মানবাধিকারবাদী চিকিৎসক বিনায়ক সেনের জামিনের আর্জি | বিশ্ব | DW | 24.01.2011
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

মানবাধিকারবাদী চিকিৎসক বিনায়ক সেনের জামিনের আর্জি

রাষ্ট্রদ্রোহিতার কথিত অভিযোগে ছত্তিসগড় আদালতে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত ডা: বিনায়ক সেনের জামিনের আর্জির শুনানি আজ শুরু হয় রাজ্যের উচ্চ আদালতে৷ আগামিকালও তা চলবে৷

default

বিনায়ক সেন

বিচার প্রক্রিয়া পর্যবেক্ষণে আদালতে উপস্থিত ছিলেন ইওরোপীয় ইউনিয়নের এক প্রতিনিধিদল৷

একমাস আগে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগে ডাক্তার বিনায়ক সেনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দেন ছত্তিসগড় রাজ্যের নিম্নআদালত৷ এই শাস্তিকে চ্যালেঞ্জ করেন ডা: সেন৷ তাঁর জামিনের আর্জি জানিয়ে আজ তাঁর পক্ষে হাইকোর্টে সওয়াল করেন ভারতের খ্যাতনামা আইনজীবী এবং বিজেপি সাংসদ রাম জেঠমালানি তাঁর দলের সরকারের বিরুদ্ধে৷ শুনানি আগামিকালও চলবে৷আদালতের বিচার প্রক্রিয়া পর্যবেক্ষণ করতে বিলাসপুর আদালতে উপস্থিত ছিলেন নতুনদিল্লির ইউরোপীয় ইউনিয়নের আট সদস্যের এক কূটনৈতিক প্রতিনিধিদল৷ প্রতিনিধিদলে ছিলেন জার্মানি ছাড়াও ফ্রান্স ব্রিটেন, হাঙ্গেরি, সুইডেন, ডেনমার্ক ও বেলজিয়াম৷

ইউ প্রতিনিধিদল রায়পুর বিমানবন্দরে পৌঁছোলে তাঁদের কালো পতাকা দেখানো হয় এবং ইউ ফিরে যাও শ্লোগান দেয় বিজেপি শাসিত ছত্তিসগড়ের বার কাউন্সিল ও বিজেপির ছাত্র সংগঠনের সদস্যরা৷ প্রতিবাদকারীদের মতে, ইউ প্রতিনিধিরা ভারতের বিচার প্রক্রিয়াকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করছে যেটা বরদাস্ত করা হবে না৷ পর্যবেক্ষকদের স্বাগত জানিয়ে ডাক্তার সেনের পরিবার বলেছে, গোটা দুনিয়া জানে ডাক্তার সেনের প্রতি অবিচার করা হয়েছে৷

উল্লেখ্য, এর আগে জাতিসঙ্ঘের প্রতিনিধি ভারতে মানবাধিকার পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে এসে ডাক্তার সেনের মামলার আইনি প্রক্রিয়া সম্পর্কে খোঁজখবর করেন এবং মামলার চূড়ান্ত রায়ের জন্য অপেক্ষা করেন৷

৬১ বছর বয়সী ডাক্তার বিনায়ক সেনের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি কলকাতার ব্যবসায়ী পীযুষ গুহ এবং মাওবাদী তাত্ত্বিক জেলবন্দি নারায়ণ সান্ন্যালের মধ্যে পত্রবাহকের কাজ করতেন৷ ডাক্তার সেনের আইনজীবীর মতে, পুলিশ এর স্বপক্ষে যেসব সাক্ষ্যপ্রমাণ পেশ করে তা বিকৃত ও সাজানো৷

প্রতিবেদন: অনিল চট্টোপাধ্যায়, নতুনদিল্লি

সম্পাদনা: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী