জানান৷ উল্লেখ্য, রাশিয়াতে উগ্রবাদী গোষ্ঠীর তৎপরতা নিয়ে উদ্বিগ্ন আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠনগুলো৷ কেবল গত বছর বর্ণবাদ সংশ্লিষ্ট কারণে ৭৪ ব্যক্তি প্রাণ হারিয়েছে দেশটিতে৷ হিটলারের ‘মাইন কাম্ফ' নিষিদ্ধ করার জন্য এটিও একটি কারণ হিসেবে মনে করা হচ্ছে৷

প্রতিবেদক: রিয়াজুল ইসলাম, সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন