মোদীর বিরুদ্ধে পোস্টার, গ্রেপ্তার ২৪ | বিশ্ব | DW | 17.05.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ভারত

মোদীর বিরুদ্ধে পোস্টার, গ্রেপ্তার ২৪

প্রধানমন্ত্রী মোদীর বিরুদ্ধে পোস্টার লাগানোর জন্য দিল্লিতে গ্রেপ্তার ২৪ জন। সোচ্চার বিরোধীরা। প্রবল বিতর্ক।

প্রধানমন্ত্রী মোদীর বিরুদ্ধে পোস্টার লাগানোর অপরাধে দিল্লিতে গ্রেপ্তার বহু।

প্রধানমন্ত্রী মোদীর বিরুদ্ধে পোস্টার লাগানোর অপরাধে দিল্লিতে গ্রেপ্তার বহু।

দিল্লিতে এখন করোনার টিকা নিয়ে হাহাকার চলছে। চাহিদা বিশাল, কিন্তু জোগান নেই। এই অবস্থায় দিন কয়েক আগে দিল্লি জুড়ে একটা পোস্টার পড়েছিল, ব্যানার লাগানো হয়েছিল। কালোর উপরে সাদায় হিন্দিতে লেখা, 'মোদীজি, হামারে বাচ্চা কা ভ্যাক্সিন বিদেশ কিউ ভেজ দিয়া?' সহজ বাংলায়, 'মোদীজি, আমাদের বাচ্চার জন্য ভ্যাকসিন কেন বিদেশে পাঠিয়ে দিলেন?' এরপরই এই পোস্টার লাগানোর জন্য দিল্লিতে ২৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। দিল্লিতে পুলিশ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের অধীনে।

এরপরই রাহুল গান্ধী পোস্টারের ওই বাক্যবন্ধকে লিখে টুইট করেছেন, 'আমাকে গ্রেপ্তার করুক সরকার'। তারপর একের পর এক কংগ্রেস নেতা একই টুইট করতে থাকেন। কংগ্রেস সাংসদ জয়রাম রমেশ তো এই পোস্টার নিজের বাড়ির বাইরে লাগিয়ে দেন। সেকথা তিনি টুইট করে জানিয়েও দেন। কংগ্রেস নেতা পি চিদম্বরম জানিয়েছেন, ''বাকস্বাধীনতা আছে, শুধু প্রধানমন্ত্রীকে প্রশ্ন করা যাবে না।''

দিল্লির উপ মুখ্যমন্ত্রী মনীশ সিসোদিয়া ওই বাক্যবন্ধ টুইট করেছেন। তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র বলেছেন, ''এটা একেবারে বৈধ প্রশ্ন।''

পোস্টার লাগানোর জন্য কেন গ্রেপ্তার করা হলো ২৪ জনকে? দিল্লি পুলিশের বক্তব্য, লকডাউনের নিয়ম ভাঙা, অতিমারি আইন ভাঙা এবং সরকারি সম্পত্তি নোংরা করার দায়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে যাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে, তারা টাকা পেয়ে ওই পোস্টার লাগিয়েছেন।

পোস্টারে যে অভিযোগটা করা হয়েছে, তা কি যুক্তিযুক্ত? প্রবীণ সাংবাদিক জয়ন্ত ভট্টাচার্য ডয়চে ভেলেকে জানিয়েছেন, ''কোনো সন্দেহ নেই, টিকা বানাবার কাঁচামাল বিদেশ থেকে এসেছে। প্রতিবেশীদের কাছে, অন্য দেশগুলিতে টিকা পাঠানোর দায়ও ভারতের আছে। অনেক সময়ই এনিয়ে সমঝোতা থাকে।'' কিন্তু জয়ন্ত মনে করেন, ''পাঠাবার পর বলা হলো যে, আমরা ৭০টা দেশে ভ্যাকসিন পাঠিয়েছি, আমাদের দেশে যত টিকা দেয়া হয়েছে, তার থেকে বেশি পাঠিয়েছি, এটা কেন হবে? আগে ঘরেরটা দেখে তবে তো বাইরে পাঠাতে হবে।''

প্রশ্ন উঠছে, পোস্টার লাগানোর জন্য ২৪ জনকে কেন গ্রেপ্তার করা হলো? কংগ্রেসের মুখপাত্র এবং সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অভিষেক মণু সিংভি বলেছেন, ''কোন আইনে, কোন কর্তৃত্বে, কোন ক্ষমতাবলে পোস্টার মারার জন্য এতজনকে গ্রেপ্তার করা হলো?'' তার দাবি, যারা পোস্টার মেরেছিলেন, তারা সাধারণ মানুষ, দিনমজুর ও অটো চালক। জয়রাম রমেশের প্রশ্ন, ''দেশ কি এখন মোদী পেনাল কোড-এ চলছে?''

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানিয়েছে, আপ নেতা দুর্গেশ পাঠক দাবি করেছেন, ''এইসব পোস্টার আপ লাগিয়েছে। এই প্রশ্ন তোলার জন্য কাউকে গ্রেপ্তার করা যায় না। কারণ, আমরা গণতন্ত্রিক দেশে বাস করি।'' তার বক্তব্য, ''যদি কাউক গ্রেপ্তার করতে হয় তো আমাকে করুন। আপ বিধায়কদের করুন। যারা একশ-দুইশ টাকার বিনিময়ে পোস্টার লাগিয়েছে, তাদের কেন গ্রেপ্তার করা হচ্ছে?''

জিএইচ/এসজি(পিটিআই, দ্য ওয়্যার, ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস)

সংশ্লিষ্ট বিষয়