ভ্যাটিকানে দুর্নীতির অভিযোগ | বিশ্ব | DW | 25.09.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

ভ্যাটিকানে দুর্নীতির অভিযোগ

যুক্তরাজ্যে ফ্ল্যাট কেনার সময় আর্থিক দুর্নীতি করা হয়েছে। এই অভিযোগে পদত্যাগ করতে বাধ্য হলেন ভ্যাটিকান সিটির এক আধিকারিক।

এ বার দুর্নীতির অভিযোগ খোদ ভ্যাটিকান সিটিতে। অভিযোগ সেখানকার এক উচ্চ পদস্থ আধিকারিক যুক্তরাজ্যে ভ্যাটিকানের জন্য বাড়ি কেনার সময় কয়েক মিলিয়ন ইউরো দুর্নীতি করেছেন। বৃহস্পতিবার পোপের কাছে নিজের পদত্যাগপত্র দিয়েছেন ওই ব্যক্তি। পোপ তা গ্রহণ করে নিয়েছেন।

২০১২ সালে যুক্তরাজ্যের চেলসিতে এক বিলাসবহুল ফ্ল্যাট কিনেছিলেন ভ্যাটিকান সিটির কার্ডিনাল অ্যাঞ্জেলো বেচিউ। ভ্যাটিকান সিটির পোপ নির্বাচনে গুরুত্বপূর্ণ পদে ছিলেন এই ব্যক্তি। খ্রিস্টান এই ধর্মস্থানে একেবারে প্রথম সারির আধিকারিকদের মধ্যে একজন ছিলেন অ্যাঞ্জেলো। পদমর্যাদার জোরেই ভ্যাটিকান সিটির জন্যই চেলসিতে এক বিলাসবহুল ফ্ল্যাট কিনতে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানে অত্যন্ত ধনী এক জায়গায় ফ্ল্যাট কেনার জন্য টাকার লেনদেনও করেন। অভিযোগ, অর্থের হিসেবে বিপুল গরমিল রয়েছে। মনে করা হচ্ছে, ফ্ল্যাট কেনার সময় কয়েক মিলিয়ন ইউরোর দুর্নীতি করেছিলেন ওই ব্যক্তি।

পুলিশ অবশ্য অ্যাঞ্জেলোর বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেয়নি। যে মধ্যস্থতাকারীর মাধ্যমে ওই ফ্ল্যাটে অর্থ লেনদেন তিনি করেছিলেন, সেই ইটালীয় ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ভ্যাটিকান সিটিও অ্যাঞ্জেলোর বিরুদ্ধে এখনও পর্যন্ত কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। কোনো অভিযোগও দায়ের করেনি। তবে পদ থেকে সরে যাওয়ার জন্য তাঁর উপর যে যথেষ্ট চাপ ছিল, তা অনেকেই মনে করছেন।

বস্তুত, চাপের কাছে নতি স্বীকার করেই বৃহস্পতিবার পদত্যাগ করেছেন অ্যাঞ্জেলো। তাঁর কার্ডিনাল পদবিও কেড়ে নেওয়া হয়েছে। ফলে ভ্যাটিকানের সঙ্গে তিনি আর যুক্ত থাকলেন না। এর আগে ২০১৮ সালে এ ভাবেই এক উচ্চপদস্থ আধিকারিককে পদত্যাগ করতে বাধ্য করেছিল ভ্যাটিকান। মার্কিন সেই ব্যক্তির বিরুদ্ধে যৌন নিগ্রহের অভিযোগ ছিল।

 

এসজি/জিএইচ (রয়টার্স) 

বিজ্ঞাপন