যুক্তরাষ্ট্রে লবিস্ট নিয়োগ প্রসঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্য | বিশ্ব | DW | 14.01.2022
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

যুক্তরাষ্ট্রে লবিস্ট নিয়োগ প্রসঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্য

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্ক উন্নয়নের জন্য বিজিআর নামে একটি লবিস্ট প্রতিষ্ঠান কাজ করছে৷ পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন শুক্রবার বলেছেন, দেশের স্বার্থে যেখানে তদবিরের প্রয়োজন হবে, সেখানে সরকার তদবির চালাবে৷

পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন(ফাইল ছবি)

পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন(ফাইল ছবি)

ঢাকায় বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ল অ্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্সে এক আলোচনা শেষে তিনি এই মন্তব্য করেন৷

সম্প্রতি র‍্যাবের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞার পরিপ্রেক্ষিতে  বাংলাদেশ নতুন করে লবিস্ট নিয়োগ করবে কি না, সে বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘‘আমি এসব বলতে পারব না৷ অ্যামেরিকার চর্চা এটি (লবিস্টদের কাজ)৷ এটা বোধ হয় ২০১৩-১৪ সালে করেছিল এবং ওরা কাজ করে৷ প্রত্যেক দেশেই...আমাদের দেশে আমরা তদবির বলি৷ ওই দেশে বলে প্রাতিষ্ঠানিক তদবির৷ যেখানে তদবির দরকার, সেখানে আমরা চালাব৷ দেশেও তো কাজ করতে গেলে অনেক সময় তদবির লাগে৷’’

মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্র গত ১০ ডিসেম্বর র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব) এবং প্রতিষ্ঠানের সাবেক ও বর্তমান ছয় কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারি করে৷

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘‘সময়-সময় আমাদের অনেক ধরনের দুর্যোগ আসে৷ আমরা সেগুলো সমাধান করি৷ এখনো একটা হয়তো অসুবিধা আসছে৷ কিন্তু আমরা এটা সমাধান করতে পারব৷ আমেরিকানরা পরিপক্ব জাতি৷ যদিও র‍্যাবের ওপর যুক্তরাষ্ট্র নিষেধাজ্ঞা  দিয়েছে, মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর বলছে গত কয়েক বছরে বাংলাদেশে সন্ত্রাস কমেছে৷ এটা তাদের নিরপেক্ষ সমীক্ষা৷ র‍্যাব এগুলো সফলভাবেই করছে৷ এ কারণেই র‍্যাব জনগণের আস্থা অর্জন করেছে৷’’

এনএস/জেডএইচ (প্রথম আলো, ডেইলি স্টার)  

নির্বাচিত প্রতিবেদন