ভারত আর পাকিস্তান নিয়ে দীর্ঘশ্বাসের ছবি | বিশ্ব | DW | 25.09.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ভারত-পাকিস্তান

ভারত আর পাকিস্তান নিয়ে দীর্ঘশ্বাসের ছবি

ভারতের পাঞ্জাব ছাড়তে বাধ্য হয়েছিল নাসিম বদরের পরিবার৷ পাকিস্তানের এই নারীর মতই অভিজ্ঞতা ভারতের স্পর্শ আহুজার পরিবারের৷ তাদের পূর্বপুরুষদের জন্মভূমি ছেড়ে যাওয়ার গল্প তুলে ধরছে প্রোজেক্ট দাস্তানের ভার্চুয়াল রিয়েলিটি মুভি৷

১৯৪৭ সালের সেপ্টেম্বরে তোলা ছবিতে দিল্লি থেকে পাকিস্তান যেতে মুসলিম শরণার্থীদের ট্রেনে উঠতে দেখা যাচ্ছে

১৯৪৭ সালের সেপ্টেম্বরে তোলা ছবিতে দিল্লি থেকে পাকিস্তান যেতে মুসলিম শরণার্থীদের ট্রেনে উঠতে দেখা যাচ্ছে

লন্ডনের বেড়ে ওঠা নাসিম বদর এতদিন তার পরিবারের কাছ থেকে শুধু ভারত থেকে পাকিস্তানে পালিয়ে আসার গল্পই শুনেছেন৷ এখন তিনি দাস্তান প্রকল্পের করা এক ভার্চুয়াল ফিল্ম দেখে বুঝতে পারছেন ১৯৪৭ সালে ভারত ভাগের সময় কী পরিস্থিতিতে পাঞ্জাবের রূপপুর থেকে চলে এসেছিল ৭০টি পরিবার৷ নাসিমের পরিবারও ছিল ওই ৭০টি মুসলিম পরিবারের মধ্যে৷

ব্রিটিশ শাসন থেকে ভারতের স্বাধীনতা লাভ ইতিহাসের সবচেয়ে বড় বাধ্যতামূলক অভিবাসনের জন্ম দেয়৷ ১২ মিলিয়ন, অর্থাৎ এক কোটি ২০ লাখেরও বেশি মানুষ দেশ ছাড়তে বাধ্য হয় এবং দাঙ্গায় মারা যায় ১০ লাখেরও বেশি মানুষ৷

নাসিমের কখনো ভারতে যাওয়া হয়নি ৷ তবে এখন দাস্তান প্রকল্পের তৈরি ভার্চুয়াল রিয়েলিটি ছবিটি দেখার পর রূপনগর সম্পর্কে ধারণা স্পষ্ট হয়ে গেছে তার৷

ছবিটি দেখার পর তার পরিবার অত্যন্ত আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন বলে জানান নাসিম বদর ৷ ‘‘এটা তাদের জীবন এবং দক্ষিণ এশিয়ার ইতিহাসের একটি বড় অংশ, তাই এই স্মৃতিগুলো সংরক্ষণ করা গুরুত্বপূর্ণ’’ বলে মনে করেন নাসিম৷

একই কথা বলেন দাস্তান প্রকল্পের প্রতিষ্ঠাতা স্পর্শ আহুজা৷ ১৯৪৭ সালে তার বাবার বয়স ছিল সাত বছর৷ সেই বয়সেই জন্মভূমি পাকিস্তান ছেড়ে ভারতে চলে আসতে বাধ্য হয়েছিলেন তিনি৷

এনএস/এসিবি (রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন