যুক্তরাষ্ট্রে সন্ত্রাসী তৎপরতার অভিযোগে বাংলাদেশি যুবকের কারাদণ্ড | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 23.04.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

যুক্তরাষ্ট্র

যুক্তরাষ্ট্রে সন্ত্রাসী তৎপরতার অভিযোগে বাংলাদেশি যুবকের কারাদণ্ড

যুক্তরাষ্ট্রের আদালত বাংলাদেশি যুবক আকায়েদ উল্লাহকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে৷ নিউ ইয়র্কে বাস টার্মিনালে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণের চেষ্টার অভিযোগে তাকে এ শাস্তি দেয়া হয়৷

৩১ বছর বয়সি আকায়েদকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের পাশাপাশি অতিরিক্ত পাঁচ বছরের সাজা দিয়েছে ম্যানহাটনের ফেডারেল জজ৷ যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন রাজ্যে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের মেয়াদ মোটামুটি ২৫ বছর হলেও আকায়েদকে কারাভোগ করতে হবে ৩০ বছর৷

আকায়েদের দাবি, তার সাথে আইএস কিংবা কোনো জঙ্গি সংগঠনের যোগসূত্র ছিল না, তিনি আত্মহত্যার উদ্দেশে ওই তৎপরতা চালিয়েছিলেন৷ তবে বিচারক রিচার্ড সুলিভান দণ্ড ঘোষণার সময় ওই হামলাকে বর্বরোচিত এবং ভয়ানক অপরাধ বলে মন্তব্য করেন৷

২০১৭ সালের ১১ ডিসেম্বর সকালে অফিসগামী যাত্রীদের ব্যস্ততার মধ্যে টাইম স্কয়ার সাবওয়ে স্টেশন থেকে ম্যানহাটনের পোর্ট অথরিটি বাস টার্মিনালে যাওয়ার সংকীর্ণ ভূগর্ভস্থ পথে আকায়েদ নিজের শরীরে বাঁধা ‘পাইপ বোমায়' বিস্ফোরণ ঘটান৷ বোমাটি ঠিকমতো বিস্ফোরিত না হওয়ায় প্রাণে বেঁচে গেলেও গুরুতর আহত হন আকায়েদ৷ বিস্ফোরণে তিন পুলিশ সদস্যও আহত হন৷

গ্রেপ্তারের পর জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস)-এর মাধ্যমে অনুপ্রাণিত হয়ে হামলা চালানোর চেষ্টা করার কথা পুলিশের কাছে স্বীকার করেন আকায়েদ৷ 

মা, বোন ও দুই ভাইয়ের সঙ্গে নিউ ইয়র্কের ব্রুকলিনে থাকতেন আকায়েদ ৷ তার গ্রিনকার্ডধারী স্ত্রী ও একমাত্র ছেলে রয়েছে বাংলাদেশে৷

চট্টগ্রামে জন্ম নেয়া আকায়েদ বড় হয়েছেন ঢাকার হাজারীবাগে৷ আট বছর আগে যুক্তরাষ্ট্রে যান৷ প্রথমদিকে ট্যাক্সিক্যাব চালালেও পরে একটি আবাসন নির্মাতা কোম্পানিতে বিদ্যুৎ মিস্ত্রির কাজ করেন৷ 

এনএস/এসিবি ( রয়টার্স, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)

নির্বাচিত প্রতিবেদন