ম্যার্কেলকে মেয়াদের শেষ পর্যন্ত চান বেশিরভাগ জার্মান | বিশ্ব | DW | 16.11.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জার্মানি

ম্যার্কেলকে মেয়াদের শেষ পর্যন্ত চান বেশিরভাগ জার্মান

এক জরিপে দেখা যাচ্ছে, ভোটাররা চাইছেন আঙ্গেলা ম্যার্কেল চ্যান্সেলর হিসেবে তাঁর মেয়াদ শেষ করুন৷ অন্যদিকে বেশিরভাগ ভোটারই মনে করেন, কেন্দ্রীয় সরকার থেকে সেহোফারের অবিলম্বে পদত্যাগ করা উচিত৷

আগামী মাসে আঙ্গেলা ম্যার্কেল তাঁর দল সিডিইউ-এর নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়াচ্ছেন৷ শুক্রবার গণমাধ্যম এআরডি'র শো-তে দেখানো হয় জার্মানির ডয়েচলান্ডট্রেন্ডের জরিপ৷

জরিপ বলছে, বিপুল সংখ্যক ভোটার চান, যাতে ম্যার্কেল ২০২১ সাল পর্যন্ত নির্ধারিত মেয়াদ শেষ করেন৷ তাঁর দলের তিন চতুর্থাংশ ভোটার মনে করেন, ম্যার্কেলের চ্যান্সেলর হিসেবে দায়িত্ব পালন অব্যাহত রাখা উচিত৷ গ্রিন পার্টি, সমাজতান্ত্রিক বাম দল এবং এসপিডি'র ৫০ শতাংশেরও বেশি সমর্থক এ ব্যাপারে একমত৷ তবে যথারীতি কট্টর ডানপন্থি দল অলটারনেটিভ ফর জার্মানি বা এএফডি চায় ম্যার্কেলের দ্রুত পদত্যাগ৷

এদিকে, ম্যার্কেলের প্রতি নমনীয় হলেও তাঁর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হর্স্ট সেহোফারের প্রতি মোটেও নমনীয় নন ভোটাররা৷ সেহোফার সম্প্রতি সিডিইউ-র সহযোগী দল সিএসইউ-র প্রধানের পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন৷ প্রতি চারজন ভোটারের মধ্যে তিনজন মনে করেন, কেন্দ্রীয় সরকার থেকে সেহোফারের পদত্যাগ করা উচিত৷

Infografik Deutschlandtrend Seehofer EN

ম্যার্কেলের উত্তরসূরি

জরিপে বেশিরভাগ ভোটার ম্যার্কেলের সহযোগী এবং সিডিইউ-এর মহাসচিব আন্নেগ্রেট ক্রাম্প-কারেনবাওয়ারকে দলে ম্যার্কেলের উত্তরসুরী হিসেবে এগিয়ে রেখেছেন৷ নিজের দলের ৪৬ শতাংশ সদস্যের সমর্থন রয়েছে ক্রাম্প-কারেনবাওয়ারের পক্ষে৷ এরপরে আছেন দলটির কোষাধ্যক্ষ ফ্রিডরিশ ম্যার্ৎস, তাঁর পক্ষে ৩১ শতাংশ সদস্যের সমর্থন রয়েছে৷ স্বাস্থ্যমন্ত্রী এবং ম্যার্কেলের সমালোচক ইয়েনস স্পাহনের পক্ষে সমর্থন রয়েছে মাত্র ১২ শতাংশ সদস্যের৷

Infografik Deutschlandtrend Leader CDU EN

গ্রিন পার্টির উত্থান

সাম্প্রতিক জরিপে গ্রিনদের উত্থান অব্যাহত আছে৷ জনপ্রিয়তার দিক থেকে তারা ম্যার্কেলের দলকে প্রায় ধরাশায়ী করে ফেলেছে৷ জরিপ অনুযায়ী, যদি রবিবার সাধারণ নির্বাচন হতো, তাহলে ২৩ শতাংশ জার্মান গ্রিন পার্টিকে ভোট দিত৷ তাদের চেয়ে মাত্র এক তৃতীয়াংশ বেশি ভোটার বলেছেন, তারা সিডিইউ বা সিএসইউকে ভোট দিতেন৷

তবে ম্যার্কেল সরকারের শরিক দল এসপিডি'র জনপ্রিয়তায় ভাটা পড়েছে৷ ১৪ শতাংশ ভোটার এসপিডি'র পক্ষে ভোট দেয়ার কথা বলেছেন৷ অন্যদিকে, সমপরিমাণ ভোটার কট্টর ডানপন্থি দল এএফডিকে ভোট দেয়ার কথা বলেছেন৷

আশুতোষ পাণ্ডে/এপিবি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন