মানুষ কেন বাংলা শিখছে না এটাই আমার প্রশ্ন: অধ্যাপক হান্স হার্ডার | বিশ্ব | DW | 03.09.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ডিডাব্লিউ ক্যাম্পাস

মানুষ কেন বাংলা শিখছে না এটাই আমার প্রশ্ন: অধ্যাপক হান্স হার্ডার

ডয়চে ভেলেকে দেয়া সাক্ষাৎকারে জার্মানির হাইডেলবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক হান্স হার্ডার বলেছেন, ‘‘এত লোক ফরাসি পড়ছে, স্প্যানিশ পড়ছে৷ বাংলা কেন পড়ছে না সেটাই আমার প্রশ্ন৷''

ডয়চে ভেলে বাংলা বিভাগের প্রধান খালেদ মুহিউদ্দীন জার্মানির হাইডেলবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের দক্ষিণ এশিয়া ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক হান্স হার্ডারের সাক্ষাৎকার নিয়েছেন৷ সেখানে অধ্যাপক হার্ডার বাংলা সাহিত্য, ভাষা, রাজনীতি ও জার্মানিতে উচ্চশিক্ষা নিয়ে অনেক কথা বলেছেন৷ বাংলা ভাষা, সাহিত্য ও সংস্কৃতি নিয়ে বিস্তর গবেষণা করা এই জার্মান অধ্যাপককে প্রশ্ন করা হয়, বাণিজ্যিক মূল্য না থাকলে কেন মানুষ নির্দিষ্ট একটি ভাষা শিখবে? জবাবে তিনি বলেন, ‘‘বাংলা কিন্তু দুনিয়ায় ষষ্ঠ বা সপ্তম স্থানে৷ সংখ্যার দিক থেকে৷ তাহলে এমন একটি ভাষা পড়লে কিছু হবে না? নিশ্চয়ই হবে৷ এত লোক ফরাসি পড়ছে, স্প্যানিশ পড়ছে৷ বাংলা কেন পড়ছে না সেটাই আমার প্রশ্ন৷''


তিনি বলেন, বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গের মধ্যবিত্তরা তাদের বাচ্চাদের ইংরেজি মিডিয়ামের দিকে বেশি ঝুঁকিয়ে দিচ্ছেন, সেটাতে দোষ নেই যদি তারা নিজের ভাষাকেও যথেষ্ট সম্মান দিতে পারেন৷ ‘‘মধ্যবিত্ত বাঙালিদের মধ্যে বাংলাদেশ বা পশ্চিমবঙ্গ হোক, (ইংরেজির দিকে ঝুঁকে পড়া) এটা ঘটছে৷ আমি এটার বেশি সমালোচনা করব না৷ এটা হয়৷ কিন্তু আমাদের শিক্ষাব্যবস্থায় এমন ব্যবস্থা রাখতে হবে যেন দু'টো ভাষাই শিখতে পারে৷ নিজের ভাষার অবহেলা করা একটা আত্মবিরোধ,'' বলেন হার্ডার৷
অধ্যাপক বলেন, একটি ভাষায় আরেকটি ভাষার শব্দ যেমন ঢুকে যেতে পারে, তেমনি প্রত্যেক ভাষাকে নিজের স্বকীয়তাও বজায় রাখতে হবে৷
‘‘৫০ বা ৬০টা ইংরেজি শব্দ আমার জার্মান ভাষায় ঢুকলে কী হবে? কিছুই হবে না৷ তবে ভাষাগুলোকে একটু আলাদাও রাখা দরকার৷''
তিনি যোগ করেন, ‘‘বাংলাদেশ, জার্মানি, ফিনল্যান্ড হোক, ইংরেজি ছাড়া আমরা পারছি না৷ ইংরেজি দরকার৷ বিশ্বায়নের ফলে সবাই সবার সঙ্গে কথা বলছে, তাই একটা আন্তর্জাতিক ভাষা দরকার৷ কিন্তু সুন্দর একটা সমন্বয়, সমঝোতাও দরকার৷ ইংরেজি ভাষার জন্য আমরা আমাদের ভাষা বাদ দেব, প্রত্যাখ্যান করব, তা ঠিক নয়৷ এটা সাংস্কৃতিক শিক্ষার অভাব বা সাংস্কৃতিক বোকামি৷''
বাংলা সাহিত্য নিয়ে হার্ডার বলেন, এখানকার সাহিত্যে ঔপনিবেশিক বা ইউরোপের প্রভাব আছে৷ কিন্তু অনেক কাজই মৌলিক৷ এখানকার লোকসাহিত্য ও সংস্কৃতির নিজস্ব স্বকীয়তা আছে বলে মনে করেন তিনি৷
হাইডেলবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়সহ জার্মানি উচ্চশিক্ষার জন্য বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গসহ বিশ্বের অনেক দেশের শিক্ষার্থীদের জন্য ভালো গন্তব্য বলে মনে করেন হার্ডার৷ তিনি বলেন, ‘‘আপনি যদি যুক্তরাজ্যের সঙ্গে বা অ্যামেরিকার সঙ্গে তুলনা করেন, তাহলে এখানে উচ্চশিক্ষার খরচ নেই বললেই চলে৷''

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন