1. কন্টেন্টে যান
  2. মূল মেন্যুতে যান
  3. আরো ডয়চে ভেলে সাইটে যান
Annalena Baerbock im DW-Interview
ছবি: DW

‘রাশিয়াকে আর সুযোগ দেবে না জার্মানি’

২১ জুলাই ২০২২

জার্মানির পররাষ্ট্রমন্ত্রী আনালেনা বেয়ারবক ডয়চে ভেলেকে বলেছেন, রাশিয়া বা অন্য কোনো দেশকে আর ‘ব্ল্যাকমেইল' করার সুযোগ দেবে না জার্মানি৷ তিনি আরো বলেন, ইউক্রেনে হামলা বাড়ানোর কারণ হিসেবে রাশিয়া যা বলছে তা অযৌক্তিক৷

https://p.dw.com/p/4ET9M

বুধবার জার্মানির হানোফার শহরে ডয়চে ভেলেকে দেয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে চলমান ইউক্রেন যুদ্ধ, জার্মান-চীন সম্পর্কসহ নানা বিষয়ে কথা বলেন বেয়ারবক৷ তবে সাক্ষাৎকারের বড় অংশ জুড়েই ছিল ইউক্রেন যুদ্ধ আর রাশিয়া প্রসঙ্গ৷

এর আগে রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ বলেন, ইউক্রেনে রাশিয়ার সামরিক উদ্দেশ্য আর দনবাস ও তার আশপাশের এলাকায় সীমাবদ্ধ নেই৷ তিনি বলেন, পশ্চিমা বিশ্ব ইউক্রেনকে যত হাই মোবিলিটি আর্টিলারি রকেট (এইচআইএমএআএস)-এর মতো দূর পাল্লার অস্ত্র দেবে, রাশিয়ার হামলার এলাকা তত বড় হবে৷

রাশিয়ার এই বক্তব্যকে ‘অজুহাত' হিসেবে বর্ণনা করে ডয়চে ভেলেকে বেয়ারবক বলেন, ‘‘ প্রত্যেকবার রাশিয়া নতুন নতুন যুক্তি সামনে নিয়ে আসছে৷ এখন বলছে সামরিক সহায়তার কথা, অথচ তারা আগে থেকেই কিয়েভ এবং ইউক্রেনের অন্যান্য অংশের ওপর হামলা চালাচ্ছে৷''

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভ ও তার আশপাশের এলাকায় হামলা শুরু করে রুশ বাহিনী৷ হামলা শুরুর পর রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুটিন বলেছিলেন, ইউক্রেনের সামরিক ঘাঁটিগুলো ধ্বংস করা এবং দেশটিকে ‘নাৎসিমুক্ত' করাই এ হামলার উদ্দেশ্য৷ তিনি আরো দাবি করেছিলেন, ইউক্রেনের কোনো অঞ্চল দখল করা রাশিয়ার উদ্দেশ্য নয়৷

ডয়চে ভেলেকে দেয়া সাক্ষাৎকারে আনালেনা বেয়ারবক বলেন, হামলার ব্যাপকতা বৃদ্ধির পক্ষে রাশিয়া যত ‘অজুহাত দেখাক', ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে যত ‘প্রোপাগান্ডা'ই চালাক, জার্মানি তার অবস্থান থেকে সরবে না৷ ভবিষ্যতেও ইউক্রেনের পাশে থাকার আশ্বাস পুনর্ব্যক্ত করে তিনি বলেন, ‘‘শুধু সংহতি প্রকাশ করে বা রাশিয়া যে চরমভাবে আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করেছে- এ কথা বারবার বলেই শুধু ইউক্রেনের পাশে থাকবে না জার্মানি,  তারা যাতে নিজের দেশ, নিজেদের অঞ্চলকে রক্ষা করার চেষ্টা করতে পারে সে জন্য জার্মানি তাদের সামরিক সহায়তাও দিয়ে যাবে৷''

এর আগে ইউরোপীয় কমিশনও রাশিয়ার বিরুদ্ধে ব্ল্যাকমেইল করার অভিযোগ তোলে৷ বুধবার ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলোর প্রতি আগামী কয়েক মাসের মধ্যে প্রাকৃতিক গ্যাসের চাহিদা শতকরা ১৫ ভাগ কমানোর আহ্বানও জানায় ইউরোপীয় কমিশন৷

ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে সারা বিশ্বে তেল ও জ্বালানি সংকট দেখা দিয়েছে৷ বাড়ছে নিত্যপ্রয়োজনীয় সব পণ্যের দাম৷ বাড়ছে মুদ্রাস্ফীতি৷ জার্মানিতে গ্যাস সরবরাহ ধীরে ধীরে কমাতে শুরু করেছে রাশিয়া৷ ভবিষ্যতে রাশিয়া কি সরবরাহ আরো কমিয়ে জার্মানিকে চাপে ফেলার চেষ্টা করতে পারে? সেই আশঙ্কা একেবারে উড়িয়ে দেয়া যাচ্ছে না৷ তবে বেয়ারবক জানান, রাশিয়া যাতে ব্ল্যাকমেইল করতে না পারে তা নিশ্চিত করা হবে৷

সাক্ষাৎকারে চীনের ওপর নির্ভরশীলতা কমানোর ওপরও জোর দিয়েছেন বেয়ারবক৷ এ প্রসঙ্গে জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্য, ‘‘রাশিয়ার ওপর নির্ভরশীলতার কারণে যেমন হয়েছে, সেভাবে আর কেউ যাতে আমাদের ব্ল্যাকমেইল করতে না পারে, তা আমাদের নিশ্চিত করতে হবে৷ চীনের সঙ্গে সম্পর্কের ক্ষেত্রেও এটাই মোদ্দা কথা- যেখানে একত্রে কাজ করা সম্ভব সেখানে তা-ই করা হবে, পাশাপাশি জটিল পরিকাঠামো এবং পররাষ্ট্রনীতির ক্ষেত্রে ইউরোপের স্বাধীন, সার্বভৌম কৌশল প্রয়োগ করা হবে৷''

রিচার্ড ওয়াকার/এসিবি

স্কিপ নেক্সট সেকশন এই বিষয়ে আরো তথ্য
স্কিপ নেক্সট সেকশন সম্পর্কিত বিষয়

সম্পর্কিত বিষয়

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

Bangladesch | Dhaka Karwan Market

মূল্যস্ফীতি কমলে দ্রব্যমূল্য কমে না কেন?

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

প্রথম পাতায় যান