1. কন্টেন্টে যান
  2. মূল মেন্যুতে যান
  3. আরো ডয়চে ভেলে সাইটে যান
 Bangladedsch Dhaka Unfall Kran Auto
ছবি: Kazi Salahuddin Razu/NurPhoto/picture alliance

মৃত্যু উপত্যকায় খুনের শাস্তি নাই

সমীর কুমার দে ঢাকা
১৬ আগস্ট ২০২২

সরকারি কোনো প্রকল্পের নির্মাণকাজে নিরাপত্তার বিষয়টি একেবারেই গুরুত্ব দেওয়া হয় না৷ কেন এই অবহেলা?

https://www.dw.com/bn/%E0%A6%AE%E0%A7%83%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%AF%E0%A7%81-%E0%A6%89%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%AF%E0%A6%95%E0%A6%BE%E0%A7%9F-%E0%A6%96%E0%A7%81%E0%A6%A8%E0%A7%87%E0%A6%B0-%E0%A6%B6%E0%A6%BE%E0%A6%B8%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%BF-%E0%A6%A8%E0%A6%BE%E0%A6%87/a-62823841

জানতে চাইলে বুয়েটের দুর্ঘটনা গবেষণা ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক মো. হাদিউজ্জামান ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘কারণ কারও জবাবদিহি নেই৷ আমরা কি কাউকে এই অবহেলার দায়ে শাস্তি দিতে পেরেছি? পারিনি৷ তাহলে এগুলো বন্ধ হবে কীভাবে? শাস্তি নিশ্চিত করলে এই অবহেলা কমে আসবে৷ আমি তো মনে করি, উত্তরায় যেটা হয়েছে সেটা কোনভাবেই দুর্ঘটনা নয়, এটা অবহেলাজনিত হত্যাকাণ্ড৷’’ 
সোমবার উত্তরায় বিআরটি প্রকল্পের বক্স গার্ডার পড়ে একটি প্রাইভেট কারের ৫ জন নিহত হয়েছেন৷ এটাই প্রথম কোন দুর্ঘটনা না৷ এর আগেও শুধু বিআরটি প্রকল্পে নানা দুর্ঘটনা ঘটেছে৷ ১০ বছর আগে চট্টগ্রামের বহদ্দারহাটে ঘটেছিল প্রথম গার্ডার দুর্ঘটনা৷ ২০১২ সালে দু’দফায় চট্টগ্রামের বহদ্দারহাটের ফ্লাইওভারের গার্ডার ভেঙে পড়েছিল৷ প্রথমবার ওই বছরের ২৯ জুন সেখানে ১৩০ ফুট দীর্ঘ কংক্রিটের গার্ডার ভেঙে পড়ে একজন রিকশাচালক আহত হয়েছিলেন৷ এরপর ওই বছরের ২৪ নভেম্বর ওই ফ্লাইওভারেরই তিনটি গার্ডার ভেঙে পড়ে ২৯ জন নিহত হয়েছিলেন৷ ওই ঘটনায় আহত হয়েছিলেন আরও অনেকে৷ ওই সময় চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী প্রকৌশলী, নির্মাণকাজে জড়িত মীর আক্তার অ্যান্ড পারিশা ট্রেড সিস্টেমসের (যৌথ মালিকানা) কর্মকর্তাসহ মোট ২৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা করে পুলিশ৷ তবে সেই মামলা এখনও চলছে৷ 
উত্তরার ঘটনায় সোমবার রাতেই সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের অতিরিক্ত সচিব নীলিমা আক্তারকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি করা হয়৷ ওই কমিটিকে মঙ্গলবার সকালের মধ্যেই প্রাথমিক রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছিল৷ সেই রিপোর্ট পাওয়ার পর মঙ্গলবার বিকেলে প্রেস ব্রিফিং করেছেন সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব এ বি এম আমিন উল্লাহ নুরী৷ তিনি রিপোর্টের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে বলেছেন, “এখানে চারটি কারণ তারা উল্লেখ করেছে৷ ঠিকাদারের গাফিলতি তো ছিলই৷ তার সঙ্গে ছুটির দিন কাউকে কিছু না জানিয়ে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কেন কাজ করতে গেল সেই প্রশ্নের উত্তরও মেলেনি৷ কারণ ছুটির দিন তাদের কাজ করার কথা না৷ ন্যূনতম পুলিশের ট্রাফিক বিভাগকে তাদের জানানো উচিৎ ছিল৷ মূল তদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ ব্যবস্থা নেওয়া হবে৷” 
তদন্ত কমিটির প্রধান অতিরিক্ত সচিব নীলিমা আক্তার ডয়চে ভেলেকে বলেন, “আমরা প্রাথমিক রিপোর্ট দিয়েছি৷ সেটার প্রেক্ষিতে সচিব মহোদয় ব্রিফ করেছেন৷ আমাদের পুরো অবজারবেশনই তিনি বলেছেন৷” 
ক্রেন চালক, ঠিকাদার কোম্পানির বিরুদ্ধে মামলা
ঢাকার উত্তরায় বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি) প্রকল্পের গার্ডার পড়ে হতাহতের ঘটনায় ‘অবহেলাজনিত মৃত্যুর’ অভিযোগে মামলা হয়েছে ঠিকাদার কোম্পানি, ক্রেন চালক এবং প্রকল্পের নিরাপত্তার দায়িত্বপ্রাপ্তদের বিরুদ্ধে৷ নিহত ফাহিমা আক্তার ও ঝরনা আক্তারের ভাই মো. আফরান মণ্ডল বাবু সোমবার রাতে উত্তরা পশ্চিম থানায় এ মামলা করেন৷
উত্তরা পশ্চিম থানার ওসি মোহাম্মদ মোহসীন বলেন, “মামলায় অবহেলার কারণে প্রাণহানির অভিযোগ করা হয়েছে৷ ক্রেইন চালকের পাশাপাশি প্রকল্পের অন্যতম ঠিকাদার কোম্পানি চায়না গ্যাঝুবা গ্রুপ করপোরেশনের (সিজিজিসি) সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি এবং নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে দায়িত্বপ্রাপ্ত অজ্ঞাত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে এই মামলা করা হয়েছে৷ দুর্ঘটনার সময় যিনি ক্রেন চালাচ্ছিলেন, তাকে গ্রেপ্তারে পুলিশ কাজ করছে৷ 
প্রকল্পের কাজ আপাতত বন্ধ 
বিআরটি প্রকল্পের কাজ আপাতত বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম৷ মঙ্গলবার উত্তরার জসীমউদ্দীন সড়কে দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গিয়ে মেয়র বলেন, এ প্রকল্প কাজ পরিচালনায় ন্যূনতম নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেই৷ ফলে কিছুদিন পরপরই দুর্ঘটনা ঘটছে৷ জনদুর্ভোগ বাড়ছে৷ এভাবে উন্নয়ন কাজ চলতে দেওয়া যাবে না৷ আগে নাগরিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে৷
আতিকুল ইসলাম বলেন, ঢাকায় বিআরটি, মেট্টোরেলসহ অনেকগুলো প্রকল্পের কাজ চলমান৷ সব প্রকল্পের পরিচালকদের আগামী বৃহস্পতিবার নগর ভবনে ডাকা হয়েছে৷ তারা নিরাপত্তার বিষয়টি নিশ্চিত করলেই কাজ শুরু করতে পারবে৷ তিনি বলেন, যেকোনো কাজের প্রথম শর্ত থাকে আগে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা৷ এখানে ওয়ার্ক সেফটি বলতে কিছুই ছিল না৷ কোথাও এই প্রকল্প সম্পর্কে সাইনবোর্ড নেই৷ নিরাপত্তার কথা বলা নেই৷ 
ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানকে কালো তালিকাভুক্ত করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর 
বিআরটি নির্মাণ প্রকল্পের ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানকে কালো তালিকাভুক্তকরার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা৷ একই সঙ্গে এ ঘটনায় দায়ী কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ারও নির্দেশ দিয়েছেন তিনি৷ মঙ্গলবার জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ নির্দেশ দেন বলে ডয়চে ভেলেকে জানিয়েছেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম৷ তিনি বলেন, একনেক বৈঠকে উত্তরার দুর্ঘটনার বিষয়ে প্রাথমিক প্রতিবেদন তুলে ধরেন সড়ক ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব এ বি এম আমিন উল্লাহ নুরী৷ প্রাথমিক প্রতিবেদনে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের গাফিলতির তথ্য জানা গেছে৷ প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, এ ঘটনার সঙ্গে যারা যারা জড়িত এবং যেই কোম্পানি জড়িত সবার বিরুদ্ধে তদন্ত-সাপেক্ষে ব্যবস্থা নিতে হবে৷ এছাড়া যেসব কোম্পানি কাজে দায়িত্বজ্ঞানহীন পরিচয় দেয় সেসব কোম্পানি কালো তালিকাভুক্ত করার জন্য বলেছেন তিনি৷
অবশেষে বোধোদয় বিআরটি এমডির
“আমরাও চাই পর্যাপ্ত নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে৷ আমাদের যে যে জায়গায় উন্নতি করতে হবে, সেগুলো ঠিক করতে হবে৷ কীভাবে নিরাপত্তা এনশিওর করব, সেগুলো নিয়ে বৃহস্পতিবার মেয়রের সঙ্গে বৈঠক করব৷” মঙ্গলবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে বিআরটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক সফিকুল ইসলাম একথা বলেন৷ তবে তিনি বক্স গার্ডার দুর্ঘটনায় পাঁচজনের মৃত্যুর দায় নিতে রাজি হননি৷ ঘটনাস্থলে তিনি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, এই প্রকল্পের কাজ আপাতত বন্ধ থাকবে৷ জনসাধারণের নিরাপত্তার বিষয়টি নিশ্চিত করার পর এ কাজ আবার শুরু হবে৷ তিনি বলেন, নিরাপত্তা বেষ্টনি তৈরি না করে ভারী যন্ত্র সরানোর সময় সেটি প্রাইভেট কারের ওপর পড়ে যাওয়ার ঘটনায় স্পষ্টতই অবহেলা ছিল কর্মীদের৷ তদন্ত কমিটিই ঠিক করবে দায় কার৷
আগেও একই ধরনের দূর্ঘটনা 
গত বছরের ১৪ মার্চ ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এলাকায় বিআরটি প্রকল্পের একটি গার্ডার লঞ্চার ভেঙে তিন চীনা কর্মীসহ ৬ জন আহত হন৷ এরপর দুই মাসের বেশি সময় পড়ে থাকার কারণে দুর্ভোগ পোহাতে হয় ওই পথে চলাচলকারীদের৷ ওই বছরের ১৮ জুন ক্রেনটি মেরামত করে সচল করা হয়৷ গত ১৫ জুলাই গাজীপুরে বিআরটি প্রকল্পের নির্মাণাধীন ফাইওভারের ‘লঞ্চিং গার্ডার’ চাপায় প্রকল্পটির এক নিরাপত্তারক্ষী নিহত হন৷ ওই ঘটনায় আরও আরেক শ্রমিক ও একজন পথচারী আহত হন৷ 
২০১৭ সালের ১২ মার্চ রাতে ঢাকার মালিবাগ রেলগেইট এলাকায় নির্মাণাধীন মগবাজার-মৌচাক ফাইওভারের ৩৬ মিটার দীর্ঘ গার্ডার ভেঙে পড়ে৷ রেললাইনের উপরের ওই ঘটনায় একজন শ্রমিকের মৃত্যু হয়৷ একটি করে পা হারান আরও ২ জন৷ 
বারবার একইভাবে দুর্ঘটনা ঘটছে৷ কিন্তু কেন ব্যবস্থা নেওয়া যায় না? জানতে চাইলে সড়ক ও জনপথ বিভাগের সাবেক প্রধান প্রকৌশলী আব্দুস সবুর ডয়চে ভেলেকে বলেন, “এখানে স্পষ্টই অবহেলা থাকে৷ তা না হলে দুর্ঘটনা ঘটে না৷ একটি প্রতিষ্ঠান যখন কাজ করে তখন নিরাপত্তার বিষয়ে বেশ কিছু নির্দেশনা থাকে৷ সেটা তারা মানে না বলেই দুর্ঘটনা ঘটে৷ যারা সুপারভিশনের দায়িত্বে থাকেন বিষয়টি নিশ্চিত করার দায়িত্ব তাদের৷”  
অধ্যাপক হাদিউজ্জামান নিরাপত্তা-বেষ্টনি ছাড়া আরও তিনটি প্রশ্ন তুলেছেন এই নির্মাণকাজ নিয়ে৷ তিনি বলেন, ক্রেন ঠিক আছে কি না৷ তার আগে দেখতে হবে ক্রেন যে অপারেট করছিল, তার লাইসেন্স আছে কি না৷ সে অভিজ্ঞ কি না, এটাও তদন্তের মাধ্যমে দেখতে হবে৷ আমার গার্ডারের যে ওজন এবং ক্রেনের যে সমতা, সেটা ঠিক আছে কি না৷ এই জিনিসটাও গুরুত্বপূর্ণ৷ এখানে প্রশাসনিক অবহেলা আছে বলেও মনে করেন এই বিশেষজ্ঞ৷ 
তবে সড়ক বিভাগের নতুন সচিব এবিএম আমিন উল্লাহ নুরী বলেছেন, যে ক্রেনটি দিয়ে গার্ডার তোলা হচ্ছিল সেটার ধারণ ক্ষমতা ৮০ টন৷ আর গার্ডারটি ওজন ছিল ৭০ টন৷ রাস্তায় কাজ চলার কারণে উঁচু-নিচু ছিল৷ ক্রেনের একদিক উঁচুতে ছিল, আরেকদিক নিচুতে ছিল৷ ফলে এটা উল্টে যায়৷ ওই ক্রেনটাই কিন্তু পরে গার্ডার সরিয়েছে৷ 
সোমবার বিকেলে বি আরটি প্রকল্পের বক্স গার্ডার প্রাইভেট কারের উপর পড়ে দুই শিশুসহ পাঁচ জন নিহত হন৷ এ দুর্ঘটনায় নববিবাহিত স্বামী স্ত্রী প্রাণে বেঁচে গেলেও আহত হয়েছেন৷ 
 

এ বি এম আমিন উল্লাহ নুরী

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

Mural für Masha Amini

কুর্দি যোদ্ধাদের ঘাঁটিতে ইরানের হামলা

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ
প্রথম পাতায় যান