1. কন্টেন্টে যান
  2. মূল মেন্যুতে যান
  3. আরো ডয়চে ভেলে সাইটে যান
A handout photo provided by CNES/CSG shows Ariane 5 rocket launching from Europe's Spaceport in Kourou, French Guiana, 10 November 2012. Reports state that the mission intends to place two telecommunications satellites, Eutelsat-21B and Star One-C3, into orbit. EPA/S MARTIN / HANDOUT REPEAT WITH RESTRICTIONS HANDOUT EDITORIAL USE ONLY/NO SALES (zu dpa: "Europas Raumfahrt stellt Weichen - Deutsch-französischer Konsens" vom 21.11.2012) +++(c) dpa - Bildfunk+++
ছবি: picture-alliance/dpa

ইউরোপের বাজেট

৪ ডিসেম্বর ২০১২

আগামী পাঁচ বছর মহাকাশ গবেষণার জন্য ১০.১ বিলিয়ন ইউরোর বাজেট পাস করেছেন ইউরোপীয় মহাকাশ সংস্থা ইসা-র সদস্য রাষ্ট্রের বিজ্ঞানমন্ত্রীরা৷ প্রতি চার বছর পর পর তারা বৈঠকে মিলিত হন৷

https://p.dw.com/p/16vHW

ইটালির নেপোলিতে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়েছে৷ সেখানে আলোচনার জন্য নির্ধারিত বেশিরভাগ বিষয়ে আগে থেকেই সিদ্ধান্ত হয়ে থাকে৷ এবারও তেমনটাই হয়েছিল৷ তবে তারপরও সম্মেলনে মন্ত্রীদের একটা বিষয় নিয়ে বেশ মাথা ঘামাতে হয়েছে৷ সেটা আরিয়ান রকেট নিয়ে৷ ইসা-র তৈরি এই রকেটের এখন পঞ্চম সংস্করণ চলছে৷

আরিয়ান রকেটের উন্নয়ন নিয়ে ইসা-র সবচেয়ে বড় দুই অর্থ দাতা দেশ জার্মানি ও ফ্রান্সের দু'রকমের প্রস্তাব ছিল৷ অনেক আলোচনার পর এক্ষেত্রে জার্মানির প্রস্তাবকেই মেনে নিয়েছেন মন্ত্রীরা৷ ফলে ‘আরিয়ান ৫'-কে আর একটু উন্নত করে ২০১৭ সালের মধ্যে কাজে লাগানো হবে৷ এই সংস্করণের নাম দেয়া হয়েছে ‘আরিয়ান ৫এমই' অর্থাৎ ‘মিড-লাইফ ইভোলিউশন'৷

ESA - ATV
ফ্রান্সের প্রস্তাব ছিল আরিয়ান-এর নতুন সংস্করণ অর্থাৎ ‘আরিয়ান ৬’ তৈরি করাছবি: ESA

ফ্রান্সের প্রস্তাব ছিল আরিয়ান-এর নতুন সংস্করণ অর্থাৎ ‘আরিয়ান ৬' তৈরি করা৷ কিন্তু সেটা করতে গেলে অপেক্ষা করতে হবে ২০২১ সাল পর্যন্ত৷ ততদিন পর্যন্ত অপেক্ষা করতে রাজি হয়নি ইসা-র সদস্য রাষ্ট্রগুলো৷ তারপরও ফ্রান্সের কথা রাখতে আরিয়ান ৬-এর কার্যক্রম চালিয়ে যেতে সম্মত হন মন্ত্রীরা এবং এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে ২০১৪ সালে আবারও বৈঠকে বসার কথা রয়েছে৷

আরিয়ান-এর ক্ষেত্রে জার্মানির জয় হলেও তাদের দেয়া অন্য একটি প্রস্তাব সম্মেলন শুরুর আগেই বাদ হয়ে যায়৷ সেটা ছিল ২০১৮ সালে চাঁদে একটা স্বয়ংক্রিয় ল্যান্ডার নামানো৷

এদিকে মঙ্গল অভিযান নিয়ে ইসা-র ‘এক্সোমার্স' নামের যে প্রকল্প রয়েছে তাতে আগে যৌথভাবে থাকার কথা ছিল যুক্তরাষ্ট্রের৷ কিন্তু এ বছরের শুরুতে যুক্তরাষ্ট্র জানিয়ে দিয়েছে যে তারা এজন্য টাকা দিতে পারবে না৷ ফলে এক্সোমার্স প্রকল্পের ভবিষ্যৎ নিয়ে আশঙ্কা দেখা দিয়েছিল৷ তবে নেপোলিতে মন্ত্রীরা এই প্রকল্পের জন্য রাশিয়ার মহাকাশ সংস্থা রসকসমস-কে সঙ্গে নেয়ার ব্যাপারে কথাবার্তা শুরু করেছেন৷

এক্সোমার্স প্রকল্পে যুক্তরাষ্ট্র ইউরোপের সঙ্গ ছেড়ে দিলেও যুক্তরাষ্ট্রের প্রস্তাবিত মহাকাশযান ‘ওরিয়ন' তৈরির জন্য সাড়ে চারশো মিলিয়ন ইউরো দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইসা৷ এই যানে করে বিজ্ঞানীরা মহাকাশে যেতে পারবেন৷ মোট অর্থের মধ্যে ব্রিটেন দেবে ২০ মিলিয়ন ইউরো৷ এটা তাদের জন্য একটি ঐতিহাসিক ঘটনা৷ কেননা আন্তর্জাতিক মহাকাশ কেন্দ্র, আইএসএস গড়ে তোলার চুক্তিতে ব্রিটেন স্বাক্ষর করলেও এতদিন তারা একটা পয়সাও দেয়নি৷ এমনকি তাদের নিজেদের মহাকাশ বিজ্ঞানী টিম পেকে-র জন্যও অর্থ দিতে চায়নি ব্রিটেন৷ সেই দেশ এবার মহাকাশ যানের জন্য অর্থ দিচ্ছে৷ তবে এর পক্ষে ব্রিটিশ মন্ত্রী ডেভিড উইলেটস বলছেন, এই যান তৈরির সময় কয়েকটি ব্রিটিশ কোম্পানি কাজ পাবে বলে তাঁর আশা৷

Automated Transfer Vehicle ATV Raumfahrt
আগামী পাঁচ বছর মহাকাশ গবেষণার জন্য ১০.১ বিলিয়ন ইউরোর বাজেট পাস করেছেন ইউরোপীয় মহাকাশ সংস্থা ইসা-র সদস্য রাষ্ট্রের বিজ্ঞানমন্ত্রীরাছবি: ESA

কারণ যেটাই হোক ব্রিটেন এই প্রকল্পে অর্থ দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়ায় আনন্দ প্রকাশ করেছেন সম্মেলনে জার্মান প্রতিনিধি দলের অন্যতম সদস্য অধ্যাপক ইয়ান ভ্যোয়েনের৷

আগামী পাঁচ বছরের জন্য ইসা মোট ১২ বিলিয়ন ডলারের বাজেট চেয়েছিল৷ এর মধ্যে পেয়েছে ১০.১ বিলিয়ন ডলার৷ তবে তাতেই বেশ খুশি সংস্থার মহাপরিচালক জ্যঁ জ্যাক দোরদা৷ কেননা এই আর্থিক সংকটের যুগে এই টাকাটা পাওয়ারও আশা ছিল না তাঁর৷ দোরদা বলেন, ‘‘আসলে সদস্য রাষ্ট্রগুলো বুঝতে পেরেছে যে, মহাকাশ গবেষণায় টাকা দেয়াটা খরচ নয়, এটা এক ধরণের বিনিয়োগ৷''

ইসার মোট বাজেটের মধ্যে সবচেয়ে বেশি অর্থ দেবে জার্মানি৷ যার পরিমাণ ২.৬ বিলিয়ন ডলার৷ এরপরেই থাকছে ফ্রান্স৷ তারা দেবে ২.৩ বিলিয়ন৷ এরপর দেড় বিলিয়ন ডলার দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে তৃতীয় বৃহত্তম দাতা দেশ হিসেবে নাম লেখিয়েছে ব্রিটেন৷ এরপরই আছে ইটালি৷ তারা ১.১ বিলিয়ন ডলার দিতে সম্মত হয়েছে৷

উল্লেখ্য, ইসা-র সদস্য রাষ্ট্রের সংখ্যা ২০৷

জেডএইচ/ডিজি (এপি, বিবিসি, ইন্টারনেট)

স্কিপ নেক্সট সেকশন এই বিষয়ে আরো তথ্য
স্কিপ নেক্সট সেকশন সম্পর্কিত বিষয়
স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

জয়সূচক গোল করার পর ভিনসেন্ট আবু বকরের উল্লাস

ব্রাজিলকে হারিয়ে ক্যামেরুনের বিদায়

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

প্রথম পাতায় যান