যৌনকর্মের মাধ্যমে এইচআইভি ছড়ানোয় তরুণী আটক | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 27.10.2010
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

যৌনকর্মের মাধ্যমে এইচআইভি ছড়ানোয় তরুণী আটক

নিজের এইডস আক্রান্তের খবর আগেই জানতেন তিনি৷ তারপরও একে একে ২০ পুরুষের সঙ্গে যৌন সম্পর্ক স্থাপন করলেন ১৯ বছর বয়সী তরুণী৷ মঙ্গলবার দক্ষিণ কোরীয় পুলিশ আটক করেছে তাকে৷

default

এইডস আক্রান্ত অবস্থায় পুরুষের শয্যাসঙ্গী হন আন (ফাইল ফটো)

আটক তরুণী'র বিস্তারিত নাম ঠিকানা এখানে প্রকাশ করা হয়নি৷ দক্ষিণ কোরিয়ার বুশান শহরে বাস তার৷ সংক্ষিপ্ত নাম আন৷ গত ফেব্রুয়ারি মাসে পরীক্ষায় তার শরীরে এইচআইভি ধরা পড়ে৷ এরপর ইন্টারনেটে নানা পুরুষের সঙ্গে যোগাযোগ করে আন৷ এভাবে একে একে ২০ জনকে ইন্টারনেট থেকে বিছানায় নিয়ে যায় বুশানের এই তরুণী৷

আন-এর বাবা দিয়েছেন আরো বিস্ফোরক তথ্য৷ তাঁর কন্যা নাকি বিভিন্ন মোটেলে এসব পুরুষের সঙ্গে যৌনকর্মে অংশ নিয়েছে৷ এজন্য প্রতি পুরুষের কাছ থেকে গড়ে ৯০ মার্কিন ডলার করে নিয়েছে আন৷

ইতিমধ্যে আন-এর যৌনসঙ্গী তিন পুরুষকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পুলিশ৷ বাকিদেরকেও খোঁজা হচ্ছে৷ তবে সেটা আটকের জন্য নয়, বরং তাদের শরীরেও এইচআইভি সংক্রমণ ঘটেছে কিনা তা জানার জন্য৷

এদিকে, আনকে আটক করে খানিকটা বিপাকে বুশান পুলিশ৷ কেননা, আদালত আন-এর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করতে অপারগ৷ বরং আপাতত তাকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠাতে বলেছেন আদালত৷

উল্লেখ্য, জার্মানিতে এর আগে এক এইচআইভি আক্রান্ত শিল্পীকে আটক করা হয়, জেনে বুঝে এই ভাইরাস ছড়ানোর দায়ে৷ পপ তারকা নাদিয়া এইচআইভি আক্রান্ত অবস্থায় কোন রকম প্রতিরোধক না নিয়েই তিন পুরুষের শয্যাসঙ্গী হন৷ পরে এজন্য আদালতে ক্ষমা চেয়েছেন তিনি৷

প্রতিবেদন: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: রিয়াজুল ইসলাম

নির্বাচিত প্রতিবেদন