ম্যার্কেলের বিরুদ্ধে মামলা করলেন জার্মান কমেডিয়ান | বিশ্ব | DW | 03.04.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জার্মানি

ম্যার্কেলের বিরুদ্ধে মামলা করলেন জার্মান কমেডিয়ান

জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেলের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন দেশটির একজন স্যাটায়ার রচয়িতা৷ তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেচেপ তাইয়্যিপ এরদোয়ানকে নিয়ে লেখা ব্যাঙ্গোক্তিমূলক একটি কবিতার সমালোচনা করায় মামলা করেন ইয়ান ব্যোমারমান৷

২০১৬ সালে জার্মানির সরকারি জেডডিএফ টেলিভিশনে এরদোয়ানকে নিয়ে রচিত ঐ কবিতা আবৃত্তি করেছিলেন ব্যোমারমান৷ সে সময় এ কবিতাটি ‘উদ্দেশ্যপ্রণোদিত' বলে মন্তব্য করেছিলেন ম্যার্কেল৷ যদিও পরে তিনি তাঁর ‘ভুল' স্বীকার করে নিয়েছিলেন৷

কবিতাটির জের ধরে জার্মানি ও তুরস্কের মধ্যে কূটনৈতিক সংকট তৈরি হয়েছিল৷ উদ্ভুত পরিস্থিতিতে ব্যোমারমানের বিরুদ্ধে তদন্তও করেছিল জার্মান সরকার

 

বার্লিনের আদালতের উদ্ধৃতি দিয়ে বার্তা সংস্থা ডিপিএ জানিয়েছে, ব্যোমারমান আদালতের কাছে দুটি বিষয়ে নির্দেশনা চেয়েছেন৷ একটি হলো, ম্যার্কেলকে প্রকাশ্যে কবিতাটির রাজনৈতিক সমালোচনা থেকে বিরত থাকার নির্দেশনা দেয়া৷ অপরটি হচ্ছে, যদি আদালত ম্যার্কেলকে কবিতাটির সমালোচনা থেকে বিরত থাকার নির্দেশ না দেয় তাহলে ম্যার্কেলের সমালোচনাকে বেআইনি বলে ঘোষণা দেওয়া৷

আগামী ১৬ তারিখে আদালতে এ বিষয়ে পরবর্তী শুনানি অনুষ্ঠিত হবে৷ মামলার শুনানিতে ম্যার্কেল স্বশরীরে উপস্থিত থাকবেন না বলে জানানো হয়েছে৷ একজন আইনজীবী আদালতে তাঁর প্রতিনিধিত্ব করবেন বলে ডিপিএ জানায়৷

কী ছিল কবিতাটিতে

২০১৬ সালের মার্চ মাসে জেডডিএএফ চ্যানেলের ‘নিউ ম্যাগাজিন রয়্যাল' নামে এক অনুষ্ঠানে এরদোয়ানকে নিয়ে একটি কবিতা আবৃতি করেন ব্যোমারমান৷ কবিতাটিতে এরদোয়ান ‘শিশু পর্নোগ্রাফি দেখেছেন এবং প্রাণীদের সঙ্গে যৌনকর্মে লিপ্ত হয়েছেন' বলে দাবি করা হয়েছিল৷ ঘটনার জেরে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এ বিষয়ে তদন্ত করতে জার্মান সরকারকে অনুরোধ করেছিলেন৷ জার্মান সরকার কবিতাটির কিছু অংশ নিষিদ্ধ করেছিল৷

কী বলেছিলেন ম্যার্কেল?

টেলিভিশন অনুষ্ঠানের পর ম্যার্কেলের মুখপাত্র স্টেফেন সাইব্যার্ট সেইসময় সাংবাদিকদের বলেছিলেন যে, আঙ্গেলা ম্যার্কেল মনে করেন, কবিতাটি উদ্দেশ্যপ্রণোদিত৷ তবে পরে তিনি তাঁর এ মন্তব্য ‘ভুল' বলে স্বীকার করে নিয়েছিলেন৷

আরআর/জেডএইচ (ডিপিএ, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন