ভারত থেকে মাছ আমদানি বন্ধ করল চীন | বিশ্ব | DW | 13.11.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ভারত

ভারত থেকে মাছ আমদানি বন্ধ করল চীন

করোনা কালে ভারত থেকে মাছ নেওয়া হবে না বলে জানিয়ে দিল চীন। মাছের প্যাকিংয়ে করোনার ভাইরাস মিলেছে।

ভারতের সঙ্গে চীনের বাণিজ্য যোগাযোগ দীর্ঘ দিনের। সাম্প্রতিক ভারত-চীন সংঘাতের আবহে বাণিজ্য সামান্য ধাক্কা খেলেও এখনো বহু জিনিস ভারত রপ্তানি করে চীনকে। চীনও ভারতে বিপুল পরিমাণ পণ্য পাঠায়। ওষুধ তৈরির কাঁচামাল থেকে শুরু করে খাবার-- করোনাকালেও এ সমস্ত জিনিস চীনকে রপ্তানি করেছে ভারত। এ বার তাতেও রাশ টানছে চীন। সম্প্রতি চীন ভারতকে জানিয়ে দিয়েছে, কিছুদিনের জন্য ভারতের কাছ থেকে মাছ নেওয়া হবে না।

ভারত-চীন সংঘাতের কারণেই কি এই সিদ্ধান্ত নিল চীন? আপাতদৃষ্টিতে তেমন মনে হচ্ছে না। চীন জানিয়েছে, করোনার কারণেই মাছের রপ্তানি আপাতত বন্ধ রাখা হচ্ছে। চীনের একটি ল্যাবরেটরি জানিয়েছে, ভারত থেকে যে মাছ চীনে প্যাক করে পাঠানো হয়, দুইবার সেই মাছের প্যাকিংয়ে করোনা ভাইরাসের সন্ধান মিলেছে। তারপরেই আপাতত মাছ আমদানি বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আগামী এক সপ্তাহ এই সিদ্ধান্ত বহাল থাকবে। তারপর পরিস্থিতি বুঝে পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানানো হবে বলে চীন জানিয়েছে। এর ফলে ভারতীয় ব্যবসায়ীদের খানিকটা ক্ষতির মুখে পড়তে হবে।

লাদাখে ভারত-চীন সংঘাত শুরু হওয়ার পরে বেশ কিছু চীনা অ্যাপ নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছিল নরেন্দ্র মোদীর সরকার। চীনের দ্রব্য বয়কটের ডাক দিয়েছিল ভারতের বেশ কিছু সংগঠন। মোদী সরাসরি না বললেও আত্মনির্ভর ভারতের প্রসঙ্গে চীনের জিনিস না কেনার কথা বলেছিলেন। কিন্তু এত কিছুর পরেও দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্যিক সম্পর্ক সম্পূর্ণ বন্ধ হয়ে যায়নি। বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য, যে পরিমাণ বাণিজ্য দুই দেশের মধ্যে হয়, তাতে আচমকা তা বন্ধ হওয়া কঠিন।

এসজি/জিএইচ (পিটিআই)

সংশ্লিষ্ট বিষয়