ভুয়া খবরের বিরুদ্ধে আইন হবে, বললেন মাক্রোঁ | বিশ্ব | DW | 04.01.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ফ্রান্স

ভুয়া খবরের বিরুদ্ধে আইন হবে, বললেন মাক্রোঁ

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাক্রোঁ প্রেসিডেন্ট হিসেবে দেয়া তাঁর নববর্ষের প্রথম ভাষণে বলেছেন, অনলাইনে ভুয়া খবর রোধে নতুন আইন করা হবে৷ শুধু নির্বাচনের সময় সেই আইন কার্যকর থাকবে৷

‘‘ভুয়া খবর থেকে গণতন্ত্রকে বাঁচাতে আমাদের আইনি ব্যবস্থা গড়ে তুলতে হবে,'' বলেন মাক্রোঁ৷ ৪০ বছর বয়সি ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘‘আমরা যদি উদার গণতন্ত্রকে বাঁচাতে চাই, তাহলে আমাদের অবশ্যই কঠোর আইন থাকতে হবে৷''

এমন আইন তৈরির সময় গণমাধ্যমের সঙ্গে আলোচনা করা হবে বলেও নিশ্চিত করেন তিনি৷ শুধু নির্বাচনের আগে এই আইন প্রয়োগ করা হবে বলে এর ফলে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ক্ষতিগ্রস্ত হবে না বলে মন্তব্য করেন মাক্রোঁ৷

নতুন আইনের কারণে বিচারকরা ভুয়া অনলাইন তথ্যের ব্যাপারে তাড়াতাড়ি সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন৷ এক্ষেত্রে তাঁরা সংশ্লিষ্ট তথ্য ও অ্যাকাউন্ট মুছে দেয়া, মূল ওয়েবসাইটে প্রবেশ বন্ধ করা ইত্যাদি ব্যবস্থা নিতে পারবেন৷

এছাড়া প্রচারমাধ্যম নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থার ক্ষমতাও বাড়ানো হবে, যেন তারা বিদেশি রাষ্ট্র কর্তৃক নিয়ন্ত্রিত কিংবা পরিচালিত টেলিভিশন চ্যানেলের অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরির চেষ্টার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারে৷

উল্লেখ্য, গত বছর ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে ভুল তথ্য প্রচারের জন্য রাশিয়ার গণমাধ্যমের কঠোর সমালোচনা করেছিলেন মাক্রোঁ৷ প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুটিনের সঙ্গে এক যৌথ সম্মেলনে মাক্রোঁ বলেছিলেন, রুশ গণমাধ্যম আরটি ও স্পুটনিক ‘মানহানিকর অসত্য' এবং ‘প্রতারণাপূর্ণ প্রোপাগান্ডা' প্রচার করেছিল৷

গত বছরের অক্টোবরে জার্মান সংসদে ভুয়া খবর নিয়ন্ত্রণে একটি আইন পাস হয়৷ ফলে ভুল ও ঘৃণাপূর্ণ তথ্য তাড়াতাড়ি মুছে ফেলতে ব্যর্থ হলে সংশ্লিষ্ট সামাজিক মাধ্যমের বিরুদ্ধে ৫০ মিলিয়ন ইউরো পর্যন্ত জরিমানা করতে পারবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ৷

জেডএইচ/এসিবি (ডিপিএ, এএফপি, এপি, রয়টার্স)

 

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন