ভিডিও বার্তায় প্রতিশোধের অঙ্গীকার করলেন আইএস নেতা | বিশ্ব | DW | 30.04.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

আইএস

ভিডিও বার্তায় প্রতিশোধের অঙ্গীকার করলেন আইএস নেতা

সোমবার প্রকাশিত এক ভিডিও বার্তায় আইএস নেতা আল বাগদাদি শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশে প্রতিশোধমূলক হামলার উল্লেখ করেন৷ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ভিডিওটি যাচাই করে দেখছে৷

সিরিয়া ও ইরাকে খিলাফত প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ব্যর্থ হলেও তথাকথিত ইসলামিক স্টেট বা আইএস যে এখনো ফুরিয়ে যায়নি, শ্রীলঙ্কায় ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার ফলে তা স্পষ্ট হয়ে গেছে৷ এমন ‘সাফল্য' জাহির করতে প্রায় ৫ বছর পর আবার উদয় হলেন আইএস নেতা আবু বকর আল বাগদাদি৷ সোমবার প্রকাশিত একটি ভিডিও বার্তায় যে ব্যক্তি নিজেকে আল বাগদাদি হিসেবে দাবি করছেন, নিশ্চিতভাবে তার পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে৷

বিশ্বের ‘মোস্ট ওয়ান্টেড' তালিকার শীর্ষে তার নাম থাকলেও ২০১৪ সালে ইরাকের মোসুল শহরে তাকে শেষবার প্রকাশ্যে দেখা গিয়েছিল৷ সে সময়ে তিনি খিলাফতের ঘোষণা করেছিলেন৷ ২০১৮ সালের আগস্ট মাসে আইএস নেতার এক অডিও বার্তা প্রকাশ করা হয়েছিল৷ সোমবার আইএস-এর সংবাদ মাধ্যম হিসেবে পরিচিত আল-ফুরকান ১৮ মিনিটের এই ভিডিও প্রকাশ করেছে৷ উল্লেখ্য, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তার মাথার দাম আড়াই কোটি ডলার ধার্য করেছে৷

ভিডিও বার্তায় আল বাগদাদি সিরিয়ার বাগুজ শহরে আইএস-এর পরাজয় মেনে নিলেও প্রতিশোধের হুমকি দিয়েছেন৷ অন্যান্য জায়গাও যে আইএস-এর হাতছাড়া হয়ে গেছে, সেই সত্যও মেনে নিয়ে তিনি বলেন, ঈশ্বর আইএস-কে জিহাদ চালিয়ে যাবার নির্দেশ দিয়েছেন, জয়ের নির্দেশ দেননি৷ পশ্চিমা বিশ্বের বিরুদ্ধে দীর্ঘ সংগ্রামের উল্লেখ করেন আল বাগদাদি৷ এ প্রসঙ্গে তিনি বাংলাদেশে পুলিশের উপর বিস্ফোরক হামলারও উল্লেখ করেন৷ ২১শে এপ্রিল শ্রীলঙ্কায় একাধিক হামলাকে তিনি বাগুজ হারানোর প্রতিশোধ হিসেবে তুলে ধরেন৷  সুদান ও আলজেরিয়ায় সাম্প্রতিক প্রতিবাদ-বিক্ষোভেরও উল্লেখ করেন আল বাগদাদি৷ পশ্চিম আফ্রিকার প্রেক্ষাপটে ফ্রান্স ও সে দেশের সহযোগী দেশগুলিকে শত্রু হিসেবে উল্লেখ করেন তিনি৷ পরাজয়ের প্রতিশোধ নিতে আইএস ৮টি দেশে ৯২টি অভিযান চালিয়েছে বলেও দাবি করেছেন আল বাগদাদি৷

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সবার আগে সোমবার প্রকাশিত এই ভিডিও যাচাই করবে বলে জানিয়েছে৷ সেই সঙ্গে আইএস-এর বিরুদ্ধে সংগ্রাম চালিয়ে যাবারও অঙ্গীকার করেছে ওয়াশিংটন৷ মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র বলেন, এই সন্ত্রাসবাদী ও তাদের সব নেতার স্থায়ী পরাজয় ও তাদের বিচার নিশ্চিত করা হবে৷ তাঁর মতে, আল বাগদাদি বেঁচে থাকলেও ইরাক ও সিরিয়ায় তাদের পরাজয় এই গোষ্ঠীকে তছনছ করে দিয়েছে৷ মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ এখনো এই ভিডিও বার্তা সম্পর্কে প্রকাশ্যে কোনো মন্তব্য করেনি৷

এসবি/এসিবি (এএফপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন