ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা ৭০ ছাড়িয়ে গেছে | বিশ্ব | DW | 11.07.2011

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা ৭০ ছাড়িয়ে গেছে

গতকাল উত্তরপ্রদেশের মলওঁয়া স্টেশনের কাছে হাওড়া-দিল্লি কালকা মেল দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা ৭০ ছাড়িয়ে গেছে৷ আসামে গুয়াহাটি-পুরি এক্সপ্রেস ট্রেন বেলাইন হওয়ায় আহত ১০০-এর মত৷ ট্রেন নিরাপত্তা নিয়ে সোচ্চার মানুষ৷

Indians and rescue workers gather at the site of an accident at Sainthia station, about 125 miles (200 kilometers) north of Calcutta, India, Monday, July 19, 2010. A speeding express train collided with a passenger train at the station in eastern India early Monday, mangling the carriages and killing scores of people, railway police said. (AP Photo)

দুর্ঘটনায় মৃতের ছাড়িয়ে গেছে ৭০’এর ঘর

একই দিনে মাত্র কয়েক ঘন্টার ব্যবধানে জোড়া দুর্ঘটনায় রেল দপ্তর বেসামাল৷ একদিকে হাওড়া-দিল্লি কালকা মেল দুর্ঘটনা যেখানে মৃতের সংখ্যা ৭০ ছাড়িয়ে গেছে৷ আহত প্রায় ২০০শো৷ অন্যদিকে, আসামের নলবাড়ি জেলার রঙ্গিয়ায় গুয়াহাটি-পুরি এক্সপ্রেস ট্রেনের চারটি বগি লাইনচ্যুত৷ জোড়া দুর্ঘটনায় আহত ৩০০শোর মত৷ রেল বিভাগের মতে আসামের দুর্ঘটনা উগ্রপন্থিদের নাশকতা৷

হাওড়া-দিল্লি কালকা মেল দুর্ঘটনায় পড়ে উত্তরপ্রদেশের মলওঁয়া সেটশনের কাছে৷ ১৫টি বগি লাইনচ্যুত হয়৷ উদ্ধার কাজে নামানো হয়েছে সেনা৷ উদ্ধার কাজের তদারকি করছেন রেলের পদস্থ অফিসাররা৷ উদ্ধার করা যাত্রীদের এক বিশেষ ট্রেনে আজ সকালে আনা হয় নতুনদিল্লি স্টেশনে৷

কীভাবে হলো এই দুর্ঘটনা? সঠিক কারণ জানা না গেলেও রেল কর্তৃপক্ষ বলছে, ট্রেনের চালকের ইমার্জেন্সি ব্রেক কষার ফলেই নাকি এই দুর্ঘটনা৷ প্রশ্ন হলো, ট্রেন বেলাইন হওয়ায় চালক ইমার্জেন্সি ব্রেক কষেছিলেন না ইমার্জেন্সি ব্রেক কষার ফলে বগি বেলাইন হয়েছিল৷

Local people gather at the site of the accident where an express train rammed into the back of another train near India's northern city of Mathura, Uttar Pradesh, 21 October 2009. According to the police, at least 21 passengers were killed in the collision that occurred at about 5:30 am (0000 GMT) when the Goa Express crashed into the stationary Mewar Express outside Mathura station, located some 140 kilometres south of New Delhi. EPA/HARISH TYAGI +++(c) dpa - Bildfunk+++

ভারতে ট্রেন দুর্ঘটনা লেগেই আছে...

এটাও জানা যায়নি দুর্ঘটনা এড়ানোর জন্য বা ট্রেনে কোন যান্ত্রিক ত্রুটি লক্ষ্য করে চালক ইমার্জেন্সি ব্রেক ব্যবহার করেছিলেন কিনা৷ চালক গুরুতর আহত অবস্থায় এখন হাসপাতালে৷ তাই বলার মত অবস্থায় নেই৷

কারণ যাই হোক, এই জোড়া দুর্ঘটনা আবার প্রমাণ করলো ভারতীয় রেলের অবস্থা এখন বেহাল৷এবছর মে মাসে মমতা বন্দোপাধ্যায় রেলমন্ত্রী পদে ইস্তফা দেবার পর প্রধানমন্ত্রী নাম কা ওয়াস্তে রেলের ভার নিলেও তৃণমূল কংগ্রেসের মুকুল রায় প্রতিমন্ত্রী হিসেবে কাজ চালাচ্ছিলেন৷ কিন্তু পূর্ণমন্ত্রী কে হবেন তা স্থির না হওয়ায় মুকুল রায়ের কাজের গতি ছিল ঢিলেঢালা৷ দুর্ঘটনার পর মুকুল রায় দুর্ঘটনাস্থলে না যাবার কারণ হিসেবে প্রধানমন্ত্রীর দোহাই দিলে প্রধানমন্ত্রী তাঁকে ভৎর্সনা করে দুর্ঘটনাস্থলে যাবার নির্দেশ দেন৷

দ্বিতীয়ত, রেলের নিরাপত্তা সংশ্লিষ্ট উঁচু থেকে নীচু পর্যন্ত প্রায় এক লক্ষ পদ খালি পড়ে আছে বহুদিন৷ যদিও রেল দপ্তর দেশের বৃহত্তম নিয়োগকর্তা৷ ১৫ লক্ষ লোক এখানে কাজ করেন৷ যিনিই রেলমন্ত্রী হয়েছেন তিনি রেলকে রাজনৈতিক হাতিয়ার করে নিজের রাজ্যে জনমোহিনী প্রকল্পের কথা ঘোষণা করে এসেছেন৷ পরিকাঠামোর উন্নতি না করে স্রেফ ট্রেনের সংখ্যা বাড়িয়ে গেছেন৷ এই অদূরদর্শিতার ফলে মার খেয়েছে রেলের নিরাপত্তা৷ চলতি বছরেই রেল দুর্ঘটনা নিহত হয় এপর্যন্ত ৩০০জন৷

প্রতিবেদন: অনিল চট্টোপাধ্যায়, নতুনদিল্লি

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

নির্বাচিত প্রতিবেদন