‘ভুয়া তথ্যের’ জন্য ‘রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের’ দায়ী করলেন সু চি | বিশ্ব | DW | 06.09.2017
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

মিয়ানমার

‘ভুয়া তথ্যের’ জন্য ‘রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের’ দায়ী করলেন সু চি

অবশেষে মুখ খুললেন মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সেলর ও নোবেলজয়ী নেত্রী অং সান সু চি৷ দেশটিতে রোহিঙ্গাদের দুর্দশা নিয়ে আন্তর্জাতিক সমালোচনায় প্রতিক্রিয়া জানালেন তিনি৷

মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, রোহিঙ্গা সংকটকে ঘিরে অনেক ভুয়া তথ্য প্রকাশিত হচ্ছে এবং ‘সন্ত্রাসীরা’ এগুলো ছড়াচ্ছে৷ বিবৃতিটি প্রকাশের আগে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেচেপ তাইয়্যেপ এর্দোয়ানের সঙ্গে টেলিফোনে আলাপ করেন সু চি৷ এর্দোয়ানকে সু চি বলেন, রোহিঙ্গা জঙ্গিরা ভুল তথ্য প্রকাশ করছে৷ অত্র অঞ্চলকে অস্থিতিশীল করে তোলার লক্ষ্যে তারা এসব করছে বলে মন্তব্য করেন সু চি৷ ‘‘এরকম ভুয়া তথ্য, যা উপ-প্রধানমন্ত্রীকে (তুরস্কের) আহত করেছে, তা অনেক ভুল তথ্যের একটি ছোট্ট অংশ মাত্র৷ এসব তথ্য প্রচারের মাধ্যমে বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মধ্যে সমস্যা তৈরি করা হচ্ছে,’’ সামাজিক মাধ্যমে প্রকাশিত এই বিবৃতিতে সু চির এই বক্তব্যের উল্লেখ রয়েছে৷ উল্লেখ্য, তুরস্কের উপ-প্রধানমন্ত্রী মেহমেট সিমসেক টুইটারে কয়েকদিন আগে রক্তাক্ত কিছু ছবি শেয়ার করে মিয়ানমার সরকারের সমালোচনা করেছিলেন৷ ছবিগুলো রোহিঙ্গাদের বলে টুইট করা হয়েছিল৷ কিন্তু আসলে তা সত্য ছিল না৷ ফলে পরবর্তীতে টুইটটি মুছে দিয়েছিলেন সিমসেক৷

বিবৃতিতে সু চি আরও বলেন, ‘‘আমরা ভালো করে জানি, অন্য অনেকের চেয়ে বরং বেশি, মানবাধিকার ও গণতন্ত্র রক্ষা বলতে আসলে কী বোঝায়৷’’ ফলে মিয়ানমারের সব মানুষের অধিকার রক্ষার বিষয়ে কাজ করা হচ্ছে বলে দাবি করেন তিনি৷

উল্লেখ্য, জাতিসংঘ মঙ্গলবার জানায়, ২৫ আগস্টের পর থেকে প্রায় সোয়া লক্ষ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে৷ রাখাইন রাজ্যে সংঘাত বন্ধে মিয়ানমার সরকারের প্রতি আহ্বানও জানিয়েছে জাতিসংঘ৷

এদিকে, সু চির নোবেল পুরস্কার বাতিলের দাবি জানিয়েছেন অনেক সামাজিক মাধ্যম ব্যবহারকারী৷ হিউম্যান রাইটস ওয়াচের ইউরোপিয়ান মিডিয়া ডাইরেক্টর অ্যান্ড্রু স্ট্র্যোলাইনও আছেন তাঁদের মধ্যে৷

ব্রিটিশ দৈনিক গার্ডিয়ান এক সম্পাদকীয়তে লিখেছে, একটি দুষ্ট শাসকের সহানুভূতিহীন প্রতিমা হিসেবে সু চি আবির্ভূত হচ্ছেন বলে মনে হচ্ছে৷ তসলিমা নাসরিন গার্ডিয়ানের এই বক্তব্য টুইট করেছেন৷

জেডএইচ/এসিবি (ডিপিএ, এএফপি)

প্রিয় পাঠক, আপনি কিছু বলতে চাইলে লিখুন নীচে মন্তব্যের ঘরে...

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

সংশ্লিষ্ট বিষয়