ভিডিও কলে পুটিনকে হুমকি বাইডেনের | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 13.02.2022

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

যুক্তরাষ্ট্র

ভিডিও কলে পুটিনকে হুমকি বাইডেনের

ইউক্রেনে হামলা চালানো হলে এর ‘সমুচিত জবাব’ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন৷  

শনিবার রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুটিনের সঙ্গে ভিডিও ফোনে আলাপকালে এই হুমকি দেন বাইডেন৷

তিনি বলেন, ‘‘রাশিয়া যদি ইউক্রেনে হামলা চালায় তাহলে যুক্তরাষ্ট্র এবং তার মিত্র রাষ্ট্রগুলো এর সমুচিত জবাব দেবে এবং রাশিয়াকে তাৎক্ষণিক ও কঠোর ফল ভোগ করতে হবে৷’’

তাছাড়া ইউক্রেনে হামলা হলে তার ফল খুব মারাত্মক হবে এবং মস্কো বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বে বলেও সতর্ক করেন তিনি৷     

কয়েক সপ্তাহ ধরে ইউক্রেন সীমান্তে রাশিয়ার সৈন্য সমাবেশের পরে বিশ্বজুড়েই অস্থিরতা বিরাজ করছে৷ তাছাড়া কৃষ্ণসাগরে রাশিয়ার নৌবাহিনীর চলমান মহড়া উদ্বেগের জন্ম দিয়েছে৷  

যুক্তরাষ্ট্রের দাবি, ইউক্রেনে যেকোনো সময় রাশিয়া হামলা চালাতে পারে৷ সতর্কতার অংশ হিসেবে পশ্চিমা অনেক দেশ তাদের নাগরিকদের ইউক্রেন ত্যাগের নির্দেশ দিয়েছে৷   

তবে রাশিয়া বলছে, ইউক্রেনে হামলা চালানোর কোনো ইচ্ছা তাদের নেই৷ 

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে সংকট নিরসনের অংশ হিসেবে ভিডিও কলে আলাপ করেন এই দুই নেতা৷ তবে হোয়াইট হাউসের এক মুখপাত্র জানান, এক ঘণ্টার আলোচনাটি অনেক পেশাদার হলেও সংকট নিরসনের ক্ষেত্রে নতুন কোনো কার্যকর ভূমিকা তৈরি করতে পারেনি৷   

তার আগে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাক্রোঁ রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুটিনের সাথে টেলিফোনে কথা বলেন৷ ফরাসি প্রেসিডেন্টের কার্যালয় থেকে জানানো হয় যে, ৪০ মিনিটের এ আলোচনায় পুটিন এই মুহূর্তে ইউক্রেনে হামলা করবে তেমন কোনা ইঙ্গিত দেননি৷       

উল্লেখ্য, ইউক্রেন সংকটের সমাধানে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ কূটনৈতিক তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে৷ গত সপ্তাহে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাক্রোঁ এবং তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেচেপ তাইয়্যেপ এর্দোয়ান মস্কো সফর করেন৷

যদিও তাদের সফর সংকট সমাধানে এখন পর্যন্ত তেমন কোনো প্রভাব ফেলতে পারেনি৷

আরআর/এফএস (এএফপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন