মালদ্বীপে জরুরি অবস্থা, প্রধান বিচারপতি আটক | বিশ্ব | DW | 06.02.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

মালদ্বীপ

মালদ্বীপে জরুরি অবস্থা, প্রধান বিচারপতি আটক

মঙ্গলবার সকালে সুপ্রিম কোর্ট থেকে প্রধান বিচারপতি আব্দুল্লা সাইদসহ আরেক বিচারককে আটক করা হয়েছে৷ এ সময় সেখানে উপস্থিত শত শত মানুষকে সরাতে মরিচের গুঁড়া ব্যবহার করে নিরাপত্তা বাহিনী৷

ভিডিও দেখুন 01:36
এখন লাইভ
01:36 মিনিট

মাঝরাতে জরুরি অবস্থা

এর আগে সোমবার ১৫ দিনের জন্য জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেন প্রেসিডেন্ট আব্দুল্লা ইয়ামিন৷

গত বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্ট এক রায়ে নয় জন রাজনৈতিক ভিন্নমতাবলম্বীকে মুক্তির নির্দেশ দেন৷ এছাড়া প্রেসিডেন্ট ইয়ামিনের দল থেকে সরে যাওয়ায় যে ১২ জন সাংসদকে বহিষ্কার করা হয়েছিল, তাঁদেরও ফিরিয়ে আনার রায় দিয়েছিলেন সুপ্রিম কোর্ট৷

উল্লেখ্য, বর্তমানে সংসদে মালদ্বীপের বিরোধী দলের সংখ্যাগরিষ্ঠতা আছে৷ ফলে চাইলে সংসদ প্রেসিডেন্টকে অভিশংসিত করতে পারে সংসদ৷

এই অবস্থায় ক্ষমতা ধরে রাখতে প্রেসিডেন্ট ইয়ামিন জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছেন৷ ফলে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনীর কাউকে গ্রেপ্তার করার ক্ষমতা বাড়বে, বিচার ব্যবস্থার ক্ষমতা কমবে এবং সংসদ প্রেসিডেন্টকে অভিশংসিত করতে পারবে না৷ অবশ্য কর্মকর্তারা বলছেন, জরুরি অবস্থার বিষয়টি দু'দিনের মধ্যে সংসদকে জানাতে হবে৷

২০১৩ সালে ক্ষমতা গ্রহণের পর থেকে প্রেসিডেন্ট ইয়ামিনের সরকার প্রায় সব বিরোধী রাজনৈতিক ভিন্নমতাবলম্বীদের গ্রেপ্তার করেছে৷ এমনকি তাঁর সৎ ভাই ও ৩০ বছর প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করা মাউমুন আব্দুল গাইয়ুমকে গ্রেপ্তারেরও নির্দেশ দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ইয়ামিন৷ সম্প্রতি বিরোধী দলের পক্ষ নিয়েছিলেন গাইয়ুম৷ সোমবার মধ্যরাতে মালে-র বাসা থেকে গাইয়ুমকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয় বলে টুইটে জানিয়েছেন তাঁর মেয়ে ইয়ুমনা গাইয়ুম৷

প্রধান বিচারপতিসহ আরেক বিচারকের বিরুদ্ধে দুর্নীতির তদন্ত চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ৷ এদিকে, সরকারের মুখপাত্র ইব্রাহিম হুসেইন শিহাব এক বিবৃতিতে বলেন, ‘‘সুপ্রিম কোর্টের রায় দেশের সর্বোচ্চ কর্তৃপক্ষ, সংবিধানের পরিপন্থি৷'' তিনি বলেন, ‘‘সুপ্রিম কোর্টকে মনে রাখতে হবে যে, তারাও আইনের আওতায়৷''

Maledivischer Präsident Yameen Abdul Gayoom (picture-alliance/M.Sharuhaan)

দেহরক্ষীদের প্রহরায় মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট আব্দুল্লা ইয়ামিন

সুপ্রিম কোর্টের রায়ের কারণে ২০০৮ সালে মালদ্বীপের প্রথম গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ নাশিদের এ বছরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অংশ নেয়ার পথ সুগম হয়েছে৷ এক বিবৃতিতে তিনি প্রেসিডেন্ট ইয়ামিনকে সরাতে ভারত ও যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা চেয়েছেন৷

এদিকে, মালদ্বীপে জরুরি অবস্থা জারির খবর ‘হতাশা' প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র৷ প্রেসিডেন্ট ইয়ামিন পরিকল্পিতভাবে প্রায় সব শীর্ষ বিরোধী রাজনীতিককে গ্রেপ্তার করিয়েছেন বলে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে৷

প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য হটলাইন

মালে-র বাংলাদেশ দূতাবাস সোমবার এক জরুরি বিজ্ঞপ্তিতে মালদ্বীপে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে অবস্থান না করার পরামর্শ দিয়েছে৷ এছাড়া অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতিতে পরামর্শের জন্য একটি হটলাইনও চালু করা হয়েছে, যার নম্বর +৯৬০৩৩২০৮৫৯৷

Malediven, Demonstranten der maledivischen Opposition rufen Parolen, die während eines Protestes die Freilassung politischer Gefangener fordern (picture-alliance/M.Sharuhaan)

বিরোধী দলের বিক্ষোভ

জেডএইচ/ডিজি (এএফপি, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

বিজ্ঞাপন