1. কন্টেন্টে যান
  2. মূল মেন্যুতে যান
  3. আরো ডয়চে ভেলে সাইটে যান
ছবি: DW

মৌমাছির সাহায্য নিয়ে স্লোভাকিয়ার শিল্পীর ভাস্কর্য

১ এপ্রিল ২০২২

মানুষ ও প্রাণিজগত মিলে শিল্প সৃষ্টি করছে, এমন দৃষ্টান্ত সহজে চোখে পড়ে না৷ স্লোভাকিয়ার এক শিল্পী মৌমাছির সাহায্য নিয়ে নিজের তৈরি কাঠামোর উপর মৌচাকের মোম কাজে লাগিয়ে অভিনব ভাস্কর্য সৃষ্টি করছেন৷

https://www.dw.com/bn/%E0%A6%AE%E0%A7%8C%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%9B%E0%A6%BF%E0%A6%B0-%E0%A6%B8%E0%A6%BE%E0%A6%B9%E0%A6%BE%E0%A6%AF%E0%A7%8D%E0%A6%AF-%E0%A6%A8%E0%A6%BF%E0%A7%9F%E0%A7%87-%E0%A6%B8%E0%A7%8D%E0%A6%B2%E0%A7%8B%E0%A6%AD%E0%A6%BE%E0%A6%95%E0%A6%BF%E0%A7%9F%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%B6%E0%A6%BF%E0%A6%B2%E0%A7%8D%E0%A6%AA%E0%A7%80%E0%A6%B0-%E0%A6%AD%E0%A6%BE%E0%A6%B8%E0%A7%8D%E0%A6%95%E0%A6%B0%E0%A7%8D%E0%A6%AF/a-61327298

প্রায় ৬০,০০০ কর্মঠ মৌমাছি কাজে ব্যস্ত৷ তাদের মোম দিয়ে নানা ভাস্কর্যের ত্রিমাত্রিক রূপ সৃষ্টি হয়৷ শিল্প ও প্রকৃতির মধ্যে মেলবন্ধন ঘটে৷ ভিজুয়াল আর্টিস্ট টোমাশ লিবার্টিনির মাথায় সেই আইডিয়া এসেছিল৷ সে বিষয়ে তিনি বলেন, ‘‘মৌমাছি নিয়ে কাজ করার পেছনে কাহিনিতে প্রথাবিরোধী নায়ক রাখার একটা তাগিদ কাজ করেছিল৷ প্রাণী হিসেবে মৌমাছি নাজুক মনে হলেও তাদের সৃষ্টি অনেক কাল স্থায়ী হয়, টিকে থাকে৷ মোটেই সাধারণ হিরোর মতো নয়৷’’

টোমাশ প্রাথমিক প্রস্তুতি সেরে বাকিটা প্রকৃতির হাতেই ছেড়ে দেন৷ নেদারল্যান্ডসের রটারডাম শহরে নিজের স্টুডিওতে তিনি নিজের আইডিয়ার খসড়া তৈরি করেন৷ প্রথমে কম্পিউটারের মাধ্যমে ভাস্কর্যের ফ্রেম সৃষ্টি করা হয়৷ তারপর তিনি হাতে করে তার বা কোনো প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে বাকি অংশ তৈরি করেন৷ সেই খাঁচাটিকে ঘিরে পরে মৌমাছি মোম দিয়ে মৌচাক গড়ে তোলে৷ মৌমাছি কী চায়, শিল্পী হিসেবে তিনি তা জানেন৷ টোমাশ বলেন, ‘‘আমি যখন এই সব ফ্রেম নিয়ে কাজ করি এবং নানা ধরনের ফ্রেম তৈরি করি, তখন আমাকে একটি বিষয় খেয়াল রাখতে হয়৷ সেটা হলো, মৌমাছি এমন বিলাসবহুল আকার পছন্দ করে এবং কনভেক্স ও কনকেভ আকারের মধ্যে পরিবর্তনও তাদের প্রিয়৷’’

মৌমাছির সাহায্য নিয়ে ভাস্কর্য

শহরের কেন্দ্রস্থলের কাছে টোমাশ লিবার্টিনির মৌচাকের সংগ্রহ৷ এক মৌমাছি পালনকারী সেগুলির দেখাশোনা করেন৷ মোম তৈরি করতে মৌমাছির অনেক শক্তির প্রয়োজন হয়৷ এপ্রিল থেকে জুলাই মাসের মধ্যেই সবচেয়ে বেশি মধু সৃষ্টি হয়৷ মৌমাছি পেটের গ্রন্থির সাহায্যে মোম আালাদা করে৷ পেছনের একটি পা দিয়ে কাঁচা মধু টেনে নিয়ে তাতে থুতু মিশিয়ে সেই মিশ্রণ দিয়ে মৌমাছি ধীরে ধীরে মৌচাক গড়ে তোলে৷

তবে টোমাশ মনে করিয়ে দিলেন, যে প্রকৃতির আচরণ পরিকল্পনা করা যায় না৷ তিনি বলেন, ‘‘মনে হচ্ছে বাইরে খুব ঠাণ্ডা৷ তাই সন্তানের সুরক্ষা মৌমাছির কাছে জরুরি৷ তাই মনে হয় গত কয়েক দিনে মৌমাছি তেমন বেশি নির্মাণ করে নি৷ সেটাই স্বাভাবিক এবং প্রত্যাশিত৷ কিন্তু নীচের দিকে কিছু তৎপরতা দেখা যাচ্ছে৷ খুব ভালো কথা৷’’

একটি ভাস্কর্য চূড়ান্তভাবে গড়ে তুলতে দুই সপ্তাহ থেকে দুই বছর পর্যন্ত সময় লাগতে পারে৷ আবহাওয়া ও আকার-আয়তনের উপর সবটা নির্ভর করে৷ টোমাশ বলেন, ‘‘আমার মতে, এই প্রকল্পও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ৷ মৌমাছি সংরক্ষণের বার্তাসহ সুন্দর শিল্পকর্ম সৃষ্টি হচ্ছে৷ এই প্রকল্প যেভাবে মনোরঞ্জনের মাধ্যমে ও নান্দনিকতা দিয়ে এমন ভাবনা প্রচার করছে, তাতে আমি যুক্ত থাকতে পেরে আনন্দিত৷’’

মোমের এমন ভাস্কর্য গোটা বিশ্বের একাধিক বিখ্যাত প্রতিষ্ঠানে শোভা পাচ্ছে৷ যেমন ‘নেফারটিটি’ নামের ভাস্কর্য প্রথমে রটারডামে লাইভ-ইনস্টলেশন ও তারপর আমস্টারডামে প্রদর্শিত হয়েছে৷ সুইজারল্যান্ডের মুডাক মিউজিয়ামে একটি শিল্পকর্মটি শোভা পাচ্ছে৷ এমনকি নিউ ইয়র্কের বিখ্যাত আধুনিক শিল্প মিউজিয়ামেও তাঁর একটি ভাস্কর্য রয়েছে৷

টেওডোরা মাভ্রোপুলুস/এসবি

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

Russland | Wladimir Putin hält Rede an die Nation

ইউক্রেনের আরো কিছু অংশ কেড়ে নিচ্ছে রাশিয়া

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ
প্রথম পাতায় যান