যে কাঠের মধ্যে সংগীতের ঝংকার | অন্বেষণ | DW | 08.02.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

অন্বেষণ

যে কাঠের মধ্যে সংগীতের ঝংকার

যন্ত্রসংগীতের বাজনার পেছনে শুধু শিল্পীর দক্ষতা ও সংগীতবোধই কাজ করে না, বাদ্যযন্ত্রের নির্মাতারও অবদান থাকে৷ সেই বাদ্যযন্ত্রের জন্য কাঠ সংগ্রহকারীর কৃতিত্বও কম নয়৷

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

বাদ্যযন্ত্রের কাঠের সন্ধানে

প্রায় ৩০ বছর ধরে ফাবিও অগনিবেনিডাস বাদ্যযন্ত্র তৈরির জন্য উপযুক্ত কাঠের সন্ধান করে চলেছেন৷ কয়েক'শো বছর ধরে ভাল ডি ফিয়েমে জঙ্গল থেকে বেহালা, গিটার, পিয়ানোর মতো বাদ্যযন্ত্র তৈরির জন্য কাঠ সংগ্রহ করা হচ্ছে৷ সেখানে যেটুকু অবশিষ্ট রয়েছে, ফাবিও তা রক্ষা করতে চান৷ ফাবিও বলেন, ‘‘এই গাছের কাণ্ডের ব্যাস বেশ উপযুক্ত, টেক্সচারও বেশ ভালো৷ কিন্তু এই ফাটল দেখিয়ে দিচ্ছে. যে গাছটি পড়ে যাবার সময় দু'টুকরো হয়ে গিয়েছিল৷ ফলে খারাপ লাগলেও এটি আর ব্যবহার করতে পারবো না৷’’

ফাবিও-র হাতে বেশি সময় নেই৷ তিনি কীটপতঙ্গের হাত থেকে এই কাঠ রক্ষা করতে চান৷ তিনি কাজের প্রতি, গাছের প্রতি ভালবাসা থেকেই এমনটা করেন৷ আবেগ-অনুভূতি ছড়া সেটা সম্ভব নয়৷

ভিডিও দেখুন 04:08

বাদ্যযন্ত্র তৈরিতে কাঠ সংগ্রহকারীর কৃতিত্ব

পাহাড়ের নীচে উপত্যকায় ফাবিও-র পারিবারিক কারখানায় সেই কাঠ বাদ্যযন্ত্র তৈরির জন্য প্রস্তুত করা হয়৷ ফাবিও-র তত্ত্বাবধানে স্প্রুস গাছের কাঠ সুরের ঝংকারের জন্য উপযুক্ত করে তোলা হয়৷ বিশ্বের অনেক প্রথম সারির বাদ্যযন্ত্র প্রস্তুতকারক কোম্পানি তাঁর কাছ থেকে প্রয়োজনীয় কাঠ কেনে৷ বিশেষ করে বেহালার সুরের জন্য বিশেষভাবে প্রস্তুত করা কাঠের বিশেষ কদর রয়েছে৷ বছর ও মান অনুযায়ী তার মূল্য স্থির করা হয়৷ ৩০০ বছর আগেই আন্তোনিও স্ট্রাডিভারি এই কাঠ দিয়ে তাঁর বেহালা তৈরি করেন৷

প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের ফলে নতুন সমস্যা

ফাবিও-র কারখানায় একটা সমস্যা রয়েছে, আর সেটা হলো অর্থের অভাব৷ আগামী কয়েক মাসেই এত পরিমাণ কাঠ সংগ্রহ করতে হবে, যা সাধারণত চার বছরে করা হয়৷ এমন উদ্যোগের জন্য বিশাল ব্যয়ের প্রয়োজন৷ ফলে ফাবিও তাঁর ক্রেতা ও বেসরকারি সাহায্যকারীদের কাছে আর্থিক সহায়তা চাইছেন৷ সংগৃহীত কাঠ ঠিকমতো গুদামজাত করার জন্য তাঁর ঋণের প্রয়োজন৷ কাঠের মূল্য যেন কমে না যায়, সেটাই তাঁর উদ্দেশ্য৷ তবে ফাবিও নিশ্চিত, যে পরে সেই কাঠ বিক্রি করে তিনি সহজেই ঋণ শোধ করতে পারবেন৷ সেই লক্ষ্যে তিনি আরও সতর্কতার সঙ্গে গাছের সন্ধান করছেন৷ ফাবিও অগনিবেনি বলেন, ‘‘আমাকে প্রত্যাকটি গাছের কাণ্ড ভালো করে পরীক্ষা করতে হবে৷ চোখ, কান ও হাত আমাকে সে কাজে সাহায্য করে৷ কোন অংশটি কোন বাদ্যযন্ত্রের জন্য উপযুক্ত তা ভাবতে হবে৷ একটি কাণ্ড থেকে কতগুলি টুকরো আমি পেতে পারি?’’

শুধুমাত্র সেরা মানের কাঠ নিয়েই বাকি কাজে হাত দেওয়া হয়৷ কাঠের উপর থেকে ফাবিও কখনো নজর হঠান না, এমনকি করাত চালানোর সময়েও নয়৷ সেখানেই টেক্সচার বরাবর গাছের কাণ্ড কাটা হয়৷ সেই সব টুকরো দিয়ে পিয়ানোর নীচে সাউন্ডবোর্ডের পাত তৈরি হয়৷ অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে প্রতি মিলিমিটারের উপর নজর রাখতে হয়৷ করাত মিস্ত্রী ফ্রাংকো সেবার-এর ঘাড়ে আরও অনেক দায়িত্ব থাকে৷ তিনি বলেন, ‘‘এই সব গাছ বেড়ে উঠতে ১২০ বছর সময় লেগেছে৷ তারপর মাত্র দুই মিনিটের ঝড়ে সব ধ্বংস হয়ে গেছে৷ ভাবলেই মনে কষ্ট হয়৷ কারণ বিপর্যয় সামলে উঠতে এই জঙ্গলের আবার ১২০ বছর সময় লাগবে৷’’

ক্রেতাদের সহায়তা

ক্রেতারা অবশ্যই ফাবিও-কে সাহায্য করছেন৷ তাঁর অভিজ্ঞতা, তাঁর জ্ঞান তাদের কাজের ক্ষেত্রে অপরিহার্য৷ এক বেহালা প্রস্তুতকারক কোম্পানির প্রতিনিধি সেসিলিয়া পিয়াৎসি বলেন, ‘‘সহকর্মীসহ ফাবিও-র উপর বিশাল দায়িত্ব রয়েছে৷ একমাত্র সেই সঠিক কাঠের সন্ধান করতে পারে৷ বেহালা প্রস্তুতকারক হিসেবে আমরা সেটা পারি না৷ কোনো বাদ্যযন্ত্রের সৃষ্টির কাজে প্রত্যেকের নিজস্ব অবদান রয়েছে৷ এ ক্ষেত্রে পারস্পরিক আস্থার প্রয়োজন রয়েছে৷’’

সুরেলা কাঠের প্রতি ফাবিও অগনিবেনি-র নিষ্ঠা সম্পর্কে বিশেষ করে তাঁর গ্রাহকরাই অবগত আছেন৷ অর্থাভাব কাটিয়ে গোটা বিশ্বের সংগীতপ্রেমীদের জন্য গাছগুলি রক্ষা করতে না পারলে সেই পরিস্থিতি বদলে যেতে পারে৷

ফিলিপ সান/এসবি

ইন্টারনেট লিংক

বিজ্ঞাপন