মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের উপর হত্যাযজ্ঞ অব্যাহত: জাতিসংঘ | বিশ্ব | DW | 25.10.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

রোহিঙ্গা সংকট

মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের উপর হত্যাযজ্ঞ অব্যাহত: জাতিসংঘ

মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলমানদের উপর হত্যাযজ্ঞ অব্যাহত আছে বলে জানিয়েছেন জাতিসংঘের তদন্তকারীরা৷ বুধবার তাঁরা নিরাপত্তা পরিষদে এ সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন জমা দিয়েছেন৷

নির্যাতন থেকে বাঁচতে গতবছর কয়েক লক্ষ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে যান

নির্যাতন থেকে বাঁচতে গতবছর কয়েক লক্ষ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে যান

আন্তর্জাতিক ট্রাইব্যুনালে এর বিচার দাবি করেছেন তাঁরা৷ জাতিসংঘের ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং মিশনের চেয়ারম্যান মারজুকি দারুসমান জানিয়েছেন, গণহত্যার পাশাপাশি রোহিঙ্গাদের জন্মহার কমানো এবং বিভিন্ন শরণার্থী শিবিরে স্থানান্তরও চলছে৷ এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘‘এটা চলমান গণহত্যা৷’’ ৪৪৪ পৃষ্ঠার এই প্রতিবেদনে বিভিন্ন ঘটনার উল্লেখ রয়েছে৷ সেগুলো তুলে ধরে তিনি বলেন, হেগে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে এসবের বিচার হওয়া উচিত অথবা যুগোস্লাভিয়ার নতুন কোনো ট্রাইব্যুনাল গঠন করা যেতে পারে

রিপোর্টে আরও বলা হয়েছে, মিয়ানমারের সেনাপ্রধানসহ শীর্ষ সেনাকর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে রাখাইনে গণহত্যা চালানোর অপরাধে অবশ্যই বিচারের মুখোমুখি করা উচিত৷ গত বছর রাখাইনে সহিংসতা শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে ৭ লাখ ২০ হাজার রোহিঙ্গা৷ এই সহিংসতায় ৩৯০টি গ্রাম পুরোপুরি নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে, নিহত হয়েছে ১০ হাজার রোহিঙ্গা৷

জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক বিশেষ তদন্ত কর্মকর্তা ইয়াংহি লি বলেছেন, ‘‘শান্তিতে নোবেল জয়ী নেত্রী অং সান সুচি ক্ষমতায় আসার পর পরিস্থিতি অনেক বদলে যাবে বলে ধারণা করেছিলেন আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়৷ কিন্তু বাস্তবতা হলো অতীত পরিস্থিতির কোনো পরিবর্তনই হয়নি, বরং আরো খারাপ হয়েছে৷’’

মারজুকি দারুসমান হুঁশিয়ার করে বলেন, মিয়ানমারের বর্তমান পরিস্থিতি রোহিঙ্গাদের জন্য একেবারেই নিরাপদ নয়৷ ফলে বাংলাদেশ থেকে তাঁদের ফিরিয়ে দেয়ার প্রশ্নই ওঠে না৷  এরকম ঘটনা ঘটলে আরো অনেক মানুষের প্রাণহানির সম্ভাবনা তৈরি হবে বলে আশংকা প্রকাশ করেন তিনি৷ 

মিয়ানমার সরকার যথারীতি জাতিসংঘের এই তদন্ত প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান করেছে৷ এর নির্ভরযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে তারা৷ এশিয়ার কূটনীতিকদের নিয়ে একটি স্বতন্ত্র তদন্ত কমিশন গঠনের কথা জানিয়েছে তারা৷ তবে জাতিসংঘের ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং মিশন জানিয়েছে, তাদের তদন্তে এমন সব তথ্য-প্রমাণ রয়েছে, যাতে স্পষ্টই বোঝা যায়, রোহিঙ্গাদের পুরোপুরি নির্মূল করতেই মিয়ানমার এই নিপীড়নের পথ বেছে নিয়েছে৷

এপিবি/এসিবি (এপি, এএফপি, রয়টার্স)

২৩ আগস্টের ছবিঘরটি দেখুন...

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন