মেয়েদের উচ্চ-বিদ্যালয় আবার বন্ধ ঘোষণা করলো তালেবান | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 23.03.2022

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

আফগানিস্তান

মেয়েদের উচ্চ-বিদ্যালয় আবার বন্ধ ঘোষণা করলো তালেবান

মেয়েদের স্কুল খোলার সিদ্ধান্তের কয়েক ঘণ্টার মধ্যে ডিগবাজি তালেবানের৷ আফগান মেয়েদের জন্য আজ বুধবারই খুলেছিল স্কুলের দরজা৷ কিন্তু স্কুল খোলার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে বদল করা হলো সিদ্ধান্ত৷

তালেবানের নির্দেশ আসার পর ছাত্রীরা স্কুল থেকে চলে যাচ্ছে

তালেবানের নির্দেশ আসার পর ছাত্রীরা স্কুল থেকে চলে যাচ্ছে

ইসলামিক আইন অনুযায়ী, নির্দিষ্ট পরিকল্পনা করে পরবর্তীতে মেয়েদের উচ্চ বিদ্যালয়গুলি খোলা হবে- আপাতত এমনটাই জানিয়েছে আফগানিস্তানের তালেবান প্রশাসন৷

রাজধানী কাবুলের আশপাশের তিনটি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা জানিয়েছেন, স্কুলে ফিরতে পেরে বুধবার সকালে খুব খুশি হয়েছিলেন ছাত্রীরা৷ কিন্তু তাদের বাড়ি ফিরে যেতে বলা হয়৷ কান্নায় ভেঙে পড়েন অসংখ্য ছাত্রী৷ নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক এক ছাত্রী সংবাদসংস্থা রয়টার্সকে বলেন, ‘‘আমরা মারাত্মক হতাশ৷ এই সিদ্ধান্তের কথা আমাদের জানানোর সময় স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা নিজেও কেঁদে ফেলেন৷’’

১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত আফগানিস্তানের ক্ষমতা ছিল তালেবানের হাতে৷ সেই সময়ও নারীশিক্ষা এবং কর্মস্থানে নারীদের অংশ নেয়ার বিরুদ্ধে ফতোয়া জারি করেছিল তারা৷ আবারও নারীশিক্ষায় ‘কোপ’ পড়েছে তালেবান আমলে৷ জাতিসংঘ এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এই সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধিতা করেছে৷

Taliban ordnen die Schließung von Mädchenoberschulen in Afghanistan an

তালেবানের নির্দেশ আসার আগে বুধবার ক্লাসে ছাত্রীদের উপস্থিতি

গত সপ্তাহে তালেবান সরকারের শিক্ষামন্ত্রী দেশজুড়ে মেয়েদের সবকটি বিদ্যালয় খুলে দেয়ার কথা ঘোষণা করেছিলেন৷ সেই সিদ্ধান্তে আশার আলো দেখেছিলেন আফগানিস্তানের মেয়েরা৷ মঙ্গলবার সন্ধ্যায়ও শিক্ষা দপ্তরের এক মুখপাত্র পড়ুয়াদের শুভেচ্ছা জানিয়ে একটি ভিডিও প্রকাশ করেছিলেন৷ আচমকাই শিক্ষা দপ্তরের একটি বিজ্ঞপ্তিতে বুধবার সকালে দেখা যায় স্কুল বন্ধের কথা৷ সেখানে লেখা ছিল, আফগান সংস্কৃতি ও ইসলামিক আইন মেনে পরবর্তীতে মেয়েদের উচ্চ-বিদ্যালয়গুলি খোলা হবে৷ বিজ্ঞপ্তিতে আরো লেখা ছিল, ষষ্ঠ শ্রেণির উপরের ক্লাস রয়েছে, মেয়েদের ক্ষেত্রে এমন স্কুলগুলি আপাতত বন্ধ থাকবে৷

আফগানিস্তানে জাতিসংঘের প্রতিনিধি ইউএনএএমএ-র তরফে একটি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, এই সিদ্ধান্ত নিন্দনীয়৷ ষষ্ঠ শ্রেণির উপরের ক্লাসগুলির ক্ষেত্রে ছাত্রীদের জন্য অনির্দিষ্টকাল স্কুলের দরজা বন্ধ থাকবে৷ আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি বলেন, ‘‘এই সিদ্ধান্ত অত্যন্ত দুঃখজনক৷ ক্ষমতায় এসে তালেবান বেশ কিছু কথা বলে সবাইকে আশ্বস্ত করতে চাইছেন, কিন্তু ঠিক তার বিপরীত কাজ করছেন৷’’

আরকেসি/এসিবি (রয়টার্স)

গত ৪ জানুয়ারির ছবিঘরটি দেখুন..