রাজধানীতে কাভার্ড ভ্যানের চাপায় তিনজনের মৃত্যু | বিশ্ব | DW | 14.04.2022

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

রাজধানীতে কাভার্ড ভ্যানের চাপায় তিনজনের মৃত্যু

রাজধানীর উত্তরাতে ঘটা এই দুর্ঘটনায়, এক নারী এবং তার ভাতিজাসহ তিন মোটসাইকেল আরোহী মৃত্যুবরণ করেন৷

Bangladesch Straßenverkehr in Dhaka

ফাইল ফটো

ডয়চে ভেলের কনটেন্ট পার্টনার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম জানায়, ঢাকার হাজারীবাগ এলাকা থেকে গাজীপুর যাবার পথে বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে৷ উত্তরা পশ্চিম থানার অধীনের আমির কমপ্লেক্সের সামনে এই ঘটনা ঘটে৷

নিহতদের মধ্যে ১৮ বছর বয়সি অনিক হাজারীবাগের একটি গ্যারেজে কাজ করেন৷ ৪৩ বছর বয়সি হনুফা বেগম সম্পর্কে তার ফুপু হন এবং ৪০ বছর বয়সী এনামুল হক একই এলাকার আরেকটি রিকশার গ্যারেজে চাকরি করতেন৷ এনামুলের মোটরসাইকেলে করেই তারা গাজীপুর যাচ্ছিলেন৷

উত্তরা পশ্চিম থানার ওসি শাহ মো. আকতারুজ্জামান ইলিয়াস বলেন, কভার্ড ভ্যানটি মোটরসাইকেলটিকে চাপা দিলে দুইজন ঘটনাস্থলেই মারা যান৷ আরেকজনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে ডাক্তার মৃত ঘোষণা করেন৷

অনিকের মা অজুফা বেগম জানান, ভোরে সেহরির পরই তিনজন হাজারীবাগের বাসা থেকে গাজীপুরের উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছিল৷ পরে সকালে তারা দুর্ঘটনার খবর পান৷ 

"আমার স্বামী গাজীপুরে একটি কোম্পানিতে চাকরি করে৷ কয়েক দিন ধরে ও অসুস্থ৷ অনিক ওর বাবাকে দেখতে যাবে বলে এনামুলকে অনুরোধ করেছিল তার মোটরসাইকেলে করে যেন নিয়ে যায়৷ তখন হনুফাও ওদের সঙ্গে রওনা হয় ভাইকে দেখতে যাওয়ার জন্য৷”

এনামুলের বাড়ি নীলফামারীতে এবং হনুফা ও অনিকদের বাড়ি বরিশালে৷ তাদের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে৷

দুর্ঘটনার পরপরই চালক কভার্ড ভ্যান রেখে পালিয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ৷

এ এস/কেএম (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)

সংশ্লিষ্ট বিষয়