যুক্তরাষ্ট্রকে সতর্ক করে দিলেন পুটিন | বিশ্ব | DW | 20.02.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

যুক্তরাষ্ট্রকে সতর্ক করে দিলেন পুটিন

বুধবার জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে যুক্তরাষ্ট্রকে ছেড়ে কথা বললেন না রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুটিন৷ অ্যামেরিকা যদি ইউরোপে ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন করে তাহলে রাশিয়া যুক্তরাষ্ট্রকে লক্ষ্যবস্তু বানাবে বলে জানান তিনি৷

পুটিন আরো জানান, রাশিয়া নৌবাহিনীর জন্য নতুন হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন-সমৃদ্ধ সাবমেরিন তৈরি করছে, যা দিয়ে ভূমি ও জলে থাকা লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানা যাবে৷

তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ‘ইন্টারমিডিয়েট-রেঞ্জ নিউক্লিয়ার ফোর্সেস ট্রিটি' আইএনএফ চুক্তি থেকে সরে দাঁড়ানো সত্ত্বেও রাশিয়া যুদ্ধ শুরু করতে চায় না৷ তবে আঘাতের উত্তর দেয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন পুটিন৷

তিনি বলেন, ‘‘যে দেশ থেকে রাশিয়ায় ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া হবে, আমরা শুধু তাদের ওপরেই পালটা হামলা চালাবো না৷ যেখান থেকে এই হামলার সম্পূর্ণ ছক কষা হবে বা যারা এর সাথে যুক্ত থাকবে, সেই দেশগুলিতেও হামলা চালানোর ক্ষমতা আমাদের আছে৷''

তাঁর এই সতর্কবাণী ইতিমধ্যেই রাশিয়ার রাজনৈতিক মহলে প্রশংসা কুড়িয়েছে৷

যুক্তরাষ্ট্র-রাশিয়ার নতুন ক্ষেপণাস্ত্র?

২০১৩ সাল থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অভিযোগ, আইএনএফ চুক্তি অমান্য করে রাশিয়া গোপনে ক্রুজ-মিসাইল তৈরি করছে৷  এই ক্ষেপণাস্ত্র ৫০০ থেকে ৫,৫০০ কিলোমিটার পর্যন্ত দূরত্বে থাকা লক্ষ্যে আঘাত হানতে পারে৷

 রাশিয়াএই অভিযোগ অস্বীকার করে এলেও সম্প্রতি স্বীকার করেছে যে তাদের কাছে আসলেই এমন মিসাইল রয়েছে৷ কিন্তু তাদের দৃঢ় বক্তব্য, আইএনএফ চুক্তির কোনো ধারাকেই তারা অমান্য করেনি৷

এদিকে, মার্কিন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে যে তাদের কাছে এই মুহূর্তে নতুন কোনো ক্ষেপণাস্ত্র নেই৷

এসএস/জেডএইচ (এপি, এএফপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন