যৌন নিপীড়নের ঘটনায় যাজকদের কৌমার্য নিয়ে বিতর্ক | বিশ্ব | DW | 24.09.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জার্মানি

যৌন নিপীড়নের ঘটনায় যাজকদের কৌমার্য নিয়ে বিতর্ক

জার্মানিতে যাজকদের হাতে কয়েক হাজার শিশু ও কমবয়সি মানুষের যৌন নিপীড়িত হওয়ার খবর সম্প্রতি প্রকাশিত হয়েছে৷ এই ঘটনায় যাজকদের অবিবাহিত থাকার বাধ্যবাধকতার বিষয়টি আলোচনায় উঠে এসেছে৷

জার্মানির ক্যাথলিক বিশপদের সংগঠন ‘জার্মান বিশপস কনফারেন্স'-এর উদ্যোগে পরিচালিত এক প্রতিবেদন বলছে, ১৯৪৬ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত জার্মানিতে কমপক্ষে ১,৬৭০ জনের দ্বারা ৩,৬৭৭ জন যৌন হয়রানির শিকার হয়েছেন৷ অভিযুক্তদের মধ্যে বেশিরভাগই যাজক৷

জার্মানির ফুলডা শহরে আজ থেকে শুরু হওয়া বিশপ সম্মেলনে আলোচিত প্রতিবেদনটি আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশিত হওয়ার কথা৷ তবে তার আগেই ১১ সেপ্টেম্বর জার্মান দৈনিক ‘ডি সাইট' ও ম্যাগাজিন ‘ডেয়ার স্পিগেল'-এ প্রতিবেদনের উল্লেখযোগ্য অংশ প্রকাশিত হয়ে যায়৷

তদন্ত প্রতিবেদনে যৌন হয়রানির যে সংখ্যা বেরিয়েছে তা বাস্তবে আরও বেশি হতে পারে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা৷ কারণ, ক্যাথলিক গির্জা পরিচালিত সব প্রতিষ্ঠান ঐ তদন্তের আওতায় ছিল না৷

যাজকদের দ্বারা এত শিশু ও কমবয়সি মানুষের যৌন নিপীড়নের শিকার হওয়ার ঘটনায় কয়েকটি বিষয় আলোচনায় উঠে এসেছে৷ এর মধ্যে যাজকদের অবিবাহিত থাকা এবং কারো সঙ্গে যৌন সম্পর্ক স্থাপন থেকে বিরত থাকার বাধ্যবাধকতার বিষয় একটি৷ জার্মানির গির্জাগুলোতে বহুদিন থেকে এই বিষয়টি আলোচনায় থাকলেও সাম্প্রতিক প্রতিবেদনের পর সেটি আরও বেশি সামনে এসেছে৷

ভিডিও দেখুন 00:34

শিশু যৌন নিপীড়নের মামলায় বিপাকে যাজক

ফুলডায় শুরু হওয়া বিশপ সম্মেলনে বিষয়টি আরো বিস্তারিতভাবে আলোচিত হওয়ার কথা রয়েছে৷ এছাড়া যৌন নিপীড়নের শিকার ব্যক্তিদের ক্ষতিপূরণ দেয়া, যাজকদের প্রশিক্ষণ ও যাজকদের জন্য নির্ধারিত বাসভবনে একা থাকার বিষয়ও আলোচনায় আসতে পারে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা৷

সম্মেলন শেষে সাম্প্রতিক প্রতিবেদন বিষয়ে একটি আনুষ্ঠানিক বিবৃতি প্রকাশ করবে জার্মান বিশপস কনফারেন্স৷

যৌন নিপীড়নের শিকার ব্যক্তিদের সংগঠন ‘স্কয়ার টেবিল ফাউন্ডেশন'-এর প্রতিষ্ঠাতা মাটিয়াস কাটশ মনে করেন, যাজকদের কৌমার্য ব্রত গ্রহণের বিতর্কটি গুরুত্বপূর্ণ৷ তবে এই মুহূর্তে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে, ভুক্তভোগীদের ক্ষতিপূরণ দেয়ার বিষয়টি আলোচনা করা৷

ফুলডা থেকে রোম

যাজকদের হাতে শিশু ও কমবয়সিদের নিপীড়িত হওয়ার বিষয়টি শুধু যে জার্মানিতে ঘটেছে তা নয়৷ কাটশ মনে করেন, যে দেশে ক্যাথলিক চার্চ রয়েছে সেখানেই এমন ঘটনা ঘটে থাকতে পারে৷ এর আগে যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া, চিলি, ফ্রান্স, ফিলিপাইন্স, নেদারল্যান্ডসে এমন ঘটনার খবর প্রকাশিত হয়েছে৷

আগামী ফেব্রুয়ারিতে বিশ্বের সব বিশপকে নিয়ে ভ্যাটিকানে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া সম্মেলনে বিষয়টি নিয়ে পোপ ফ্রান্সিস কথা বলতে পারেন বলে আভাস পাওয়া গেছে৷

তবে কাটশ মনে করেন, ঐ আলোচনা শুধু বিশপদের নিয়ে করলে হবে না, সেখানে ভুক্তভোগীদেরও থাকতে দিতে হবে৷ তাহলে ক্যাথলিক গির্জার সর্বোচ্চ পর্যায় যে বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে দেখছে, সবার কাছে সে বার্তা পৌঁছে যাবে৷

ক্রিস্টোফ স্ট্রাক/জেডএইচ

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন