‘যারা এমন কাজ করে তারা মুসলমান হতে পারে না’ | বিশ্ব | DW | 02.06.2015
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘যারা এমন কাজ করে তারা মুসলমান হতে পারে না’

বাংলাদেশ থেকে এক তরুণীর আইএস-এ যোগ দিতে যাওয়ার খবরের পর সংবাদ মাধ্যমে আরেকটি খবরও এসেছে৷ খবরে জানা গেছে, আইএস ইরাক এবং সিরিয়ায় যৌন ক্রিতদাসীর বাজার বসিয়ে নারীদের বিক্রি করছে৷ এ খবরে ফেসবুকে পাঠকদের প্রতিক্রিয়া৷

আইএস নারীদের বয়স অনুপাতে দাম নির্ধারণ করে যৌনদাসী হিসেবে বিক্রি করছে- এ খবরটি হাতেগোনা কয়েকটি পত্রিকা পরিবেশন করেছে৷ খবরের সূত্র হিসেবে আইএস-এর পত্রিকা ‘দাবিক’-এর নাম উল্লেখ করা হয়েছে৷ ডয়চে ভেলের ফেসবুকে খবরটির লিংক দেখে কেউ কেউ এর সত্যতা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন৷ তবে কুড়িগ্রামের মাহবুব আলম মনে করেন, ‘‘ইসলামকে বিতর্কিত করার জন্য আইএসকে আমেরিকা এবং ইসরায়েল তৈরি করেছে অথবা আইএস-এর বিরুদ্ধে ভুয়া নিউজ প্রচার করছে৷ কোনটা সঠিক তা আমরা জানিনা৷’’ আবার এ কে শরিফ সরকার লিখেছেন, ‘‘আইএস-কে যখন পশ্চিমারা সাহায্য করেছিল সবাই তাদের প্রশংসা করছিলেন৷ এইগুলো বিশ্ব মোড়লদের নাটক৷ একটু চিন্তা করেন উত্তর নিজেই পাবেন৷’’

মশিউর রহমান মিশু মনে করেন নারীদের ওভাবে আইএস-এর হাতে পণ্যের মতো বিক্রি হওয়ার চেয়ে মরে যাওয়াও ভালো৷ তাই তিনি লিখেছেন, ‘‘ গুলি খেয়ে মরে যাওয়াও ভালো৷’’ আল-আমিন জুয়েল খবরটি পড়ে ক্ষুব্ধ হয়ে লিখেছেন, ‘‘নাউজুবিল্লাহ, খোদার গজব পড়ুক!’’

আরনাজ আদনাদ যারা নারীর প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতে পারেনা, তাদের মুসলমান মানতেই নারাজ৷ তাঁর মতে, ‘‘যারা এ কাজগুলো করছে তারা কখনোই মুসলমান হতে পারে না৷ পৃথিবীর যে প্রান্তেই হোক দয়া করে এগুলো বন্ধ কর৷’’

মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম লিখেছেন, ‘‘ইরাকের চেয়ে বেশি খারাপ বার্মা৷ তাদের নিয়ে লিখুন৷ যেভাবে মুসলমানদের হত্যা করছে তাদের নিয়ে প্রতিবেদন তৈরি করুন৷’’ মিয়ানমারের কোনো দাঙ্গার খবর যখন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে আসে ডয়চে ভেলেতেও অবশ্যই তা স্থান পায়৷ বিশ্বের কোনো প্রান্তের মানবাধিকার লঙ্ঘনই সমর্থনযোগ্য নয়৷

সংকলন: আশীষ চক্রবর্ত্তী
সম্পাদনা: জাহিদুল হক

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়