মাশরাফি ভাইরাল | বিশ্ব | DW | 28.09.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ভাইরাল ভিডিও

মাশরাফি ভাইরাল

শরীরের নানা জায়গায় ইনজুরি৷ বছরের পর বছর ধরে অপারেশন৷ কিন্তু বীরের বেশে বাংলাদেশের জার্সি গায়ে ঠিকই বারবার মাঠে ফিরে এসেছেন টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা৷ ঘটাচ্ছেন অসাধারণ সব কাণ্ড৷

জীবনের মায়া কার নেই? উত্তরটা হওয়া উচিত, সবারই আছে৷ কিন্তু সে উত্তরটা বারবার কঠিন করে দিচ্ছেন মাশরাফি৷

এমনকি ডাক্তারও তাঁকে সাবধান করে দিয়েছেন বারবার৷ সামান্য অসতর্কতায় চিরতরে পঙ্গু হয়ে যেতে পারেন৷ কিন্তু কে শোনে কার কথা!

একাধিক ইনজুরি নিয়েও সবার সামনে থেকে বছরের পর বছর টাইগার টিমকে নেতৃত্ব দিয়ে যাচ্ছেন মাশরাফি৷ শুধু তাই নয়, প্রায় প্রতিটি ম্যাচেই পূর্ণ করছেন পুরো ১০ ওভারের কোটা৷

কিন্তু বুধবার যা করলেন পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচে, তা সত্যিই বিশ্ববাসী মনে রাখবে অনেকদিন৷

পাকিস্তানি ব্যাটসম্যান শোয়েব মালিক তখন ক্রিজে৷ আভাস দিচ্ছেন ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠার৷ মাত্র ২৩৯ রানের পুঁজি নিয়ে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ৷

ব্যাটসম্যানের লেগ সাইডে ক্রিজ থেকে মাত্র দুই মিটার দূরে দাঁড়িয়ে আছেন টাইগার অধিনায়ক৷ রুবেল হোসেনের করা একটি বল ব্যাটে লেগে মাশরাফির প্রায় দুই হাত দূর দিয়ে উড়ে যাচ্ছিল৷

কিন্তু মাশরাফি জানেন, পাকিস্তানের কফিনে পেরেক ঠুকতে যেভাবে হোক আউট করতেই হবে শোয়েব মালিককে৷ আর মানুষটা যখন মাশরাফি, তখন শরীরের কথা কি আর চিন্তায় থাকে৷

ঠিকই পুরো শরীর শূন্যে মেলে দিয়ে বাম দিকে ঝাঁপিয়ে পড়ে এক হাতে ধরলেন অসাধারণ এক ক্যাচ৷ তারপরই বল হাতে দাঁড়িয়ে হাত উঁচিয়ে জানান দিলেন, তিনি থাকতে হারার আগে কখনোই হারবে না বাংলাদেশ, লড়াই চলবে শেষ পর্যন্ত৷

ধারাভাষ্যকার তো বটেই, অবাক গ্যালারিভর্তি দর্শকও৷ হবেন না-ই বা কেন? এই ক্যাচ ধরতে মাশরাফির রিঅ্যাকশন টাইম ছিল কেবল ০ দশমিক ৮৪ সেকেন্ড৷

এই ক্যাচ নেয়ায় মাশরাফির বাম হাতের কড়ে আঙুলে চিড় ধরেছে৷ আশঙ্কা জেগেছিল, ফাইনালে খেলতে পারবেন কিনা৷ উত্তর দিয়েছেন মাশরাফিই, ‘‘সাকিব ভাঙা হাত নিয়ে একের পর এক ম্যাচ খেলতে পারলে, আমি একটা ফাইনাল খেলতে পারবো না?''

পাকিস্তানের গণমাধ্যমও এই ক্যাচের প্রশংসায় পঞ্চমুখ না হয়ে পারেনি৷ পিটিভির ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করা ভিডিওটি এরই মধ্যে দেখেছেন সোয়া এক লাখেরও বেশি মানুষ৷

এডিকে/এসিবি

গতবছরের এপ্রিলের ছবিঘরটি দেখুন...

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন