1. কন্টেন্টে যান
  2. মূল মেন্যুতে যান
  3. আরো ডয়চে ভেলে সাইটে যান
Libyen Migranten vor der libyschen Küste
ছবি: picture-alliance/AP Photo/O. Calvo

ভূমধ্যসাগরে শতাধিক শরণার্থীর মৃত্যুর আশঙ্কা

২০ জানুয়ারি ২০১৯

লিবিয়া ও মরক্কো থেকে ছেড়ে আসা দুটি নৌকা ডুবে যাওয়ার ঘটনায় অন্তত ১৭০ জন অভিবাসনপ্রত্যাশীর মৃত্যুর আশঙ্কা করা হচ্ছে৷ ইটালির প্রেসিডেন্ট সার্জিও মাতারেল্লা এ ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করেছেন৷

https://p.dw.com/p/3Brox

ইটালিয়ান নৌবাহিনী শুক্রবারে ডুবে যাওয়া একটি নৌকায় থাকা তিন জনকে উদ্ধার করতে পেরেছে৷ উদ্ধার হওয়াদের কাছ থেকে জানা গেছে, নৌকাটিতে ১২০ জন যাত্রী ছিলেন৷ বিশিরভাগ যাত্রীই পশ্চিম আফ্রিকার বিভিন্ন দেশের অধিবাসী ছিলেন বলে জানিয়েছে ইন্টারন্যাশনাল অরগানাইজেশন ফর মাইগ্রেশন (আইওএম)৷

লিবিয়ার গাসর গারাবুল্লি থেকে বৃহস্পতিবার ছেড়ে আসে নৌকাটি৷ ১০-১২ ঘণ্টা চলার পর ডুবতে শুরু করে নৌকা৷ আইওএমের মুখপাত্র ফ্লাভিও ডি জিয়াচ্চিনো জানিয়েছেন, নৌকায় ১০ জন নারী ও দুই শিশুও ছিল৷

উদ্ধার হওয়া তিনজনকে ইটালির দ্বীপ লাম্পেদুসায় হাইপোথার্মিয়ার চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে৷ দেশটির নৌবাহিনী জানিয়েছে, এই তিন জনকে উদ্ধারের সময় তারা সাগরে তিনটি মরদেহ ভাসতে দেখেছে

ব্যর্থ অভিযান

ইটালিয়ান নৌবাহিনীর একটি টহলবিমান শুক্রবার নৌকাটিকে ডুবতে দেখে৷ দেশটির রাইনিউজ টোয়েন্টিফোরকে রিয়ার অ্যাডমিরাল ফাবিও আগোস্টিনি জানিয়েছেন, জ্বালানি একেবারে শেষের দিকে থাকায় বিমানটি উদ্ধার তৎপরতা না চালিয়ে ফেরত আসতে বাধ্য হয়৷

লিবিয়াও উদ্ধারকাজে একটি বাণিজ্যিক জাহাজ পাঠিয়েছিল৷ কিন্তু কাউকে খুঁজে না পেয়ে সেটি ফেরত যায়৷

জার্মান সহায়তা সংস্থা সি ওয়াচ শনিবার ৪৭ শরণার্থীকে উদ্ধারের কথা জানিয়েছে৷ কিন্তু তাঁরা ডুবে যাওয়া নৌকাটিতেই ছিলেন কিনা, তা না জানার কথাও জানিয়েছে সংস্থাটি৷

মরক্কোর নৌকাডুবি

মরক্কো থেকে ছেড়ে আসা আরেকটি নৌকা ডুবে আরো ৫৩ অভিবাসনপ্রত্যাশীর মৃত্যুর শঙ্কা করা হচ্ছে৷ নৌকাটি থেকে উদ্ধার হওয়া এক শরণার্থী এ তথ্য জানিয়েছেন স্পেনের সহায়তা সংস্থা কামিনান্দো ফ্রন্টিয়ার্সকে৷ তিনি জানান, আলবোরান সাগরে অন্য একটি জাহাজের সাথে ধাক্কা লেগে ডুবতে শুরু করে সে নৌকা৷

ইটালির প্রেসিডেন্ট সার্জিও মাতারেল্লা ‘ভূমধ্যসাগরে ঘটে যাওয়া এ ঘটনায় গভীর দুঃখ প্রকাশ' করেছেন৷

প্রধানমন্ত্রী কন্টে জানিয়ছেন, এ ঘটনায় তিনি দুঃখ পেয়েছেন৷ পাশপাশি উত্তর আফ্রিকার মানবপাচারকারীদের বিরুদ্ধে তাঁর দেশের যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়ার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছেন

তবে ইটালির শরণার্থীবিরোধী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মাত্তেও সালভিনি বলেছেন, শরণার্থীবাহী নৌকা প্রতিহত করার নীতি যে কাজ করছে, এই মৃত্যুর ঘটনা  তার ‘প্রমাণ'৷ তিনি বলেন, ‘‘বন্দরগুলো খুলে দিলে এমন মৃত্যুর ঘটনা আরো বাড়বে৷''

আইওএমের হিসাব মতে, ২০১৯ সালের প্রথম ১৬ দিনে ইউরোপে ৪৪৪৯ জন শরণার্থী প্রবেশ করেছেন৷ গত বছর একই সময়ে এ সংখ্যা ছিল ২৯৬৪ জন৷

সংস্থাটি গত বছর জানিয়েছিল, ১১৬,৯৫৯ জন শরণার্থী সাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপে প্রবেশ করেছিল, আর ভূমধ্যসাগরে নিখোঁজ বা মৃতের সংখ্যা ছিল ২২৯৭ জন৷

এডিকে/ (রয়টার্স, এপি, এএফপি, ডিপিএ)

স্কিপ নেক্সট সেকশন এই বিষয়ে আরো তথ্য

এই বিষয়ে আরো তথ্য

স্কিপ নেক্সট সেকশন সম্পর্কিত বিষয়

সম্পর্কিত বিষয়

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

FIFA Fußball WM 2022 in Katar | Argentinien - Saudi-Arabien

অঘটন, রোমাঞ্চের বিশ্বকাপ

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

প্রথম পাতায় যান